Child Death: জ্বর আর শ্বাসকষ্ট, ২৪ ঘণ্টায় পরপর ৬ শিশুর মৃত্যু হাসপাতালে

North Bengal: এখনও শিশু বিভাগে চিকিৎসাধীন একাধিক শিশু। অসুস্থ হওয়ার প্রবণতা কমছে না শিশুদের। উদ্বেগ বাড়ছে উত্তরবঙ্গে।

Child Death: জ্বর আর শ্বাসকষ্ট, ২৪ ঘণ্টায় পরপর ৬ শিশুর মৃত্যু হাসপাতালে
পরপর শিশু মৃত্যুতে উদ্বেগ উত্তরবঙ্গে

শিলিগুড়ি: বেশ কয়েকদিন কেটে গেলেও জ্বরের প্রকোপ কমেনি এখনও। বিশেষত উত্তরবঙ্গে (North Bengal) এখনও সেই উদ্বেগজনক ছবি ধরা পড়ছে হাসপাতালগুলিতে। প্রতিনিয়নত শিশুরা ভর্তি হচ্ছে হাসপাতালে (Hospital)। মূলত জ্বর (Fever) আর শ্বাসকষ্টের সমস্যা্য ভুগছে তারা। মঙ্গলবার রাতে একই উপসর্গ নিয়ে আরও এক শিশুর মৃ্ত্যু হল  উত্তরবঙ্গ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে (North Bengal Medical College Hospital)। এই নিয়ে গত ২৪ ঘণ্টায় এই হাসপাতালে ৬ শিশুর মৃত্যু হয়েছে।

উত্তরবঙ্গ মেডিকেল কলেজ সূত্রে খবর, গতকাল রাতে ওই হাসপাতালে এক শিশুর মৃত্যু হয়েছে। এ ছাড়া গতকাল দুপুরে আরও দুই শিশুর মৃত্যু হয় ওই হাসপাতালেই। এই তিন শিশুরই উপসর্গ মূলত একই। নিউমোনিয়া এবং জ্বর, শ্বাসকষ্ট ছিল প্রত্যেকেরই। এদের মধ্যে দু’জন শিশুর বয়স মাত্র দেড় মাস। আর এক শিশুর বয়স ৯ মাস।

উত্তরবঙ্গ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ডিন সন্দীপ সেনগুপ্ত বলেন, ‘আমরা চেষ্টা চালাচ্ছি। কিন্তু কিছু ক্ষেত্রে শিশুরা দেরিতে আসছে।’ মৃত শিশুদের বাড়ি বীরপাড়া নকশালবাড়ি এবং মালবাজারে। এ ছাড়া চোপড়ার বাসিন্দা এক শিশুর মৃত্যু হয়েছে।

পেডিয়াট্রিক বিভাগে মারা গিয়েছে ১৯ দিনের এক শিশুও। জলপাইগুড়ি জেলা হাসপাতাল থেকে রেফার করে এই হাসপাতালে নিয়ে আসা হচ্ছিল। আসার পথে মৃত্যু হয় অন্য এক শিশুর। জলপাইগুড়ি থেকে একটি শিশুকে স্থানান্তরের পরামর্শ দিয়েছিলেন চিকিৎসকেরা। এর পর উত্তরবঙ্গ মেডিকেল কলেজে নিয়ে যাওয়ার পথে একটি শিশুর মৃত্যু হয়েছে। জ্বর ও শ্বাসকষ্ট সমস্যা নিয়ে এদিনই ফালাকাটা থেকে জলপাইগুড়িতে নিয়ে আসা হয় ৩ মাসের শিশু পুচকা বালাকে। জলপাইগুড়ি সদর হাসপাতাল তাকে রেফার করে দেয় উত্তরবঙ্গ মেডিক্যাল কলেজে। এর পর সরকারি অ্য়াম্বুল্যান্সের জন্য প্রায় ঘন্টা খানেক অপেক্ষা করেও কোনও গাড়ি না পেয়ে বাধ্য হয়ে প্রাইভেট অ্যাম্বুল্যান্স ভাড়া করে হাসপাতালের উদ্দেশে রওনা হয় শিশুটির পরিবার। কিন্তু উত্তরবঙ্গ মেডিকেল কলেজে পৌঁছলে বাচ্চাটিকে মৃত বলে ঘোষণা করেন চিকিৎসকেরা। শিশুটির জেঠু জীবন বালার দাবি, আর একটু আগে অ্যাম্বুল্যান্স পেয়ে গেলে হয়ত বা বেঁচে যেত বাচ্চাটি।

আরও পড়ুন: Kolkata Rain: ভোর রাতে বিকট শব্দে কেঁপে উঠল এলাকা, বৃষ্টিস্নাত নগরী থাকল আরেক বিপর্যয়ের সাক্ষী

জ্বর ও শ্বাসকষ্ট জনিত কারণে শিশু রোগীর সংখ্যা ক্রমেই বাড়ছে। হাসপাতালে এখন গাদাগাদি ভিড়। একই বেডে একাধিক শিশুকে রেখে চিকিৎসা করা হচ্ছে বলে অভিযোগ। সমস্যার কথা স্বীকারও করে নিয়েছে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ। একই ছবি উত্তরবঙ্গের অন্যান্য জেলাতেও। মালদহ (Maldah) জেলাতেও অজানা জ্বরে মৃত্যু হয়েছে একাধিক শিশুর।

আরও পড়ুন: Weather Update: নিম্নচাপের দুর্যোগ, ৪ জেলায় জারি লাল সতর্কতা! এক টানা বৃষ্টি চলবে কতদিন?

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla