India vs South Africa: কেপ টাউনেই কি শেষ টেস্ট খেলে ফেললেন পূজারা-রাহানে?

পূজারা-রাহানের অভিজ্ঞতার জন্যই মূলত তাঁদের এই সফরে নেওয়া হয়েছিল। এবং শুধু নেওয়াই নয়, তাঁদের প্রথম একাদশে রেখে টিম ম্যানেজমেন্ট আরও একবার তাঁদের উপর যে আস্থা রয়েছে এখনও, সে কথা বুঝিয়ে দিয়েছিল। প্রশ্ন হল, টিম ম্যানেজমেন্টের ভরসার মান কি তাঁরা রাখতে পারলেন? উত্তরে 'না' বলছে ক্রিকেটমহল।

India vs South Africa: কেপ টাউনেই কি শেষ টেস্ট খেলে ফেললেন পূজারা-রাহানে?
India vs South Africa: কেপ টাউনেই কি শেষ টেস্ট খেলে ফেললেন পূজারা-রাহানে?

কেপ টাউন: প্রোটিয়াদের দেশে ভারত ইতিহাস গড়তে পারবে কিনা, উত্তর পেতে খুব দেরি নেই। তবে, কেপ টাউন টেস্টের তৃতীয় দিন একটা ব্যাপার নিয়ে টুইটার রীতিমতো সরগরম। নিজেরা অবসর ঘোষণা না করলেও, টুইটারেত্তিরা এখনই ফেয়ারওয়েল জানিয়ে দিচ্ছে ‘পুরানে’ জুটিকে। টুইটারে এখন ট্রেন্ডিং হ্যাশট্যাগ চলছে, #PURANE, #ThankYouPujara এবং #ThankYouRahane। অর্থাত্‍, ক্রিকেট ভক্তরা গোল্ডেন হ্যান্ডশেক করে ফেলতে চাইছেন এই দুই ক্রিকেটারের সঙ্গে। কেরিয়ারের শেষ টেস্ট কি তবে কেপ টাউনেই খেলে ফেললেন চেতেশ্বর পূজারা (Cheteshwar Pujara) ও অজিঙ্ক রাহানে (Ajinkya Rahane)। প্রোটিয়া সফরের আগে ভারতীয় দলে তাঁদের নাম ঘোষণার সময় থেকেই থেকেই নানা প্রশ্ন উঠছিল। ফর্মে না থাকার পরও কেন তাঁদের দিনের পর দিন টানা হচ্ছে? নিউজিল্যান্ডের বিরুদ্ধে অভিষেক টেস্টে সেঞ্চুরি করা শ্রেয়স আইয়ার, হনুমা বিহারীর মতো ক্রিকেটাররা তাঁদের জন্য টিমে সুযোগ পাচ্ছেন না। রাহানে-পূজারা ব্যর্থ হচ্ছেন! তার পরও কেন ভারতের দুই সিনিয়র ক্রিকেটারের ওপর পুরো সিরিজেই ভরসা রেখেছিল টিম ম্যানেজমেন্ট?

পূজারা-রাহানের অভিজ্ঞতার জন্যই মূলত তাঁদের এই সফরে নেওয়া হয়েছিল। এবং শুধু নেওয়াই নয়, তাঁদের প্রথম একাদশে রেখে টিম ম্যানেজমেন্ট আরও একবার তাঁদের উপর যে আস্থা রয়েছে এখনও, সে কথা বুঝিয়ে দিয়েছিল। প্রশ্ন হল, টিম ম্যানেজমেন্টের ভরসার মান কি তাঁরা রাখতে পারলেন? উত্তরে ‘না’ বলছে ক্রিকেটমহল। ২০২০ সালের ডিসেম্বরে মেলবোর্নে শেষ সেঞ্চুরি পেয়েছিলেন রাহানে। গত ১০টা টেস্ট ম্যাচে রাহানের সর্বোচ্চ রান ৬১। সেটা ২০২১ সালে লর্ডসে। দক্ষিণ আফ্রিকার বিরুদ্ধে সিরিজের প্রথম টেস্টে সেঞ্চুরিয়নে প্রথম ইনিংসে ৪৮ রানের মাথায় আউট হয়ে যান জিঙ্কস। জোহানেসবার্গ টেস্টের দ্বিতীয় ইনিংসে ৫৮ রানের ইনিংস খেলেন তিনি। তবে সিরিজের শেষ টেস্টে ফের রাহানে ব্যর্থ। প্রোটিয়াদের বিরুদ্ধে ৩টে ম্যাচের টেস্টে একটাও সেঞ্চুরি নেই। ৪ ইনিংস মিলিয়ে মোট রান ১৩৬। এই পারফরম্যান্সে ভর করে কি আর থাকা যাবে ভারতীয় দলে?

এ তো গেল রাহানের কথা। ‘পুরানে’-জুটির দ্বিতীয় ক্রিকেটারের অবস্থাও একই রকম। ২০১৯ সালের জানুয়ারিতে সিডনিতে অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে শেষ শতরান করেছিলেন চেতেশ্বর পূজারা। গত ১০ টা টেস্টে পূজারার সর্বোচ্চ রান (৯১) এসেছে ২০২১ সালে লিডসে। দক্ষিণ আফ্রিকার বিরুদ্ধে সিরিজের প্রথম টেস্টে ০ রানে শুরু করেছিলেন। এবং শেষ টেস্টের দ্বিতীয় ইনিংসে তিনি থামেন ৯ রানে। জো’বার্গের দ্বিতীয় ইনিংসে ও কেপ টাউনের প্রথম ইনিংসে পূজারার ব্যাট থেকে এসেছে যথাক্রমে ৫৩ ও ৪৩ রান। শেষ ৪ ইনিংস মিলিয়ে পূজারার মোট রান ১২৪। পূজারারও দশা সেই রাহানের মতোই।

সোশ্যাল মিডিয়াতে এই দুই সিনিয়র ক্রিকেটারকে রীতিমতো ট্রোল করা হচ্ছে। তাঁদের মিম ঘুরছে সকলের মোবাইলে। ‘পুরানে’ জুটির প্রোটিয়া সফরে যা হতশ্রী পারফরম্যান্স, তাতে পরের টেস্টের আগে তাঁদের দলে নেওয়ার ব্যাপারে অবশ্যই বিশেষ আলোচনা হবে টিম ম্যানেজমেন্টের মধ্যে। সমালোচনা তো চলবেই, কিন্তু জবাবটা ব্যাটে দিতে পারলে, তার থেকে সেরা আর কিছু হয় না। যেমনটা করলেন ঋষভ পন্থ। সিরিজের ফলাফল যাই হোক না কেন। জো’বার্গে তাঁর আউট হওয়া নিয়ে যে বিস্তর সমালোচনা চলছিল, কেপ টাউনে সেঞ্চুরি করে, সেই সমালোচনায় জল ঢেলে দিলেন পন্থ। সেই রকম দুটো সেঞ্চুরি যদি পেতেন রাহানে-পূজারা, তা হলে খানিকটা স্বস্তি যেমন তাঁরা পেতেন, টিম ম্যানেজমেন্টও ফের তাঁদের ওপর আস্থা রাখার সাহস পেত। এ বার সত্যিই দেখার এই সিরিজের পর তাঁদের ভাগ্য কোন দিকে মোড় নেয়।

Related News

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla