PAN Card: ঝক্কি পোহাতে হবে না আর, বাড়িতে বসেই নিখরচায় কীভাবে প্যান কার্ড পাবেন, জেনে নিন…

How to Get Pan Card Free of Cost: বর্তমানে বাড়িতে বসেই নিখরচায় এই প্যান কার্ড তৈরি করা যায়। যাদের আধার কার্ড রয়েছে এবং ইউআইডিএআই (UIDAI) ডেটাবেসে ফোন নম্বর রেজিস্ট্রার করা রয়েছে, তারা সহজেই ঘরে বসে নতুন প্যান কার্ডের জন্য আবেদন করতে পারেন।

PAN Card: ঝক্কি পোহাতে হবে না আর, বাড়িতে বসেই নিখরচায় কীভাবে প্যান কার্ড পাবেন, জেনে নিন...
প্রতীকী চিত্র।

নয়া দিল্লি: দেশের নাগরিক হিসাবে পরিচয় দিতে যেমন আধার কার্ড বা ভোটার কার্ড বাধ্যতামূলক, তেমনই গুরুত্বপূর্ণ প্যান কার্ড (PAN Card)-ও। ১০ সংখ্যার এই ইউনিক নম্বরটি তৈরি করে দেয় আয়কর বিভাগ (Income Tax Department)।  চাকরি ক্ষেত্র থেকে শুরু করে যে কোনও প্রয়োজনীয় কাজের ক্ষেত্রে এখন প্যান কার্ড থাকা জরুরি। সেভিংস অ্যাকাউন্টে যদি ৫০ হাজার টাকা বার তার বেশি টাকা থাকে তাহলে সেখানে প্যান কার্ডের নম্বর উল্লেখ করা বাধ্যতামূলক। এছাড়া ডেবিট কার্ডের আবেদনের ক্ষেত্রেও বর্তমানে প্যান নম্বর দাখিল করা বাধ্যতামূলক।

আগে প্য়ান কার্ড তৈরির জন্য নানা ঝামেলা পোহাতে হলেও বর্তমানে বাড়িতে বসেই নিখরচায় এই প্যান কার্ড তৈরি করা যায়। যাদের আধার কার্ড রয়েছে এবং ইউআইডিএআই (UIDAI) ডেটাবেসে ফোন নম্বর রেজিস্ট্রার করা রয়েছে, তারা সহজেই ঘরে বসে নতুন প্যান কার্ডের জন্য আবেদন করতে পারেন।

কীভাবে বাড়িতে বসেই আধার কার্ড পেয়ে যাবেন, জেনে নিন-

প্য়ান কার্ডের আবেদনের জন্য কী কী প্রয়োজন:

১. আবেদনকারীর অবশ্যই বৈধ্য আধার কার্ড নম্বর থাকতে হবে, যা অন্য কোনও প্যান কার্ডের সঙ্গে সংযুক্ত নেই।

২. আধার কার্ডের সঙ্গে মোবাইল নম্বর সংযুক্ত থাকতে হবে।

৩. আবেদনকারীর নামে অন্য কোনও প্যান কার্ড যেন না থাকে। (একাধিক প্য়ান কার্ড থাকলে ১০ হাজার টাকা অবধি জরিমানা করা হয়)।

কীভাবে আবেদন করবেন?

১. প্রথমেই আয়কর বিভাগের ই-ফাইলিং ওয়েবসাইটে যেতে হবে।

২. সেখানে “ইন্সট্যান্ট প্য়ান থ্রু আধার” (Instant PAN Through Aadhar) অপশনে ক্লিক করতে হবে।

৩. এরপরে “গেট নিউ প্য়ান” (Get New PAN) অপশনে ক্লিক করতে হবে।

৪. এ বার একটি ফাঁকা স্থান দেখা যাবে, সেখানে আধার কার্ড নম্বরটি বসাতে হবে। আপনি যে রোবট নন, তা প্রমাণের জন্য একটি ক্যাপচা (Captcha) ফিল আপ করতে হবে।

৫. ওই অপশনটি পূরণ করলেই রেজিস্ট্রার করা ফোন নম্বরে একটি ওয়ান টাইম পাসওয়ার্ড বা ওটিপি (OTP) আসবে।

৫. ওই ওটিপি বসালেই একটি অ্যাকনলেজমেন্ট নম্বর (Acknowledgment Number)  তৈরি হয়ে যাবে।

প্য়ান কার্ড সম্পর্কিত যাবতীয় তথ্য জানার জন্য এই নম্বরটি অত্যন্ত জরুরি।  এছাড়াও আবেদনের সম্পূর্ণ প্রক্রিয়াটি শেষ হওয়ার পর আবেদনকারীর রেজিস্ট্রার করা ফোন নম্বর ও ই-মেইল আইডিতেও মেসেজ চলে আসবে।

কীভাবে প্য়ান কার্ড তৈরির গতিপ্রকৃতির উপর নজর রাখবেন?

আবেদন করার পর নতুন আধার কার্ড আসতে কয়েকদিন সময় লাগতে পারে।

১. এক্ষেত্রে নতুন প্যান কার্ড তৈরি হতে কতদিন সময় লাগবে তা জানতে https://www.incometaxindiaefiling.gov.in – এই ওয়েবসাইটে ক্লিক করতে হবে।

২. এরপর “ইন্সট্যান্ট প্যান থ্রু আধার” অপশনে ক্লিক করতে হবে।

৩. পরবর্তী ধাপে “চেক স্টেটাস অব প্যান” অপশনে ক্লিক করতে হবে।

৪.  বার আধার নম্বর বসালেই রেজিস্ট্রার করা ফোন নম্বরে একটি ওটিপি আসবে।

৫. সেই ওটিপি দিলেই প্যান কার্ডের আবেদন গৃহীত হয়েছে কিনা, কতদিন সময় লাগবে, তা জানা যাবে।

কীভাবে ডাউনলোড করবেন প্যান কার্ড?

১. প্যান কার্ড ডাউনলোডের জন্য আয়কর দফতরের ই-ফাইলিং ওয়েবসাইট, https://www.incometaxindiaefiling.gov.in – এই ওয়েবসাইটে যেতে হবে।

২. এ বার  “ইন্সট্যান্ট প্যান থ্রু আধার” অপশনে ক্লিক  করতে হবে।

৩. “চেক স্টেটাস অব প্যান” অপশনে ক্লিক করুন পরবর্তী ধাপে।

৪. এ বার আধার কার্ড নম্বর দিলে যে ওটিপি আসবে, তা বসালেই দেখা যাবে প্যান কার্ড তৈরি হয়ে গিয়েছে কিনা।

৫.যদি প্য়ান কার্ড তৈরি হয়ে যায়, তবে ডাউনলোড লিঙ্কে ক্লিক করলেই ই-প্যান অর্থাৎ প্যান কার্ডটি পিডিএফ ফরম্যাটে পেয়ে যাবেন।

আরও পড়ুন: গণেশ চতুর্থীতে বাজিমাত বিটকয়েনের, মাত্র ২০০ টাকায় আপনিও উপহার দিন দুর্গাপুজোয় 

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla