Pluto: ধীরে ধীরে বিলীন হয়ে যাচ্ছে প্লুটোর বায়ুমণ্ডল, কারণ জানালেন বিজ্ঞানীরা

সাউথ-ওয়েস্ট রিসার্চ ইন্সটিটিউটের (SwRI) বৈজ্ঞানিকরা এই গবেষণা শুরু করেছিলেন।

Pluto: ধীরে ধীরে বিলীন হয়ে যাচ্ছে প্লুটোর বায়ুমণ্ডল, কারণ জানালেন বিজ্ঞানীরা
প্লুটোর বায়ুমণ্ডল ক্রমশ বিলীন হচ্ছে।

গ্রহ হিসেবে বহু বছর আগেই মর্যাদা হারিয়েছে প্লুটো। এবার এক নতুন সমস্যা দেখা দিয়েছে সেখানে। সাম্প্রতিক গবেষণা বলছে বিলীন হয়ে যাচ্ছে প্লুটোর বায়ুমণ্ডল। পৃথিবী থেকে ৪.৮ বিলিয়ন কিলোমিটার দূরে রয়েছে এই icy dwarf celestial body। জানা গিয়েছে, সূর্য থেকেও ক্রমাগত দূরে সরে যাচ্ছে প্লুটোর অবস্থান। বর্তমানে বিজ্ঞানীরা পর্যবেক্ষণ করেছেন যে প্লুটোর বায়ুমণ্ডল রূপান্তরিত হচ্ছে। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র এবং মেক্সিকোর একাধিক স্থান থেকে টেলস্কোপ ব্যবহার করে প্লুটোকে পর্যবেক্ষণ করেছেন বিজ্ঞানীরা। এর মাধ্যমে প্লুটোর অত্যন্ত পাতলা বায়ুমণ্ডল ভালভাবে খতিয়ে দেখেছেন তাঁরা। প্রাথমিক ভাবে জানা গিয়েছে, প্লুটোর বায়ুমণ্ডল মূলত নাইট্রোজেন সমৃদ্ধ।

সাউথ-ওয়েস্ট রিসার্চ ইন্সটিটিউটের (SwRI) বৈজ্ঞানিকরা এই গবেষণা শুরু করেছিলেন। ২০১৮ সালে একটি নক্ষত্রপথের সামনে দিয়ে ধাবমান হয়েছিল প্লুটো। আর তারপর থেকে এই প্লুটো নিয়ে চর্চা শুরু করেছেন SwRI- এর বিজ্ঞানীরা। তাঁরা জানিয়েছেন, যবে থেকে সূর্য আর প্লুটোর মধ্যে ব্যবধান বাড়ছে, অর্থাৎ প্লুটো সূর্য থেকে দূরে সরে যাচ্ছে, তখন থেকেই প্লুটোর বায়ুমণ্ডল তার পৃষ্ঠদেশের কাছাকাছি ফিরে আসছে এবং শীতল অবস্থায় রয়েছে ওই বায়ুমণ্ডল। গবেষণা অনুযায়ী ক্রমশ শীতল হচ্ছে প্লুটো। বিজ্ঞানীরা জানিয়েছেন, প্লুটোর বায়ুমণ্ডলের চাপ এবং ঘনত্ব (অ্যাটমোস্ফেরিক ডেনসিটি) ক্রমশ বাড়ছে। এর পিছনে রয়েছে এমন একটি ঘটনা যাকে বলা হচ্ছে থার্মাল ইনারশিয়া বা তাপীয় জড়তা। তাছাড়া সূর্য থেকে প্লুটোর দূরত্ব যত বাড়ছে ততই প্লুটোর মধ্যে সূর্যালোকের প্রবেশ কমছে।

প্লুটোর বায়ুমণ্ডলের বর্তমান অবস্থা দেখে বিজ্ঞানীরা মনে করছেন যে প্লুটোর পৃষ্ঠদেশের নীচে থাকা নাইট্রোজেন আইস রিজার্ভার সাধারণত পৃষ্ঠদেশের তলায় থাকা তাপমাত্রার প্রভাবেই উষ্ণ থাকত। তবে নতুন তথ্য বলছে যে এই নাইট্রোজেনের ভাণ্ডার ক্রমশ শীতল হতে চলেছে। SwRI- এর স্টাফ সায়েন্টিস্ট ডক্টর লেসলি ইয়ং একথা জানিয়েছেন। পৃথিবীর মতোই প্লুটোর বায়ুমণ্ডলও তার পৃষ্ঠদেশে সঞ্চিত বরফের বাষ্প চাপের দ্বারা সমর্থিত। এর অর্থ হল সারফেস আইস টেম্পারেচারে সামান্যতম পরিবর্তনও বায়ুমণ্ডলের ঘনত্বে বড়সড় প্রভাব ফেলতে পারে। উল্লেখ্য, সূর্যের চারদিকে কক্ষপথে একবার প্রদক্ষিণ করতে প্লুটোর সময় লাগে ২৪৮ আর্থ ইয়ার (পৃথিবীর বছর)।

আরও পড়ুন- সৌরজগতের বাইরের গ্রহ থেকে এই প্রথম রেডিয়ো তরঙ্গের সন্ধান পেয়েছে পৃথিবী!

আরও পড়ুন- William Shatner: পিছিয়ে গেল অভিনেতা উইলিয়াম শাটনারের মহাকাশযাত্রা, জানিয়েছে ব্লু অরিজিন সংস্থা

আরও পড়ুন- Asteroid Spacecraft Lucy: বিশেষ গ্রহাণু পর্যবেক্ষণের জন্য উৎক্ষেপণ করা হচ্ছে Lucy, ১২ বছর ধরে চলবে অভিযান

Read Full Article

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla