UP Assembly elections: বিজেপির ১০০ বিধায়ক বিধানসভায় যোগীর বিরুদ্ধে ধর্ণা দেবে! কেন এমন বললেন অখিলেশ?

UP Assembly Election, বিজেপির বিরুদ্ধে চড়া সুরে অখিলেশ বলেন, কোনও কাজ না করেই সরকার রোজ মিথ্যা দাবি করেই চলেছে। যে ডবল ইঞ্জিন সরকারের (Double Engine Govt.) প্রতিশ্রুতি বিজেপি দিয়েছিল, সেই ডবল ইঞ্জিনের কারণেই সমাজের প্রতিটি অংশ হয়রানির মুখে পড়েছে।

UP Assembly elections: বিজেপির ১০০ বিধায়ক বিধানসভায় যোগীর বিরুদ্ধে ধর্ণা দেবে! কেন এমন বললেন অখিলেশ?
মুখ খুললেন সপা প্রধান অখিলেশ যাদব (ফাইল ছবি)

লখনউ: আগামী বছরেই শুরুতেই দেশের সব থেকে বৃহত্তম রাজ্য উত্তর প্রদেশে (Uttar Pradesh) বিধানসভা নির্বাচন। তার আগেই বিতর্ক দিলেন উস্কে উত্তর প্রদেশের প্রধান বিরোধী দল সমাজবাদী পার্টির (Samajbadi Party) নেতা অখিলেশ যাদব (Akhilesh Yadav)। সম্প্রতি এক রিপোর্টে প্রকাশিত হয়েছে, আগামী বিধানসভা নির্বাচনে বিজেপির (BJP) ১০০- র বেশি বিধায়ককে ভোটে লড়ার টিকিট দেওয়া হবে না। এমন সিদ্ধান্ত নিয়েছে দল। এই রিপোর্ট সামনে আসার পড়েই খানিক বিদ্রুপের সুরে অখিলেশ জানিয়েছেন, বাস্তব যদি এমনটাই হয় তবে ১০০ বিধায়ক বিধানসভায় মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথের (Yogi Adityanath) বিরুদ্ধে ধর্ণায় বসবে।

আজ, সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়ে উত্তর প্রদেশের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী বলেন, “শোনা যাচ্ছে ১৫০ জন বিধায়ককে টিকিট দেবেনা বিজেপি। আমাদের বিধায়ক সংখ্যা এখন ৫০। অঙ্কটা খুব সহজ, নির্বাচনে আমরা ৩০০ টি আসনে জিতছি।” অখিলেশের এদিনের সাংবাদিক বৈঠকের ছত্রে ছত্রে ছিল কেন্দ্রীয় সরকারের প্রতি তীব্র আক্রমণ। ভারতের অর্থনীতি প্রসঙ্গে তিনি বলেন ” উত্তর প্রদেশ সরকার দাবি করে তারা রাজ্যের অর্থনীতিকে এক ট্রিলিয়নে নিয়ে যাবে, কিন্তু আদতে আন্তর্জাতিক ক্ষুধা সূচকে আমাদের দেশ পাকিস্তান, বাংলাদেশ ও নেপালেরও পরে। অপুষ্টিজনিত রোগে ভোগা শিশুর সংখ্যা উত্তর প্রদেশে সর্বাধিক। পরিসংখ্যান থেকেই পরিষ্কার সরকার ভুল দিশায় চলছে।”

তিনি ও তাঁর দল যে জাতি গণনার পক্ষে এদিন তা স্পষ্ট করে দেন অখিলেশ। তিনি জানিয়েছেন, কেন্দ্রে যখন কংগ্রেস নেতৃত্বাধীন ইউপিএ সরকার ছিল, তখন মুলায়ম সিং (Mulayam Singh), লালু প্রসাদ যাদব (Lalu Yadav) সহ দক্ষিণ ভারতের বিশিষ্ট নেতারা জাতি গণনার দাবি জানিয়েছিলেন, কিন্তু তখন সেটা সম্ভব হয়নি। শনিবার, তিনি বলেছিলেন উত্তর প্রদেশের বিজেপি সরকারের পাঁচ বছরের মেয়াদ “ব্যর্থতায় পরিপূর্ণ” এবং অভিযোগ করেছেন যে শাসক দলের “ভুল নীতির” কারণে, রাজ্যে মুদ্রাস্ফীতি এবং বেকারত্বের হার দিনদিন বাড়ছে এবং সেই কারণে রাজ্য ক্রমশ পিছিয়ে পড়েছে।

বিজেপির বিরুদ্ধে চড়া সুরে অখিলেশ বলেন, কোনও কাজ না করেই সরকার রোজ মিথ্যা দাবি করেই চলেছে। যে ডবল ইঞ্জিন সরকারের (Double Engine Govt.) প্রতিশ্রুতি বিজেপি দিয়েছিল, সেই ডবল ইঞ্জিনের কারণেই সমাজের প্রতিটি অংশ হয়রানির মুখে পড়েছে। সরকার কিছু না করে সমাজবাদী পার্টির করে যাওয়া কাজে কৃতিত্ব নিতেই ব্যস্ত।

২০২২ সালের বিধানসভা নির্বাচনের (UP Assembly elections 2022) কথা বলতে গিয়ে তিনি বলেন, গণতন্ত্রের বাঁচিয়ে রাখার জন্য পরীক্ষার দেওয়ার সময় এগিয়ে আসছে। এই নির্বাচনে সমাজবাদী পার্টির জয় জাতীয় রাজনীতির দিক নির্ধারণ করবে। যদিও আগে বেশ কয়েকবার ৪০০ আসন পাওয়ার দাবি করলেও শেষমেশ অখিলেশের দাবি মেলেনি। আগামী দিনে গোবলয়ের সব থেকে চর্চিত রাজ্যে রাজনৈতিক ভবিষ্যৎ কোন দিকে মোড় নেয় সেদিকেই তাকিয়ে সকলে।

আরও পড়ুন COVID19 Vaccine: খুব দ্রুত শিশুদের কোভিড-ভ্যাকসিন দেওয়া হবে! তার আগে কী কী করা জরুরি, তা স্পষ্ট জেনে নিন…

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla