COVID Restrictions : নেতাজি জন্মজয়ন্তীতে কোনও সভা-সমাবেশ, শোভাযাত্রা নয়; কাটছাট প্রজাতন্ত্র দিবসেও

COVID 19 Cases in West Bengal: কোভিড কাঁটায় বিদ্ধ রাজ্য। এই পরিস্থিতিতে কোনওরকম জাঁকজমকপূর্ণ অনুষ্ঠান করতে চাইছে না রাজ্য প্রশাসন। চলতি বছরে রাজ্য সরকার ছোট করেই অনুষ্ঠান করতে চলেছে ২৬ জানুয়ারি।

COVID Restrictions : নেতাজি জন্মজয়ন্তীতে কোনও সভা-সমাবেশ, শোভাযাত্রা নয়; কাটছাট প্রজাতন্ত্র দিবসেও
নবান্নে কাছে বোমাতঙ্ক (ফাইল ছবি)

কলকাতা: ২৩ জানুয়ারি নেতাজি জন্ম জয়ন্তীতে (Netaji Birth Anniversary) কোনও সভা, সমাবেশ, শোভাযাত্রা হবে না। শুক্রবার রাজ্যের মুখসচিব হরিকৃষ্ণ দ্বিবেদী বৈঠক করেন রাজ্যের অন্যান্য শীর্ষ আধিকারিকদের সঙ্গে। ওই বৈঠকেই স্থির এই বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে বলে জানা গিয়েছে। নেতাজি সুভাষচন্দ্র বসুর জন্ম জয়ন্তী পালন ছোট করেই পালন করার পরিকল্পনা নিয়েছে রাজ্য প্রশাসন। একইসঙ্গে কাটছাট করা হয়েছে ২৬ জানুয়ারি প্রজাতন্ত্র দিবসের (Republic Day) অনুষ্ঠানেও। কোভিড কাঁটায় (COVID 19 Cases in West Bengal) বিদ্ধ রাজ্য। এই পরিস্থিতিতে কোনওরকম জাঁকজমকপূর্ণ অনুষ্ঠান করতে চাইছে না রাজ্য প্রশাসন। চলতি বছরে রাজ্য সরকার ছোট করেই অনুষ্ঠান করতে চলেছে ২৬ জানুয়ারি।

গত বছরের প্রজাতন্ত্র দিবসও পালিত হয়েছিল ছোট করে

অন্যান্য বছর ওই দিনে বিভিন্ন বিশিষ্ট মানুষদের আমন্ত্রণ জানানো হয়ে থাকে। কিন্তু বর্তমান করোনা পরিস্থিতিতে সেই বিষয়টিতেও বদল করা হচ্ছে। খুব বেশি লোককে আমন্ত্রণ জানানো হবে না এবারের প্রজাতন্ত্র দিবসের অনুষ্ঠানে। উল্লেখ্য, গত বছরের প্রজাতন্ত্র দিবসের কর্মসূচিতেও থাবা বসিয়েছিল করোনা পরিস্থিতি। তখনও করোনা পরিস্থিতিতে অনুষ্ঠানে কাটছাট করা হয়েছিল। এই বছর তার থেকেও ছোট করে অনুষ্ঠান করার পরিকল্পনা রাজ্যের। নবান্ন সূত্র মারফত এমনটাই জানা গিয়েছে।

তৃণমূলের একগুচ্ছ পূর্বঘোষিত কর্মসূচি

উল্লেখ্য, এর আগে তৃণমূলের রাজ্য নেতৃত্বের তরফে জেলা নেতৃত্বকে ২৩ জানুয়ারি এবং ২৬ জানুয়ারি কী কী করতে হবে তার একটি তালিকা তৈরি করে দেওয়া হয়েছিল। সেই মতো প্রতিটি ব্লক স্তরে এবং ওয়ার্ড স্তরে বিভিন্ন কর্মসূচি পালনের কথা বলা হয়েছিল। ২৩ জানুয়ারি নেতাজির ১২৬ তম জন্ম জয়ন্তী মর্যাদা সহকারে পালনের জন্য নির্দেশ দেওয়া হয়েছিল রাজ্যের শাসক শিবিরের তরফে। প্রতিটি জেলার ব্লকে ও ওয়ার্ড স্তরে সুভাষ উৎসব পালনের কথা বলা হয়েছিল। তবে এখন পরিবর্তিত পরিস্থিতিতে এই কর্মসূচি আদৌ পালিত হবে কি না, বা কতটা সংকোচন হবে, সেই বিষয়ে এখনও পর্যন্ত কিছু জানা যায়নি।

একইরকমভাবে ২৬ জানুয়ারি প্রজাতন্ত্র দিবসের অনুষ্ঠানেও একগুচ্ছ কর্মসূচি পালনের কথা বলা হয়েছিল তৃণমূলের জেলা নেতৃত্বকে। প্রতিটি ব্লক স্তরে জাতীয় পতাকা ও দলীয় পতাকা উত্তোলন করার কথা ছিল। সেই সঙ্গে স্বাধীনতা সংগ্রামের ইতিহাস নিয়ে আলোচনা সভা, বর্ণাঢ্য মিছিলের আয়োজন করার কথা ছিল। পাশাপাশি বিভিন্ন এলাকায় দুঃস্থ মানুষ ও হাসপাতালের রোগীদের বস্ত্র ও ফল বিতরণের কথা বলা হয়েছিল। কিন্তু নবান্ন সূত্রে যা খবর পাওয়া যাচ্ছে, তাতে রাজ্যের শাসক দলের এই কর্মসূচি যতটা ব্যাপকভাবে পালন করার পরিকল্পনা নেওয়া হয়েছিল, ততটা বড় করে পালন করা সম্ভব হবে কি না, তা নিয়েও সংশয় তৈরি হচ্ছে। যদির রাজ্যের শাসক শিবিরের তরফে এই বিষয়ে এখনও পর্যন্ত বিশেষ কিছু জানা যায়নি।

আরও পড়ুন : Lady Brabourne College: চুরি গিয়েছে অক্ষর, কলেজের নাম বিকৃতিতে থানায় লেডি ব্র্যাবোর্ন

Related News

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla