Samajwadi Party : পুলিশের ব্যাজ ছিঁড়ে দেওয়ার হুমকি! বিতর্কে কানপুরের সপা নেতা

Uttar Pradesh Assembly Election 2022: ভিডিয়ো দেখা যাচ্ছে সমাজবাদী পার্টির এক নেতাকে। অখিলেশ যাদবের দলের ওই নেতাকে দেখা যাচ্ছে থানার ভিতরেই এক পুলিশকে 'হুমকি' দিচ্ছেন। ওই পুলিশকর্মীর উদ্দেশে সপা নেতা বলছেন, দলের পতাকা ছেড়া হলে, তিনিও পুলিশের ব্যাজ ছিড়ে নেবেন।

Samajwadi Party : পুলিশের ব্যাজ ছিঁড়ে দেওয়ার হুমকি! বিতর্কে কানপুরের সপা নেতা
সপা কাউন্সিলরকে ঘিরে বাড়ছে বিতর্ক (ছবি- সোশ্যাল মিডিয়া)

কানপুর: ভোটমুখী উত্তর প্রদেশ এখন টগবগ করে ফুটছে। বাড়ছে রাজনীতির পারদ। চলছে তপ্ত বাক্য বিনিময়। আর সেই আঁচ গিয়ে পড়ছে পুলিশকর্মীদের উপরেও। এমনকী পুলিশের ব্যাজ ছিঁড়ে দেওয়ার হুঁশিয়ারিও দেওয়া হচ্ছে। সম্প্রতি এমনই এক ভিডিয়ো ভাইরাল হয়েছে। ঘটনাটি উত্তর প্রদেশের কানপুরের। ভিডিয়ো দেখা যাচ্ছে সমাজবাদী পার্টির এক নেতাকে। অখিলেশ যাদবের দলের ওই নেতাকে দেখা যাচ্ছে থানার ভিতরেই এক পুলিশকে ‘হুমকি’ দিচ্ছেন। ওই পুলিশকর্মীর উদ্দেশে সপা নেতা বলছেন, দলের পতাকা ছেড়া হলে, তিনিও পুলিশের ব্যাজ ছিড়ে নেবেন। আর এই নিয়েও তুমুল শোরগোল শুরু হয়েছে উত্তর প্রদেশে। যদিও ভাইরাল হওয়া ওই ভিডিয়োর সত্যতা যাচাই করেনি TV9 বাংলা।

যে ভিডিয়োটি ভাইরাল হয়েছে, দাবি করা হচ্ছে সেটি কানপুরে বরা থানার ভিতরে। আর যিনি হুমকি দিচ্ছেন, তিনি সপার স্থানীয় কাউন্সিলর অর্পিত যাদব। সম্প্রতি সেখানে একটি স্থানীয় দলীয় কার্যালয় তৈরি করেছে বিজেপি। আর বিজেপির সেই নতুন দলীয় কার্যালয়ের দেওয়ালে সপা কাউন্সিলর এবং তাঁর অনুগামীদের নিজেদের পোস্টার সাঁটিয়ে দিয়ে এসেছেন। সেই পোস্টার পুলিশ ছিঁড়তে গেলেই শুরু হয় বাক-বিতন্ডা। বচসার মধ্যে পুলিশ আধকারিককে একেবারে ব্যাজ ছিঁড়ে দেওয়ার হুমকি দিয়ে বসলেন সপা নেতা।

সপা কাউন্সিলর ও তাঁর অনুগামীদের সাঁটানো ওই পোস্টারে অভিযোগ করা হয়েছে, যেখানে বিজেপি অফিস তৈরি করা হয়েছে, সেই জমি হাসপাতাল তৈরির জন্য নওবস্তা মৌরাং মান্ডি থেকে গ্রহণ করা হয়েছিল। অথচ, গেরুয়া শিবির সেখানে তাদের কার্যালয় তৈরি করেছে।

মঙ্গলবার বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি জেপি নাড্ডা এবং উত্তর প্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথের উপস্থিতিতে এই আঞ্চলিক কার্যালয় উদ্বোধন করার কথা ছিল। এসপি কর্মীদের বিক্ষোভের মধ্যে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে পোস্টারটি ছিঁড়ে দেয়। অর্পিত যাদব, যিনি বিক্ষোভের নেতৃত্ব দিয়েছিলেন, তাঁকে হেফাজতে নিয়ে বরা থানায় নিয়ে যাওয়া হয়েছিল।

উল্লেখ্য, কিছুদিন আগেই সপা প্রধান অখিলেশ যাদব কৃষি আইন প্রত্যাহার নিয়ে বিজেপি সরকারকে কটাক্ষ করেছিলেন। বলেছিলেন,  কৃষকদের কথা ভেবে এই সিদ্ধান্ত নয়, বরং আসন্ন নির্বাচনের কথা মাথায় রেখেই এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। এই নিয়ে নতুন স্লোগানও তৈরি করে অখিলেশের দল, “সাফ নাহি হ্যায় ইনকা দিল, চুনাও বাদ ফির লায়েঙ্গে বিল।” অর্থাৎ, বিজেপির মন পরিষ্কার নয়। ভোটের পর আবার বিল আনবে। এমনটাই মনে করছেন সপা প্রধান অখিলেশ যাদব।

সপা প্রধান অখিলেশ যাদব এক টুইটে লিখেছিলেন, “ যে ধনীরা জমি অধিগ্রহণ করে এবং দরিদ্র কৃষকদের সঙ্গে প্রতারণা করতে চেয়েছিল, বিজেপি তাদের সঙ্গে কাজ করছে এই তিনটি আইনের মাধ্যমে। ওই দল কৃষকদের আটকাতে পেরেক ব্যবহার করেছে, তাদের চুল টেনে ধরেছে, কৃষকদের কার্টুন তৈরি করেছে, তাদের গাড়ি চাপা দিয়েছে, কিন্তু পূর্বাঞ্চলে সপার বিজয় যাত্রায় জনসমর্থনের ভয় তাদের কালো আইন প্রত্যাহার করতে বাধ্য হয়েছে।”

আরও পড়ুন : Subramanian Swamy: কংগ্রেসের পর এবার বিজেপির ‘ঘর ভাঙা’র ছক? মমতা-সুব্রহ্মণ্যম সাক্ষাতে চড়ছে পারদ

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla