পারফেক্ট চা বানানোর কিছু দরকারি টিপস!

চা খেতে প্রায় সকলেই পছন্দ করেন।আপনার পছন্দের চা কীভাবে তৈরি করেন? তিন হাজার বছর ধরে অনেক ধরনের চা পাতার ভেদ রয়েছে, রয়েছে এক কাপ বানাবার ২০ লক্ষের বেশি উপায়! ধোঁয়া ওঠা চায়ের জন্য আমরা খুব সহজ একটি উপায় করে থাকি। প্রতিদিন সকালে উঠেই চাই গরম ও সুস্বাদু চা। তা না হলে সকাল শুরু মেজাজটাই যে তৈরি হয় না। পারফেক্ট এক কাপ চা বানানোর কিছু টিপস দেওয়া হল এখানে...

1/7
সর্বদা পাতা চা ব্যবহার করুন- সস্বাদু ও পারফেক্ট চা বানানোর জন্য প্রথমে দরকার উচ্চমানের ও সঠিক চা পাতা। এই ধরণের পাতা অন্য চা পাতার তুলনায় বেশি পরিবেশ বান্ধব। চা তৈরির জন্য বাজারেই পাবেন দারুণ স্বাদের চা পাতা। তবে চায়ের জন্য নিম্ন মানের টি ব্যাগ ব্যবহার করবেন না। এতে থাকে উচ্চমানের ট্যানিন। যা দুধের প্রোটিনের সঙ্গে খুব তাড়াতাড়ি মিশে যায়।
সর্বদা পাতা চা ব্যবহার করুন- সস্বাদু ও পারফেক্ট চা বানানোর জন্য প্রথমে দরকার উচ্চমানের ও সঠিক চা পাতা। এই ধরণের পাতা অন্য চা পাতার তুলনায় বেশি পরিবেশ বান্ধব। চা তৈরির জন্য বাজারেই পাবেন দারুণ স্বাদের চা পাতা। তবে চায়ের জন্য নিম্ন মানের টি ব্যাগ ব্যবহার করবেন না। এতে থাকে উচ্চমানের ট্যানিন। যা দুধের প্রোটিনের সঙ্গে খুব তাড়াতাড়ি মিশে যায়।
2/7
সঠিক বাসন বাছুন- পারফেক্ট চা বানাতে হলে চা তৈরির জন্য সঠিক ও উপযুক্ত বাসনের দরকার। সাধারণত পোরসেলিন  বা চিনা মাগ  ব্যবহার করতে পারেন। স্টারোফোম কাপ একেবারেই ব্যবহার করবেন না। এতে রয়েছে সিন্থেটিক উপাদান, যা গরম চা ঢালতেই সেই সব রাসায়নিক মিশে যায়।
সঠিক বাসন বাছুন- পারফেক্ট চা বানাতে হলে চা তৈরির জন্য সঠিক ও উপযুক্ত বাসনের দরকার। সাধারণত পোরসেলিন বা চিনা মাগ ব্যবহার করতে পারেন। স্টারোফোম কাপ একেবারেই ব্যবহার করবেন না। এতে রয়েছে সিন্থেটিক উপাদান, যা গরম চা ঢালতেই সেই সব রাসায়নিক মিশে যায়।
3/7
চা কীভাবে তৈরি করবেন- চা তৈরি আগে প্রথমে ৩০ সেকেন্ড জল গরম করে নিন। চা পাতা বা টি ব্য়াগ দেওয়ার আগে জল ভালো করে ফুটিয়ে কিছুটা সময় ঠান্ডা হতে দিন। তবে মনে রাখবেন চা পাতার ধরণ বুঝে জলের তাপমাত্রার হেরফের করা উচিত।
চা কীভাবে তৈরি করবেন- চা তৈরি আগে প্রথমে ৩০ সেকেন্ড জল গরম করে নিন। চা পাতা বা টি ব্য়াগ দেওয়ার আগে জল ভালো করে ফুটিয়ে কিছুটা সময় ঠান্ডা হতে দিন। তবে মনে রাখবেন চা পাতার ধরণ বুঝে জলের তাপমাত্রার হেরফের করা উচিত।
4/7
ধরুন , গ্রিন টি করবেন, তাবলে খুব গরম জলের দরকার নেই। ফুটন্ত গরম জলের মধ্যে গ্রিন টি দেবেন না । খুব বেশি গরম জলে গ্রিন টির পাতা দিলে তা অত্য়ন্ত স্বাদহীন হয়ে যায়।
ধরুন , গ্রিন টি করবেন, তাবলে খুব গরম জলের দরকার নেই। ফুটন্ত গরম জলের মধ্যে গ্রিন টি দেবেন না । খুব বেশি গরম জলে গ্রিন টির পাতা দিলে তা অত্য়ন্ত স্বাদহীন হয়ে যায়।
5/7
চা পাতাকেও শ্বাস নিতে দিন- চা তৈরি হয়ে গেলে চা রাখার জায়গায় ঢালার সময় খাপচি খুলে রাখুন। তাতে চায়ের মধ্যে প্রয়োজনীয় অক্সিজেন প্রবেশ করবে, এতে চায়ের ফ্লেবার আরও বাড়িয়ে দেয়।
চা পাতাকেও শ্বাস নিতে দিন- চা তৈরি হয়ে গেলে চা রাখার জায়গায় ঢালার সময় খাপচি খুলে রাখুন। তাতে চায়ের মধ্যে প্রয়োজনীয় অক্সিজেন প্রবেশ করবে, এতে চায়ের ফ্লেবার আরও বাড়িয়ে দেয়।
6/7
বার বার চা ফোটাবেন না- চা তৈরি হয়ে ঠান্ডা হয়ে গেলে বার বার গরম করে খাবেন না ।  এর জেরে চায়ের মধ্যে রাসায়নিক মিশতে শুরু করে।  অন্য়দিকে স্বাদেরও দফারফা হয়ে যায়।  অক্সিজেনের মাত্রা হ্রাস পেয়ে চা স্বাভাবিক ভাবে গরম জলে পরিণত হয়।
বার বার চা ফোটাবেন না- চা তৈরি হয়ে ঠান্ডা হয়ে গেলে বার বার গরম করে খাবেন না । এর জেরে চায়ের মধ্যে রাসায়নিক মিশতে শুরু করে। অন্য়দিকে স্বাদেরও দফারফা হয়ে যায়। অক্সিজেনের মাত্রা হ্রাস পেয়ে চা স্বাভাবিক ভাবে গরম জলে পরিণত হয়।
7/7
পরিমাণ বুঝে চা পাতা দিন- আপনি যদি স্ট্রং চা খেতে অভ্যস্ত হোন, তাহলে ফুটন্ত জলে কতটা চা দিতে হবে তা নিশ্চয় জানেনন চায়ের পরিমাণ অনুযায়ী চায়ের স্বাদ নির্ভর করে।
পরিমাণ বুঝে চা পাতা দিন- আপনি যদি স্ট্রং চা খেতে অভ্যস্ত হোন, তাহলে ফুটন্ত জলে কতটা চা দিতে হবে তা নিশ্চয় জানেনন চায়ের পরিমাণ অনুযায়ী চায়ের স্বাদ নির্ভর করে।

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla