ডায়মন্ড হারবারে সংশোধনাগারে বন্দি বিজেপি কর্মীর মৃত্যু, তীব্র চাঞ্চল্য

"এলাকায় বিজেপি (BJP) সংগঠনের হাল ধরেছিল স্বপন। তাই উদ্দেশ্য প্রণোদিত ভাবে মিথ্যা মামলায় ফাঁসানো হয় তাঁকে। এবার জেলের মধ্যেই ছেলেটার মৃত্যু হল।''

ডায়মন্ড হারবারে সংশোধনাগারে বন্দি বিজেপি কর্মীর মৃত্যু, তীব্র চাঞ্চল্য
নিজস্ব চিত্র

দক্ষিণ ২৪ পরগনা: সংশোধনাগারের মধ্যে এক বিচারাধীন বিজেপি কর্মীর (BJP Worker) মৃত্যুকে ঘিরে চাঞ্চল্য। সোমবার সকালে ডায়মন্ড হারবার উপ-সংশোধনাগারের বন্দি কক্ষ থেকে উদ্ধার হয় বিজেপি কর্মীর মৃতদেহ। যা নিয়ে প্রশাসন ও শাসক দলের দলের দিকে আঙুল তুলেছে গেরুয়া শিবির। বিজেপির অভিযোগ, স্বপন মণ্ডল নামে তাঁদের দলের সক্রিয় কর্মীকে মিথ্যা মামলায় ফাঁসায় তৃণমূল। এখন তাঁর আচমকা মৃত্যু নিয়ে প্রশাসনের বিরুদ্ধে সরব হয়েছে তারা।

এদিকে পুলিশ সূত্রে খবর, মৃত স্বপন মণ্ডল (৫০) ফলতার দক্ষিণ কলাগাছিয়া এলাকার বাসিন্দা। গত ৪ এপ্রিল এলাকায় রাজনৈতিক গণ্ডগোল ও ঝামেলা পাকানোর অভিযোগে তাঁকে গ্রেফতার করে ফলতা থানার পুলিশ। ধৃতের বিরুদ্ধে ভারতীয় দণ্ডবিধির ৩৪১, ৩২৬, ৩০৭ ও ৩৪ ধারায় মামলা রুজু হয়। ৫ এপ্রিল আদালতে তাঁকে পেশ করা হলে স্বপনকে জেল হেফাজতের নির্দেশ দেন বিচারক।

এর পর ৫ এপ্রিল থেকে ডায়মন্ড হারবার উপসংশোধনাগারে বন্দি ছিলেন ওই বিজেপি কর্মী। সোমবার সকাল সাড়ে ৬টা নাগাদ সেলের ভেতরে থাকা স্বপনকে ডাকাডাকি করেও কোন শব্দ পাননি রক্ষীরা। পরে সংশোধনাগারের চিকিৎসক এসে পরীক্ষা করে তাঁকে মৃত বলে ঘোষণা করেন। চিকিৎসকের অনুমান, হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে মৃত্যু হয়েছে তাঁর। তবে ময়নাতদন্তের পরই মৃত্যুর প্রকৃত কারণ জানা যাবে বলে জানিয়েছে জেল কর্তৃপক্ষ।

আরও পড়ুন: বাথরুমে স্নান করার নগ্ন ছবি চেয়ে ক্রমাগত চাপ প্রেমিকের, শেষে চরম পদক্ষেপ নাবালিকার

এদিকে বিজেপির ডায়মন্ড হারবারের সাংগঠনিক জেলার সহ-সভাপতি সুফল ঘাটু বলেন, ‘এলাকায় বিজেপির সংগঠনের হাল ধরেছিল স্বপন। তাই উদ্দেশ্য প্রণোদিত ভাবে মিথ্যা মামলায় ফাঁসানো হয় তাঁকে। এবার জেলের মধ্যেই ছেলেটার মৃত্যু হল।’ যদিও বিজেপির অভিযোগ অস্বীকার করেছে ঘাসফুল শিবির।

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla