Boycott: নেটিজেনদের রোষানলে সিনেমা ‘বয়কট’, এরপর কী? আসছে নতুন বাংলা ছবি

Bengali Movie: যে মানুষগুলোর রক্ত জল করা পরিশ্রম জড়িয়ে, যে মানুষগুলো সিনেমাহলে বাদাম বেচেন, যে টেকনিশিয়ান অক্লান্ত পরিশ্রম করেন... তাদের কী হবে!

Boycott: নেটিজেনদের রোষানলে সিনেমা 'বয়কট', এরপর কী? আসছে নতুন বাংলা ছবি
TV9 Bangla Digital

| Edited By: বিহঙ্গী বিশ্বাস

Sep 24, 2022 | 8:32 PM

সম্প্রতি বলিউডে বয়কট ট্রেন্ডের ছবি ভীষণভাবে বর্তমান। কখনও সামনে আসতে দেখা যায় ছবি ঘিরে নানা বিতর্ক, কখনও আবার অভিনেতা অভিনেত্রীকে টার্গেট করে সোশ্যাল মিডিয়ায় বয়কটের ঝড়। অবসরে ইন্টারনেট ঘেঁটে একটি ছবিকে বয়কট করার পিছনে সময় লাগে মাত্র কয়েকসেকেন্ড। তা মুহূর্তে হয়ে যায় ট্রেন্ড, আর বর্তমান যুগে ট্রেন্ডে গা ভাসাতে কেই বা না চায়! ফলে যেকোনও ছবিই খুব সহজে এখন বয়কটের শিকার। তবে বয়কট তো হল, তারপরের কাহিনির খোঁজটা কে রাখে! এক ক্লিকে একটি ছবির ব্যবসায় কোপ বসানোটা সহজ। কিন্তু সেই ছবির সঙ্গে জড়িয়ে থাকা হাজার হাজার মানুষের অন্ন-বস্ত্রে টান! সে কথা কি কেউ ভেবে দেখেন!

সম্প্রতি ছবি বানাতে গিয়ে ঠিক এমনই প্রশ্নের মুখোমুখি হলেন পরিচালক সব্যসাচী হালদার। ছবির বিষয় যাই হোক বয়কটটা খুব সাধারণ বিষয়। ফলে তিনি এবার সেই বয়কটকেই হাতিয়ার করলেন প্রতিবাদের ভাষা হিসেবে। না এবার কোনও ছবি বয়কট নয়, খোদ ছবিটাই হতে চলেছে বয়কটকে নিয়ে। আসছে নতুন বাংলা ছবি। মুক্তি পেল তারই পোস্টার। যে মানুষগুলোর খবর নেটিজ়েনরা রাখেন না, ছবি বয়কট করার পর তাঁদের পরিবারের কী সমস্যা ভেবে দেখেন না, এবার সেই বয়কটের পরবর্তী গল্পটাই পর্দায় আনতে চলেছেন পরিচালক সব্যসাচী হালদার।

গল্পের কেন্দ্রে এক স্টারকিড, যিনি নেপোটিজ়মের শিকার হয়ে ছবি বানাতে পারছেন না। বাবার টাকায় ছবি তৈরি হলেও তা বয়কটের মুখে পড়ে। শুরু হয় সেখান থেকেই তার লড়াই। তার বাবার প্রচুর টাকা, ছবি বয়কট হলে খুব একটা কিছু সমস্যা হবে না, অথচ যে মানুষগুলোর রক্ত জল করা পরিশ্রম জড়িয়ে, যে মানুষগুলো সিনেমাহলে বাদাম বেচেন, যে টেকনিশিয়ান অক্লান্ত পরিশ্রম করেন… তাদের কী হবে! ভাবিয়ে তোলে গল্পের কেন্দ্রিয় চরিত্রকে। এই ছকেই বাঁধা গল্প। সে কী পারবে পরিস্থিতির সঙ্গে লড়াই করে ছবিকে মুক্তি করাতে! এমনই ছকে বাঁধা বয়কট সিনেমার গল্প।

পরিচালকের কথায়, ‘বর্তমানে বয়কট করাটা খুব সহজ বিষয় হয়ে গিয়েছে। মানুষকে ভাবতে হবে, এক ক্লিকে বয়কট করার ফল কত মানুষের রাতের ঘুম চলে যাওয়া। একটা ছবির সঙ্গে কত মানুষের জীবিকা জড়িয়ে। আমি আমার ছবির মাধ্যে মানুষের মনে সেই ভাবনাটুকু জাগাতে চাই মাত্র’। পরিচালক এর আগে ওটিটি প্ল্যাটফর্ম ক্লিক-এ যুগসূত্র, দ্য ফ্রুট অব ইভেল করেছেন। তবে বড় পর্দায় এই প্রথম কাজ। ফলে ছবি ঘিরে আশাবাদী তিনি। তাঁর ছবি দর্শকদের কাছে একগুরুত্বপূর্ণ তথ্য পৌঁছে দেবে বলেই বিশ্বাস সব্যসাচী হালদারের।

Follow us on

Most Read Stories

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla