Jammu and Kashmir: গত সন্ধে থেকে গুলির লড়াই, পুঞ্চে জঙ্গিদের সঙ্গে সংঘর্ষে শহিদ সেনা আধিকারিক ও জওয়ান

Army Personnel Killed in Action: গতকাল সন্ধে থেকে চলা লাগাতার গুলির লড়াই এক সেনা আধিকারিক ও এক জওয়ান শহিদ হয়েছেন।

Jammu and Kashmir: গত সন্ধে থেকে গুলির লড়াই, পুঞ্চে জঙ্গিদের সঙ্গে সংঘর্ষে শহিদ সেনা আধিকারিক ও জওয়ান
আতঙ্ক বাড়ছে উপত্যকায়। ফাইল ছবি

শ্রীনগর : বিগত কিছুদিন ধরেই উত্তেজনার পরিস্থিতি অব্যাহত উপত্যকায়। একের পর এক অভিযান, তল্লাশি লেগেই রয়েছে কাশ্মীরে। বৃহস্পতিবার সন্ধে থেকেই ভারতীয় সেনার সঙ্গে জঙ্গিদের গুলির লড়াই শুরু হয় পুঞ্চ সেক্টরে। গতকাল সন্ধে থেকে চলা লাগাতার গুলির লড়াই এক সেনা আধিকারিক ও এক জওয়ান শহিদ হয়েছেন। পুঞ্চের রাজৌরি জঙ্গলে জঙ্গিদের সঙ্গে সংঘর্ষ শুরু হয়েছিল সেনার । উল্লেখ্য, চারদিন আগে এই একই এলাকায় পাঁচ সেনাকর্মী শহিদ হয়েছিলেন গুলির লড়াইয়ে।

সূত্রের খবর, বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় তল্লাশি অভিযান চলছিল। পুঞ্চের মেন্ধর জেলার নার খাস জঙ্গলের কাছে সেনার সঙ্গে গুলির লড়াই শুরু হয়। সেই সময় এক আধিকারিক-সহ মোট দু’জন গুরুতর জখম হন। গত চারদিন ধরে ওই জঙ্গিদের খোঁজে তল্লাশি চলছিল। একদিকে পাহাড়ি এলাকা, অন্যদিকে ঘন জঙ্গল। প্রকৃতির এই সৃষ্টির সুবিধা নিয়েই পালিয়ে বেড়াচ্ছিল জঙ্গির দল। যদিও এদিন আর নিজেদের লুকিয়ে রাখতে পারেনি। ভারতীয় সেনার সামনে পড়তেই হয় তাদের

গত ১০ অক্টোবর নিরাপত্তা বাহিনীর উপর গুলি চালায় যে জঙ্গি গোষ্ঠী, এদিনও তাদের সঙ্গেই গুলির লড়াই চলে। ১০ তারিখের গুলির লড়াইয়ে একজন সেনা আধিকারিক-সহ চারজন জওয়ান শহিদ হন। ওই ঘটনাটিও ঘটেছিল এই একই জায়গায়।

বিগত এক সপ্তাহ ধরেই আতঙ্কে রয়েছেন উপত্যকাবাসী। ৫ দিনেই হত্যা করা হয়েছে ৭ জন সাধারণ নাগরিককে। এদের মধ্যে অধিকাংশই আবার হিন্দু বা শিখ। এক কাশ্মীরী পণ্ডিতকে দোকানে ঢুকে গুলি করে খুনের ঘটনার পরই উপত্যকা ছাড়তে শুরু করেছে একাধিক কাশ্মীরী পণ্ডিত পরিবার।

সম্প্রতি অনন্তনাগ জেলাতেও গুলির লড়াই চলে। নিরাপত্তা বাহিনী অনন্তনাগের খাগুন্দ ভেরিনাগ অঞ্চলে পৌঁছতেই, তাদের উপর গুলি চালায় লুকিয়ে থাকা জঙ্গিরা। এরপরই শুরু হয় এনকাউন্টার অভিযান। গুলির লড়াইয়ে এক জঙ্গি নিকেশও হয়। এদিকে, জঙ্গিদের গুলিতে আহত হন এক পুলিশকর্মী। তাঁকে চিকিৎসার জন্য স্থানীয় হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়।

অন্যদিকে সম্প্রতি বান্দিপোরার হাজিন এলাকায় গুন্দজাহাঙ্গির এলাকায় তল্লাশি অভিযান চালায় পুলিশ ও নিরাপত্তা বাহিনী। গুলির লড়াইয়ে লস্করের প্রতিরোধ বাহিনীর এক সদস্যকে নিকেশ করা হয়।

উল্লেখ্য, ১২ অক্টোবর গোপন সূত্রে জঙ্গি উপস্থিতির খবর মিলতেই সোপিয়ানে হাজির হয়েছিলেন পুলিশ ও নিরাপত্তা রক্ষী বাহিনীর জওয়ানরা। তল্লাশি অভিযান শুরু হওয়ার কিছুক্ষণের মধ্যেই শুরু হয় গুলির লড়াই। যে তিনজন জঙ্গিকে নিকেশ করা হয়েছে, তারা লস্কর গোষ্ঠীর প্রতিরোধ বাহিনীর সদস্য। তবে তাদের নাম পরিচয় এখনও জানা যায়নি। এনকাউন্টার শুরুর পরই গোটা অঞ্চল ঘিরে ফেলা হয়েছে। এখনও তল্লাশি অভিযান চলছে বলেই জানা গিয়েছে। নিহত জঙ্গিদের কাছ থেকে বেশ কিছু অস্ত্র উদ্ধার হয়েছে বলেই জানা গিয়েছে।

আরও পড়ুন : J&K Encounter: সপ্তাহের দ্বিতীয় দিনও উপত্যকাবাসীর ঘুম ভাঙল গুলির শব্দে, এনকাউন্টারে খতম ৩ লস্কর জঙ্গি

Read Full Article

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla