BJP MLA: জনসংযোগে গিয়ে বিক্ষোভের মুখে ইন্দাসের বিজেপি বিধায়ক, তৃণমূলকে দুষলেন নির্মল ধাড়া

ইন্দাসের বিজেপি বিধায়ক নির্মল ধাড়া শ্রীকরা গ্রামে জনসংযোগে গিয়েই এলাকাবাসীর প্রবল ক্ষোভের মুখে পড়েন।

BJP MLA: জনসংযোগে গিয়ে বিক্ষোভের মুখে ইন্দাসের বিজেপি বিধায়ক, তৃণমূলকে দুষলেন নির্মল ধাড়া
ইন্দাসের বিজেপি বিধায়ক।
Follow Us:
| Edited By: | Updated on: Mar 19, 2023 | 6:04 PM

ইন্দাস: নিজের নির্বাচনী কেন্দ্রে জনসংযোগে গিয়ে এবার বিক্ষোভের মুখে পড়লেন বিজেপি বিধায়ক (BJP MLA)। রবিবার ঘটনাটি ঘটেছে বাঁকুড়ার (Bankura) ইন্দাস ব্লকের শ্রীকরা গ্রামে। ইন্দাসের বিজেপি বিধায়ক নির্মল ধাড়া শ্রীকরা গ্রামে জনসংযোগে গিয়েই এলাকাবাসীর প্রবল ক্ষোভের মুখে পড়েন। ১০০ দিনের কাজের প্রকল্পের টাকা বকেয়া থাকা সহ একাধিক অভিযোগে বিধায়কের উপর ক্ষোভ উগরে দেন শ্রীকরা গ্রামের বাসিন্দারা। আর এই ঘটনায় রীতিমতো অস্বস্তিতে পড়েছেন ওই বিধায়ক সহ বাঁকুড়া বিজেপি নেতৃত্ব। যদিও বিধায়কের দাবি, বিক্ষোভকারীরা সাধারণ জনগণ নয়, তারা তৃণমূলের নেতা-কর্মী।

স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, এদিন দুপুরে স্থানীয় দলীয় নেতৃত্বকে সঙ্গে নিয়ে ইন্দাসের আমরুল থেকে শ্রীকরা গ্রামে জনসংযোগ কর্মসূচি করতে যাচ্ছিলেন বিজেপি বিধায়ক নির্মল ধাড়া। শ্রীকরা গ্রামে ঢোকার মুখেই একদল স্থানীয় বাসিন্দা তাঁকে ঘিরে ধরে ১০০ দিনের কাজের প্রকল্পের বকেয়া মজুরি ও আবাস যোজনার জন্য বরাদ্দ টাকা মিটিয়ে দেওয়ার দাবি জানাতে থাকে। বিধায়ককে ঘিরে তীব্র ক্ষোভ প্রদর্শনের পাশাপাশি তাঁর সঙ্গে থাকা বিজেপি কর্মীদের সঙ্গে এলাকাবাসীর একপ্রস্থ ধাক্কাধাক্কিও হয়।

বিক্ষোভকারীদের একাংশের দাবি, ১০০ দিনের কাজের প্রকল্পের টাকা বকেয়া পড়ে রয়েছে দীর্ঘদিন। আবাস যোজনাতেও টাকা মিলছে না। নির্বাচনের আগে এলাকায় নির্মল ধাড়াকে দেখা গেলেও বিধায়ক হিসাবে নির্বাচিত হওয়ার পর তাঁকে আর এলাকায় দেখা যায়নি।

যদিও বিক্ষোভের মুখে অস্বস্তিতে পড়ে বিধায়ক নির্মল ধাড়ার দাবি, বিক্ষোভকারীরা সাধারণ মানুষ নয়, তারা সকলেই তৃণমূলের নেতা-কর্মী। তিনি বলেন, “তৃণমূলের অঞ্চল সভাপতি ও অন্যান্য ব্লক নেতৃত্বরাই বিক্ষোভ দেখায়। বিরোধী বিধায়ক হলেই আক্রমণের চেষ্টা করে ওরা। কেননা তৃণমূল জেনে গিয়েছে, বিজেপি বিধায়ক যদি এলাকায় ঘোরে তাহলে ওরা ভোট পাবে না।” এদিন তৃণমূলের নেতা-কর্মীরা তাঁর দলের ২-৩ জন কর্মীকে মারধর করেছে বলেও অভিযোগ বিধায়কের। ইতিমধ্যে তিনি থানায় অভিযোগ জানিয়েছেন। পুলিশ পদক্ষেপ না করলে ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের কাছে যাবেন বলেও হুঁশিয়ারি দিয়েছেন তিনি।

যদিও বিধায়কের অভিযোগ অস্বীকার করেছেন ইন্দাসের তৃণমূল ব্লক সভাপতি শেখ হামিদ। তাঁর পাল্টা দাবি, “নির্বাচনে জেতার পর বিধায়ক আর কোনও খোঁজ রাখেননি। এখন আবার নির্বাচনের সময় তিনি গ্রামে গিয়েছেন। ভোটের পর তাঁদের দেখা যায় না। সেটা গ্রামের মানুষ বুঝে গিয়েছে। যা উন্নয়ন করার তৃণমূল করছে। সেজন্যই আজ বিধায়ককে ঘিরে ধরে সাধারণ মানুষ বিক্ষোভ দেখিয়েছে। সাধারণ মানুষ যে আর বিজেপিকে ভোট দেবে না, এটা তারই প্রতিচ্ছবি।”