‘অত্যন্ত কম’, ন্যূনতম সহায়ক মূল্য বৃদ্ধিতে ক্ষোভ কৃষক নেতাদের

কৃষক নেতাদের অভিযোগ, বিগত কয়েক মাসে যেভাবে অন্যান্য পণ্যের দাম বেড়েছে, সেই মতো বাড়েনি ন্যূনতম সহায়ক মূল্য।

‘অত্যন্ত কম’, ন্যূনতম সহায়ক মূল্য বৃদ্ধিতে ক্ষোভ কৃষক নেতাদের
ফাইল চিত্র

নয়া দিল্লি: খারিফ শস্যে ন্যূনতম সহায়ক মূল্য (MSP) বৃদ্ধি করেছে কেন্দ্র। কৃষক নেতাদের দাবি, এই ন্যূনতম সহায়ক মূল্য বৃদ্ধি অত্যন্ত দেরিতে হয়েছে এবং তা অত্যন্ত কম। বুধবার খারিফ শস্য গমের এমএসপি প্রতি কুইন্টালে ৭২ টাকা বাড়িয়েছে কেন্দ্র। অর্থাৎ ২০২১-২২ অর্থভর্ষে গমের এমএসপি হবে কুইন্টাল প্রতি ১৯৪০ টাকা। কিন্তু এই ন্যূনতম দাম বৃদ্ধিতে না-খুশ কৃষক নেতারা।

কৃষক নেতাদের অভিযোগ, বিগত কয়েক মাসে যেভাবে অন্যান্য পণ্যের দাম বেড়েছে, সেই মতো বাড়েনি ন্যূনতম সহায়ক মূল্য। ভারতীয় কিষাণ ইউনিয়ন নেতা জগমোহন সিংয়ের অভিযোগ, ধানের এমএসপি বেড়েছে মাত্র ৩.৮ শতাংশ। তাঁদের অভিযোগ, এমএস স্বামীনাথন কমিশন এবং রমেশ চাঁদ কমিটির সিদ্ধান্ত মতো এমএসপি বৃদ্ধি হয়নি।

কৃষক নেতাদের দাবি, সরকার যদি খারিফ শস্য কিনে নেয়, তাহলে এই এমএসপি কৃষকদের ক্ষেত্রে গুরুত্ব পাবে। ভারতীয় কিষাণ ইউনিয়নের নেতা সুখদেব সিংয়ের দাবি, ডিজেল বা রাসায়নিকের যে হারে দাম বেড়েছে সেই হারে ন্যূনতম সহায়ক মূল্য বাড়েনি। সহায়ক মূল্য বৃদ্ধির পর সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়ে কৃষিমন্ত্রী নরেন্দ্র সিং তোমার জানিয়েছেন, এমএসপি যথা সময়ে বাড়ানো হচ্ছে এবং আগামিদিনেও বাড়ানো হবে। গত বছর গমে এমএসপি ছিল কুইন্টাল প্রতি ১৮৬৮ টাকা। সেটাই এ বার বাড়িয়ে করা হল ১৯৪০ টাকা।

এই এমএসপি বৃদ্ধিতে না-খুশ কৃষকরা। উল্লেখ্য, লাগাতার কয়েক মাস ধরে চলতে থাকা কৃষক আন্দোলনে অন্যতম বড় ইস্যু এমএসপি বৃদ্ধি। তার মধ্যে কৃষকদের সহায়ক মূল্য বৃদ্ধি করে বড় বার্তা দিলেন প্রধানমন্ত্রী। এমনটাই মনে করছে রাজনৈতিক মহল।

আরও পড়ুন: কোভিশিল্ডের প্রায় দ্বিগুণ দাম কোভ্যাক্সিনের, কেন এই বৈষম্য?