‘…ভদ্র লোকজন দরকার সব পার্টিতেই’, বুদ্ধদেব ভট্টাচার্যের ভূয়সী প্রশংসায় বিজেপি নেত্রী রূপাঞ্জনা

ফেসবুকে একটি পোস্ট শেয়ার করেছেন জিতু। বুদ্ধদেব ভট্টাচার্যের প্রসঙ্গ উল্লেখ করে তিনি লিখেছেন, "মাথায় রাখবেন,এখনও আমার এবং আমাদের এবং আপামর পশ্চিমবাংলার অভিভাবক জীবিত.. তাই আমরা নির্ভীক, আমরা উদ্যোমী, আমরা আমাদের লক্ষ্যে অবিচল ...আর পিতৃতুল্য অভিভাবকের কথা শুনতে আমরা বদ্ধপরিকর.."।

  • TV9 Bangla
  • Published On - 14:24 PM, 8 Apr 2021
'...ভদ্র লোকজন দরকার সব পার্টিতেই', বুদ্ধদেব ভট্টাচার্যের ভূয়সী প্রশংসায় বিজেপি নেত্রী রূপাঞ্জনা
প্রশংসায় বিজেপি নেত্রী রূপাঞ্জনা

প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী বুদ্ধদেব ভট্টাচার্যের ভূয়সী প্রশংসায় বিজেপি নেত্রী তথা অভিনেত্রী রূপাঞ্জনা মিত্র। বাম সমর্থিত অভিনেতা জিতু কামালের পোস্টে প্রকাশ্যেই শেয়ার করলেন মনের ভাব। তাঁর কথায়, বুদ্ধদেব ভট্টাচার্যের মতো শিক্ষিত লোক দরকার সব পার্টিতেই ।

ফেসবুকে একটি পোস্ট শেয়ার করেছেন জিতু। বুদ্ধদেব ভট্টাচার্যের প্রসঙ্গ উল্লেখ করে তিনি লিখেছেন, “মাথায় রাখবেন,এখনও আমার এবং আমাদের এবং আপামর পশ্চিমবাংলার অভিভাবক জীবিত.. তাই আমরা নির্ভীক, আমরা উদ্যোমী, আমরা আমাদের লক্ষ্যে অবিচল …আর পিতৃতুল্য অভিভাবকের কথা শুনতে আমরা বদ্ধপরিকর..”। তিনি আরও যোগ করেন, “স্যার বুদ্ধদেব ভট্টাচার্য, আপনিই আমার সব.. আপনিই আমার শুরু,আপনিই আমার শেষ।” বিরোধী দলের নেত্রী হয়েও ওই পোস্টের কমেন্টে রূপাঞ্জনা লেখেন, “প্রত্যেকটি পার্টিতেই ওঁর মতো নেতা আমাদের প্রয়োজন। উনি সৎ। একটু ভদ্রলোকজন দরকার সব পার্টিতেই”। উত্তর দিয়েছেন জিতুও। তিনি লেখেন, “সেই জন্যই তো তাঁর পদাঙ্ক অনুসরণ করছি আমরা।”

প্রসঙ্গত, দিন কয়েক আগে বিজেপির রাজ সভপতির বিতর্কিত ‘রগড়ানো’ মন্তব্য নিয়ে মুখ খুলেছিলেন রূপাঞ্জনা। তিনি ফেসবুকে লেখেন, আজ শিল্পী হয়ে নিজেকে খুব ছোট মনে হচ্ছে। রং মাখি বলে আমাদের এভাবে অপমান করা হবে? ‘রগড়ে’ দেওয়া হবে আমাদের পরিশ্রম। আমাদের নিজেদের কাজের প্রতি সততা নিষ্ঠাকে অসম্মান করা হবে? না ন্যাকামি করছি না। আমার বিজেপি কর্মী-শিল্পীদেরও বলছি, কাপুরুষ হবেন না। সবকিছুর সীমা রয়েছে! আমি এইরকম অসম্মানজনক আচরণকে সমর্থন করি না।’

অন্যদিকে জিতুও এর আগেও বহুবার দলবদলের রাজনীতি, আর রংবদলের খেলার মধ্যেই সোশ্যাল মিডিয়ায় বুদ্ধদেব ভট্টাচার্যের প্রতি তাঁর ভালবাসার কথা জানিয়ে একটি পোস্ট করেছেন। একটি পোস্টে তিনি লিখেছিলেন, “আপনাকে ভালোবাসি স্যার.. আপনি বাম রাজনীতি করেন শুধু তাই জন্যে নয়.. আপনি সততার, সত্যের, নিষ্ঠার আরেক নাম..আপনি “বুদ্ধদেব ভট্টাচার্য”। এখানেই থামেননি অভিনেতা। তিনি আরও লিখেছিলেন, “এই পোস্টের জন্যেও, আমার কাজের ক্ষতি হবে, সংসার চালাতে ব্যাঘাত ঘটানো হবে, প্রচুর কমপ্লেইন পড়বে, তবুও আমি রাজনীতির উর্দ্ধে গিয়ে সত্যের কথা বলবোই, বাকি দুবেলা পেট নাহয় ঈশ্বরই চালিয়ে দেবেন, যদি সত্যের পথে থাকতে পারি।” ওই পোস্টের পর তাঁর ব্যক্তিগত জীবনে আদপে কোনও প্রভাব পড়েছে কিনা তা জানা না গেলেও জিতুর ফেসবুক প্রোফাইল এখন ‘লালে লাল’।