Star Formation: পূর্বের তুলনায় অনেক দ্রুত গতিতে সৃষ্টি হতে পারে নক্ষত্র, বদলাতে চলেছে বিজ্ঞানীদের আদি ধারণা

নক্ষত্র গঠনের জন্য কত সময় লাগে? এই প্রসঙ্গে বিজ্ঞানীদের দীর্ঘদিনের ধারণা হয়তো এবার পরিবর্তন হতে চলেছে। নতুন পর্যবেক্ষণে প্রকাশ্যে এসেছে নতুন ধারণা।

Star Formation: পূর্বের তুলনায় অনেক দ্রুত গতিতে সৃষ্টি হতে পারে নক্ষত্র, বদলাতে চলেছে বিজ্ঞানীদের আদি ধারণা
Star-forming region S106 (captured by the Hubble Space Telescope)
TV9 Bangla Digital

| Edited By: Sohini chakrabarty

Jan 14, 2022 | 8:27 PM

নক্ষত্র সৃষ্টির সময়কাল নিয়ে (Star Formation) জ্যোতির্বিজ্ঞানীদের মধ্যে একপ্রকার ধারণা রয়েছে দীর্ঘদিন ধরে। তাঁরা মনে করেন সূর্যের মতো বিভিন্ন যে নক্ষত্র মহাকাশে রয়েছে তা তৈরি হয়েছে লক্ষাধিক বছর সময় লেগেছে। তবে সম্প্রতি একটি গবেষণা এবং পর্যবেক্ষণ বলছে অন্য কথা। বিশ্বের সবচেয়ে বড় রেডিয়ো টেলিস্কোপ FAST– এর সাহায্যে সম্প্রতি যে দৃশ্য সামনে এসেছে তার জেরে বদলে যেতে পারে বিজ্ঞানীদের এই সুপ্রাচীন ধারণা। নতুন পরীক্ষা-নিরীক্ষার পর বলা হচ্ছে, বিজ্ঞানীদের ধারণার তুলনায় অনেক তাড়াতাড়ি নক্ষত্রের গঠন সম্ভব। জানা গিয়েছে, বিজ্ঞানীরা একটি মলিকিউলার ক্লাউড বা মেঘের মধ্যে থাকা চৌম্বকীয় ক্ষেত্রে বা ম্যাগনেটিক ফিল্ড পর্যবেক্ষণ করেছেন। এই মলিকিউলার ক্লাউড পৃথিবী থেকে ৪৫০ আলোকবর্ষ দূরে রয়েছে। Taurus constellation বা নক্ষত্রপুঞ্জে অবস্থিত এই মেঘের নাম Lynds 1544। এই বিশেষ মেঘটিকে বেছে নেওয়ার কারণ হল এর মাধ্যমে নক্ষত্র তৈরির সম্ভাবনা রয়েছে। এই মেঘের গভীর অংশের মধ্যে থাকা চৌম্বকীয় ক্ষেত্রকেই প্রথম পর্যবেক্ষণ করেছিলেন জ্যোতির্বিজ্ঞানীরা।

তবে শুধুমাত্র এই মেঘের গভীর অন্তঃস্থলে থাকা চৌম্বক ক্ষেত্র নয়, এর তুলনায় হাল্কা এবং পাতলা স্তর যা মেঘের চারধারের অংশে রয়েছে, সেটাও পর্যবেক্ষণ করা হয়েছে। এক্ষেত্রে সাহায্য নেওয়া হয়েছে Arecibo Observatory- র। পুয়ের্তো রিকোতে ছিল এই অবজারভেটরি। তবে ২০২০ সালে আক্সমিক ভাবেই তা নষ্ট হয়ে যায়। আর তাই ওই নির্দিষ্ট কোর বা কেন্দ্রস্থল এবং আউটার লেয়ার বা বাইরের অংশের মধ্যবর্তী স্থান পর্যবেক্ষণ করা সম্ভব হয়নি ওই অবজারভেটরির সাহায্যে। সেই জন্যই বিশ্বের সবচেয়ে বড় রেডিয়ো টেলিস্কোপ FAST, এই বিশেষ অংশের প্রতি নজর দিয়েছিল। অর্থাৎ হাল্কা-পাতলা অঞ্চল এবং গভীর বা ঘন অঞ্চলের মাঝের এলাকা। পর্যবেক্ষণ এবং গবেষণার পর জানা গিয়েছে, নতুন অবস্থানে চৌম্বক ক্ষেত্র প্রস্তাবিত তাত্ত্বিক মডেলের থেকে ১৩ গুণ কম।

জ্যোতির্বিজ্ঞানীরা মনে করছেন, এই নতুন তথ্য নক্ষত্র গঠন প্রসঙ্গে এ যাবৎ যত মডেল প্রকাশ হয়েছে সেই ক্ষেত্রে একটি যুগান্তকারী বিপ্লব আনতে পারে। তবে সেক্ষেত্রে অন্যান্য নক্ষত্র গঠনকারী মেঘও পর্যবেক্ষণ করে খতিয়ে দেখতে হবে। যদি সব ক্ষেত্রে পরীক্ষা-নিরীক্ষার ফলাফল সমান হয়, তাহলেই বোঝা যাবে যে বিজ্ঞানীরা এতদিন যা ভাবতেন অর্থাৎ নক্ষত্র সৃষ্টির ক্ষেত্রে যত দীর্ঘ সময় লাগত বলে তাঁরা ভাবতেন, আদপেও বিষয়টা তাই নয়। বরং সেই সময়ের অনেক আগেই নক্ষত্রের সৃষ্টি এবং গঠন প্রক্রিয়া সম্পন্ন হওয়া সম্ভব। প্রসঙ্গত উল্লেখ্য। যে FAST টেলিস্কোপের সাহায্যে মেঘের পর্যবেক্ষণ করা হয়েছে তা চিনে অবস্থিত এবং Arecibo অবজারভেটরির থেকে অনেক বড়। FAST টেলিস্কোপে রয়েছে ৫০০ মিটার ব্যাসের ডিশ। এই পরিমাণ Arecibo- এর ক্ষেত্রে ৩০৫ মিটার। পাঁচ দশক ধরে, ২০১৬ সাল পর্যন্ত Arecibo বিশ্বের সবচেয়ে বড় রেডিয়ো টেলিস্কোপ ছিল। পরে Arecibo নষ্ট হওয়ার পর সেই জায়গা গ্রহণ করেছে FAST টেলিস্কোপ।

আরও পড়ুন- Sea Dragon Fossil: দৈত্যাকার ‘সি ড্রাগন’- এর জীবাশ্ম উদ্ধার যুক্তরাজ্যে! দৈর্ঘ্যে প্রায় ১০ মিটার এই Ichthyosaurs

Follow us on

Most Read Stories

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla