Bhangar COVID Situation: কোনও মতেই সম্ভব হচ্ছে না সংক্রমণ রোখা, ভাঙড়ে ২ দিন বাজার বন্ধের সিদ্ধান্ত

Bhanghat COVID Situation: তাই সংক্রমণ চেন ভাঙতে এবার বাজার বন্ধের সির্দ্ধান্ত নিল প্রশাসন।ভাঙড় ১ ও ২ ব্লক দুটিতেই সপ্তাহে কোন বাজার একদিন আবার কোন বাজার দুদিন করে বন্ধ রাখার সির্দ্ধান্ত নিয়েছে ব্লক প্রশাসন।

Bhangar COVID Situation: কোনও মতেই সম্ভব হচ্ছে না সংক্রমণ রোখা, ভাঙড়ে ২ দিন বাজার বন্ধের সিদ্ধান্ত
বারুইপুরে দোকান বন্ধের সিদ্ধান্ত (ফাইল ছবি)

ভাঙড়: মাস্ক, স্যানিটাইজার বিতরণ রয়েছে, তা ব্যবহার করা হচ্ছে কিনা, তা নজর রাখা হয়েছে। নজর রয়েছে অরক্ষিত মুখগুলির ওপর।  বিনা মাস্কে জরিমানাও হয়েছে। কিন্তু তাতেও কমানো যায়নি সংক্রমণ। রোখা সম্ভব হয়নি সংক্রমণের ঊর্ধ্বগতি। তাই সংক্রমণ চেন ভাঙতে এবার বাজার বন্ধের সির্দ্ধান্ত নিল প্রশাসন।ভাঙড় ১ ও ২ ব্লক দুটিতেই সপ্তাহে কোনও বাজার একদিন, আবার কোন বাজার দু’দিন করে বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত  নিয়েছে ব্লক প্রশাসন। স্থানীয় থানার ও জন প্রতিনিধিদের সঙ্গে বৈঠক করে এই সির্দ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে বলে জানা গিয়েছে।

ভাঙড় ১ ব্লক প্রশাসন সূত্রে জানা গিয়েছে, এই মুহূর্তে ভাঙড় ১ ব্লক এলাকায় করোনা আক্রান্ত অ্যাক্টিভ রোগীর সংখ্যা ৫৭ জন। গত এক সপ্তাহ আগে সেই সংখ্যাটা সে ছিল ১০ জন। আবার ভাঙড় ২ ব্লকে সংক্রমিত প্রায় ৭৬ জন বাসিন্দা। সব মিলিয়ে দুটি ব্লকের ১০টি গ্রাম পঞ্চায়েত এলাকায় মোট সংক্রমণ সেঞ্চুরি হাঁকিয়েছে।

এমনিতেই ভাঙড় ১ ও ২ ব্লকের বিভিন্ন এলাকা কলকাতা ও নিউটাউন লাগোয়া। তাছাড়া বানতলা চর্মনগরী ব্লক এলাকায় গড়ে ওঠার ফলে শহর ও শহরতলি ছাড়াও বিভিন্ন এলাকা থেকে হাজার হাজার মানুষ এখানে কাজে আসেন। যে কারণে ব্লক এলাকায় দ্রুত সংক্রমণ ছড়িয়ে পড়ছে। পরিস্থিতি মোকাবিলায় তাই জেলা প্রশাসনের নির্দেশে ভাঙড় ১ ব্লকের বিভিন্ন বাজার, হাট প্রতি সপ্তাহে বৃহস্পতিবার ও শুক্রবার বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

অন্যদিকে, ভাঙড় ২ ব্লকের সাতুলিয়া ও পোলেরহাট বাজার প্রতি সোমবার, শোনপুর, গাবতলা, নতুনহাট বাজার, চিনিপুকুর বাজার প্রতি মঙ্গলবার বন্ধ রাখা হবে। পাশাপাশি পাকাপোল বাজার, বিজয়গঞ্জ বাজার, পীরনগর বাজার ও বেলেদানা বাজার প্রতি বৃহপ্সতিবার বন্ধ থাকার সির্দ্ধান্ত নিয়েছে প্রশাসন। প্রশাসনের পরবর্তী নির্দেশ না আসা পর্যন্ত এই সিদ্ধান্ত বলবৎ থাকবে।

প্রশাসন সূত্রে আরও জানানো হয়েছে, যদি এই সিদ্ধান্ত অমান্য করে কেউ যদি দোকান, বাজার খোলা রাখার চেষ্টা করেন, তাঁর বিরুদ্ধে ২০০৫ সালের বিপর্যয় মোকাবিলা আইন ও ভারতীয় দণ্ডবিধি অনুযায়ী আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে। এ বিষয়ে ভাঙড় ১ ব্লকের বিডিও দীপ্যমান মজুমদার বলেন, “হঠাৎ করে ব্লক এলাকায় করোনা সংক্রমণ বেশ কিছুটা বেড়ে গিয়েছে। সেই কারণে পরিস্থিতির মোকাবিলায় এবং চেন ভাঙার জন্য সপ্তাহে দুই দিন বাজার বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।”

অন্যদিকে, বাজার এলাকায় মাস্কের ব্যবহার ১০০ শতাংশ নিশ্চিত করতে শুক্রবার পোলেরহাট বাজার ব্যবসায়ী সমিতির পক্ষ থেকে উদ্যোগ নেওয়া হয়। এদিন পোলেরহাট বাজার ঘুরে ক্রেতা বিক্রেতা উভয়কে মাস্ক পরার জন্য বলেন ভাঙড় ২ পঞ্চায়েত সমিতির সভাপতি বিশ্বজিৎ মণ্ডল, সহ সভাপতি আরাবুল ইসলাম প্রমুখ।

আরও পড়ুন: ভোট পিছিয়ে দিলে আপত্তি নেই, কমিশনকে চিঠি দিয়ে জানাল রাজ্য

Published On - 9:52 am, Sat, 15 January 22

Related News

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla