Uttarakhand Disaster: ঘরে ফিরবে তো ওরা! পাঁচ দিনে উৎকন্ঠার পর অবশেষে ফোনের ওপারে শোনা গেল ‘ভালো আছি’

Trekkers in Uttarakhand:টানা পাঁচ দিন চরম উৎকণ্ঠা ও উদ্বেগে কাটিয়েছে পরিবার। অবশেষে শুক্রবার এল ফোন। স্বস্তি ফিরল বাঁকুড়ার সাত পর্বতারোহীর পরিবারের।

Uttarakhand Disaster: ঘরে ফিরবে তো ওরা! পাঁচ দিনে উৎকন্ঠার পর অবশেষে ফোনের ওপারে শোনা গেল 'ভালো আছি'
এখনও উদ্ধারকাজ জারি উত্তরাখণ্ডে

বাঁকুড়া : গত কয়েক দিন ধরে উত্তরাখণ্ড (Uttarakhand) থেকে একের পর এক মর্মান্তিক খবর এসেছে। উত্তরকাশীত বাংলার ৫ পর্বতারোহীর মৃত্যু হয়েছে। এখনও আটকে আছেন অনেকে। প্রবল বিপর্যয়ে ইন্টারনেট ও টেলিকম পরিষেবা ব্যহত হওয়ায় যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে গিয়েছে পর্যটক ও পর্বতারোহীদের (Trekkers) সঙ্গে। ঘুম উড়েছে বহু পরিবারের। এরই মধ্যে দুশ্চিন্তা কাটল বাঁকুড়ার (Bankura) ৭ পর্বতারোহীর পরিবারের। গত পাঁচ দিন ধরে তাঁরা ওই সাত জনের সঙ্গে যোগাযোগ করতে পারছিলেন না। অবশেষে শুক্রবার কাটল উৎকন্ঠার মেঘ। ফোন এল বাড়িতে।

টানা পাঁচ দিন পরিবারের সঙ্গে যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে গিয়েছিল উত্তরাখণ্ডে ট্রেকিং-এ যাওয়া বাঁকুড়ার সাত পর্বতারোহীর। উত্তরাখণ্ডের প্রাকৃতিক দুর্যোগের খবর শোনার পর থেকেই উদ্বেগ বাড়ে পরিবারগুলির মধ্যে। একদিকে যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন, অন্যদিকে ভয়াবহ প্রাকৃতিক দুর্যোগের মর্মান্তিক সব ছবি। সব মিলিয়ে প্রবল দুশ্চিন্তা গ্রাস করেছিল পরিবারগুলিকে। অবশেষে টানা পাঁচ দিন পর শুক্রবার সন্ধ্যায় টেলিফোনে খবর আসে তাঁরা সুস্থ ও ভালো আছেন। ফোনে তাঁরা জানিয়েছেন, তাঁরা ভালো আছেন।

পাহাড়ের নেশায় এরা বারবার ছুটে যান। বাঁকুড়ার প্রত্যন্ত গ্রাম থেকেই একাধিক বার বিভিন্ন পাহাড়ের ট্রেকিং-এ অংশ নিয়েছে তাঁরা। এবার তাঁদের ট্রেকিং ছিল উত্তরাখণ্ডের হর-কি-দুন ও রুইনসারা তালে। সেই উদ্দেশেই গত ১৪ নভেম্বর নবমীর দিন বাঁকুড়ার ওন্দা থানার আগড়দা ও পুরুষোত্তমপুর গ্রাম থেকে এই সাত পর্বতারোহী রওনা দেন উত্তরাখণ্ডের। ১৭ তারিখ রবিবার সকালে পরিবারের সঙ্গে যোগাযোগ করেন তাঁরা। তাঁরা জানিয়েছিলেন দেরাদুন থেকে সাঁকরির উদ্দেশে বেরিয়ে পড়েছেন। ব্যস, তারপর থেকে পরিবারের সঙ্গে যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়ে এই সাতজনের।

এ দিকে উত্তরাখণ্ডের প্রাকৃতিক দুর্যোগের খবর টিভিতে দেখার পর থেকে উদ্বেগ বাড়তে থাকে পরিবারগুলির মধ্যে। বার বার ফোন করেও সম্ভব হয়নি তাঁদের সঙ্গে যোগাযোগ করা। রবিবার থেকেই যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে যায়। রীতিমতো দুশ্চিন্তায় দিন কাটাতে থাকে পর্বতারোহীদের পরিবার।

বাঁকুড়া জেলা পুলিশের তরফে পরিবারগুলির পাশে থাকার আশ্বাস দেওয়া হয়। উত্তরাখণ্ডে যোগাযোগ করে পর্বতারোহীদের খোঁজ নেওয়ার প্রক্রিয়াও শুরু হয়। বিভিন্নভাবে ট্রেকিং টিমের সঙ্গে যোগাযোগ করার চেষ্টাও করা হয়। অবশেষে টানা পাঁচ দিন পর শুক্রবার ফোন এল বাড়িতে। জানা গিয়েছে, শনিবার সকালে সাঁকরি থেকে বাঁকুড়ার সাত পর্বতারোহী রওনা দিয়েছেন দেরাদুনের উদ্দেশে। সেখান থেকেই শনিবার রাত ১০ টার ট্রেনে তাঁরা রওনা দিচ্ছেন বাড়ির পথে।

ইতিমধ্যেই উত্তরকাশীতে নিখোঁজ থাকা পাঁচ জন বাঙালির দেহ উদ্ধার করা হয়েছে। এখনও নিখোঁজ রয়েছেন সুখেন মাঝি। উত্তরাখণ্ডের বাগেশ্বর কন্ট্রোল রুম থেকে বাংলার পাঁচ জনের মৃত্যুর খবর নিশ্চিত করা হয়েছে। মৃতদের মধ্যে রয়েছেন,সাধন বসাক, তিনি ঠাকুরপুকুর জায়গীর রোডের বাসিন্দা। এছাড়াও বিকাশ মাকাল, সৌরভ দাস, সাবিয়ান দাসের দেহ উদ্ধার হয়েছে।

আরও পড়ুন : J&K Weather: দুর্যোগ মাথায় নিয়েই উপত্যকায় পৌঁছলেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী, সফরে বাধ সাধতে পারে ভারী বৃষ্টি-তুষারপাত

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla