Corona Virus : বাড়ছে সংক্রমণ, উপসর্গহীন কোভিড রোগীদের নিভৃতবাসের নয়া নির্দেশিকা কেন্দ্রের

Covid-19 : শুক্রবার কেন্দ্রের তরফে করোনা নিয়ে নতুন নির্দেশিকা জারি করা হয়েছে। উপসর্গহীন রোগীদের হোম আইসোলেশনের বিষয়ে বলা হয়েছে এই নির্দেশিকায়।

Corona Virus : বাড়ছে সংক্রমণ, উপসর্গহীন কোভিড রোগীদের নিভৃতবাসের নয়া নির্দেশিকা কেন্দ্রের
করোনার কোপ চিকিৎসা ক্ষেত্রেও। ফাইল ছবি।

নয়া দিল্লি : করোনা সংক্রমণ প্রতিদিন বেড়েই চলেছে। করোনা সংক্রমণে লাগাম টানতে একাধিক পদক্ষেপ নিতে দেখা গিয়েছে কেন্দ্র ও রাজ্য সরকারগুলিকে। সব রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রীদের নিয়ে ভার্চুয়ালি কোভিড পর্যালোচনা বৈঠক করেছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। এই সবকিছুর উদ্দেশ্য একটাই করোনা ভাইরাসের মোকাবিলা করা। আজ কেন্দ্রের তরফে নতুন করোনাবিধি প্রকাশ করা হয়েছে। এই করোনাবিধিতে মূলত উপসর্গহীন রোগীদের বিষয়ে নির্দেশিকা জারি করেছে কেন্দ্র। স্বাস্থ্য মন্ত্রকের তরফে আজ নির্দেশিকা জারি করে জানানো হয়েছে, উপসর্গহীন করোনা আক্রান্ত রোগীদের সংস্পর্শে এলে করোনা পরীক্ষা করা বাধ্যতামূলক নয়। এই নির্দেশিকায় বলা হয়েছে, করোনা আক্রান্ত রোগী যাদের হালকা উপসর্গ বা কোনও উপসর্গ নেই তাঁরা হোম আইসোলেশনে থাকতে পারেন। কিন্তু ষাটোর্ধ্ব ব্যক্তিদের ক্ষেত্রে এই নির্দেশে কিছুটা বদল ঘটেছে।

কেন্দ্রের তরফে নির্দেশিকায় জানানো হয়েছে, উপসর্গহীন বা কম উপসর্গযুক্ত করোনা আক্রান্ত ষাটোর্ধ্ব ব্যক্তিরা যথাযথভাবে ডাক্তারের সঙ্গে আলোচনা করার পরই হোম আইসোলেশনে থাকতে পারবেন। স্বাস্থ্য় মন্ত্রক জানিয়েছে, করোনা পজিটিভ আসার ৭ দিন পর হোম আইসোলেশন সম্পূর্ণ হয়ে যাবে।  তবে সেখানেও কিছু শর্ত জুড়ে দেওয়া হয়েছে। পরপর তিনদিন জ্বর না থাকলে তবেই ৭ দিন পর হোম আইসোলেশন শেষ হবে। এরপর পুনরায় করোনা পরীক্ষা করে নিশ্চিত হওয়ার কোনও প্রয়োজন নেই। কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রকের তরফে নির্দেশিকায় জানানো হয়েছে, উপসর্গহীন রোগীদের সংস্পর্শে আসা ব্যক্তিদের করোনা পরীক্ষা করাতে হবে না।

এই সপ্তাহের শুরুতে কেন্দ্রীয় সরকার জানিয়েছে, মৃদু উপসর্গ সহ রোগীদের পরপর তিনদিন জ্বর না আসলে পজিটিভ হওয়া থেকে ৭ দিন পর হাসপাতাল থেকে ছুটি দেওয়া যাবে। কোভিড রোগীদের হাসপাতাল থেকে রিলিজ করার নির্দেশিকায় কিছু পরিবর্তন এনেছেন। কেন্দ্রীয় সরকার ভয়াবহতা উপর ভিত্তি করে এই রোগকে দুইটি ভাগে ভাগ করেছেন- মৃদু ও হালকা। হাসপাতাল থেকে ছাড়ার আগে পুনরায় করোনা পরীক্ষা করারও কোনও প্রয়োজন নেই। হালকা উপসর্গযুক্ত রোগীদের ক্ষেত্রে আরেকটু নজরদারির কথা বলা হয়েছে। হালকা উপসর্গযুক্ত রোগীদের যদি উপসর্গ সেরে যায় এবং পরপর তিনদিন অক্সিজেন সাপোর্ট ছাড়া রোগীর যদি ৯৩ শতাংশ অক্সিজেন স্যাচুরেশন থাকে তাহলে তাঁকে হাসপাতাল থেকে ছাড়া যাবে। তবে অবশ্যই যে ডাক্তার দেখছেন সেই রোগীকে তাঁর পরামর্শ নিয়েই ডিসচার্জ করা হবে।

কিন্তু যদি রোগীর উপসর্গ তখনও থাকে এবং অক্সিজেন সহায়তার দরকার পড়ে তাহলে তাঁকে হাসপাতাল থেকে ছাড়া হবে না। অক্সিজেন সিলিন্ডারের সহায়তা ছাড়া তাঁদের অক্সিজেন স্যাচুরেশন পরপর তিনদিন ৯৩ শতাংশের উপরে থাকলে তবেই ছাড়া হবে। এর আগে ICMR একটি করোনা সংক্রান্ত নির্দেশিকা প্রকাশ করেছিল। যেখানে বলা হয়েছে কোনও রোগীর অস্ত্রোপচারের আগে তিনি উপসর্গহীন হলে তাঁর করোনা পরীক্ষা করার প্রয়োজন নেই। এই নির্দেশিকা নিয়ে চিকিৎসক মহলে বিভ্রান্তির সৃষ্টি হয়েছে।

আরও পড়ুন : Bishop Franco Mulakkal : দীর্ঘদিনের বিতর্কের পর সন্ন্যাসিনী ধর্ষণের মামলায় বেকসুর খালাস কেরলের বিশপ ফ্র্যাঙ্কো

Related News

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla