Nutrients: বয়স বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে কোন পুষ্টিগুলো অবশ্যই শরীরে জরুরি, দেখে নিন

বয়স বৃদ্ধির সঙ্গে সঙ্গে শরীরে একাধিক স্বাস্থ্য সমস্যা দেখা দেয়। হাড়ের ক্ষয় থেকে শুরু করে চোখের দৃষ্টি সংক্রান্ত সমস্যা দেখা দিতে শুরু করে বৃদ্ধ বয়সে। এমনকি এই সময় সামান্য সংক্রমণ থেকে বড় রোগ হওয়ার সম্ভাবনাও বেশি। তাই এই সময় কোন পুষ্টিকর খাদ্যগুলিকে অবশ্যই ডায়েটে রাখতে হবে, দেখে নিন...

Jan 17, 2022 | 4:14 PM
TV9 Bangla Digital

| Edited By: megha

Jan 17, 2022 | 4:14 PM

ভিটামিন বি১২ ও বি৬- ভিটামিন বি১২ শরীরে রক্ত ​​এবং স্নায়ু কোষ তৈরিতে সাহায্য করে। এটি মাংস, মাছ, ডিম এবং দুগ্ধজাত খাবারের মাধ্যমে সহজেই পূরণ করা যায়। আপনি যদি নন-ভেজ না খান, তাহলে চিকিৎসকের পরামর্শে কিছু ওষুধ ও সাপ্লিমেন্টও ডায়েটে অন্তর্ভুক্ত করতে পারেন। এছাড়াও ভিটামিন বি৬ জীবাণুর বিরুদ্ধে লড়াই করতে এবং শক্তি তৈরিতে সাহায্য করে, যার কারণে বার্ধক্যেও স্মৃতিশক্তি প্রখর থাকে। এই জন্য, আপনার খাদ্যতালিকায় ছোলা এবং ফোর্টিফাইড ব্রেকফাস্ট অন্তর্ভুক্ত করা উচিত।

ভিটামিন বি১২ ও বি৬- ভিটামিন বি১২ শরীরে রক্ত ​​এবং স্নায়ু কোষ তৈরিতে সাহায্য করে। এটি মাংস, মাছ, ডিম এবং দুগ্ধজাত খাবারের মাধ্যমে সহজেই পূরণ করা যায়। আপনি যদি নন-ভেজ না খান, তাহলে চিকিৎসকের পরামর্শে কিছু ওষুধ ও সাপ্লিমেন্টও ডায়েটে অন্তর্ভুক্ত করতে পারেন। এছাড়াও ভিটামিন বি৬ জীবাণুর বিরুদ্ধে লড়াই করতে এবং শক্তি তৈরিতে সাহায্য করে, যার কারণে বার্ধক্যেও স্মৃতিশক্তি প্রখর থাকে। এই জন্য, আপনার খাদ্যতালিকায় ছোলা এবং ফোর্টিফাইড ব্রেকফাস্ট অন্তর্ভুক্ত করা উচিত।

1 / 6
ক্যালসিয়াম- ক্যালসিয়াম হাড় ও দাঁতকে খুব মজবুত করে। বৃদ্ধ বয়সে শরীরে প্রচুর পরিমাণে ক্যালসিয়ামের প্রয়োজন হয়। এমন পরিস্থিতিতে দুগ্ধজাত দ্রব্যে ক্যালসিয়ামের পরিমাণ অনেক বেশি এবং আমাদের খাদ্যে দুধ, দই ইত্যাদি অন্তর্ভুক্ত করা উচিত।

ক্যালসিয়াম- ক্যালসিয়াম হাড় ও দাঁতকে খুব মজবুত করে। বৃদ্ধ বয়সে শরীরে প্রচুর পরিমাণে ক্যালসিয়ামের প্রয়োজন হয়। এমন পরিস্থিতিতে দুগ্ধজাত দ্রব্যে ক্যালসিয়ামের পরিমাণ অনেক বেশি এবং আমাদের খাদ্যে দুধ, দই ইত্যাদি অন্তর্ভুক্ত করা উচিত।

2 / 6
ম্যাগনেসিয়াম- এর পাশাপাশি বৃদ্ধ বয়সে শরীরে প্রচুর পরিমাণে ম্যাগনেসিয়াম প্রয়োজন। এর কারণে, আপনার রক্তে শর্করার পরিমাণও স্থিতিশীল থাকতে পারে। এর জন্য আপনার বাদাম, বীজ এবং শাক খাওয়া উচিত।

ম্যাগনেসিয়াম- এর পাশাপাশি বৃদ্ধ বয়সে শরীরে প্রচুর পরিমাণে ম্যাগনেসিয়াম প্রয়োজন। এর কারণে, আপনার রক্তে শর্করার পরিমাণও স্থিতিশীল থাকতে পারে। এর জন্য আপনার বাদাম, বীজ এবং শাক খাওয়া উচিত।

3 / 6
ওমেগা-৩ ফ্যাটি অ্যাসিড- শরীর নিজে থেকে ওমেগা-৩ ফ্যাটি অ্যাসিড তৈরি করতে পারে না। কিন্তু এই পুষ্টিটি মস্তিষ্ক, স্নায়ু কোষ এবং শুক্রাণু কোষের জন্য প্রয়োজনীয়। এমন পরিস্থিতিতে ডিমেনশিয়া এবং অন্ধত্ব এড়াতে শরীরে ওমেগা-৩ পর্যাপ্ত পরিমাণে থাকা প্রয়োজন। এর জন্য আপনার প্রতিদিনের রুটিনে চর্বিযুক্ত মাছ, আখরোট অন্তর্ভুক্ত করা উচিত।

ওমেগা-৩ ফ্যাটি অ্যাসিড- শরীর নিজে থেকে ওমেগা-৩ ফ্যাটি অ্যাসিড তৈরি করতে পারে না। কিন্তু এই পুষ্টিটি মস্তিষ্ক, স্নায়ু কোষ এবং শুক্রাণু কোষের জন্য প্রয়োজনীয়। এমন পরিস্থিতিতে ডিমেনশিয়া এবং অন্ধত্ব এড়াতে শরীরে ওমেগা-৩ পর্যাপ্ত পরিমাণে থাকা প্রয়োজন। এর জন্য আপনার প্রতিদিনের রুটিনে চর্বিযুক্ত মাছ, আখরোট অন্তর্ভুক্ত করা উচিত।

4 / 6
ভিটামিন ডি- শরীর নিজে থেকে ভিটামিন ডি তৈরি করতে পারে না। কিন্তু হাড়ের স্বাস্থ্যের জন্য এই পুষ্টি জরুরি। ভিটামিন ডি-এর উৎস হল সূর্যালোক। অন্য দিকে সামুদ্রিক মাছ, ডিম ও দুগ্ধজাত পণ্যে অল্প পরিমাণে এই ভিটামিন পাওয়া যায়। এর জন্য আপনাকে প্রতিদিন ১৫ মিনিট করে সূর্যালোকে দাঁড়ানো উচিত। এছাড়া আপনি চিকিৎসকের সঙ্গে পরামর্শ‌ করে সাপ্লিমেন্ট গ্রহণ করতে পারেন।

ভিটামিন ডি- শরীর নিজে থেকে ভিটামিন ডি তৈরি করতে পারে না। কিন্তু হাড়ের স্বাস্থ্যের জন্য এই পুষ্টি জরুরি। ভিটামিন ডি-এর উৎস হল সূর্যালোক। অন্য দিকে সামুদ্রিক মাছ, ডিম ও দুগ্ধজাত পণ্যে অল্প পরিমাণে এই ভিটামিন পাওয়া যায়। এর জন্য আপনাকে প্রতিদিন ১৫ মিনিট করে সূর্যালোকে দাঁড়ানো উচিত। এছাড়া আপনি চিকিৎসকের সঙ্গে পরামর্শ‌ করে সাপ্লিমেন্ট গ্রহণ করতে পারেন।

5 / 6
জিঙ্ক ও পটাশিয়াম- জিঙ্ক আপনার ঘ্রাণ এবং স্বাদের অনুভূতি বাড়ায়। এটি শরীরের সংক্রমণ এবং প্রদাহের বিরুদ্ধে লড়াই করে, পাশাপাশি দৃষ্টিশক্তির উন্নতি করে। জিঙ্কের অভাব পূরণ করতে, একটি স্বাস্থ্যকর ব্রেকফাস্ট গ্রহণ করা উচিত। এছাড়াও পটাশিয়াম আপনার হৃৎপিণ্ড, পেশী, কিডনি এবং স্নায়ুর জন্য প্রয়োজনীয়। এর ঘাটতি পূরণ করতে আপনি পালং শাক, দুধ, কলা ইত্যাদি খেতে পারেন।

জিঙ্ক ও পটাশিয়াম- জিঙ্ক আপনার ঘ্রাণ এবং স্বাদের অনুভূতি বাড়ায়। এটি শরীরের সংক্রমণ এবং প্রদাহের বিরুদ্ধে লড়াই করে, পাশাপাশি দৃষ্টিশক্তির উন্নতি করে। জিঙ্কের অভাব পূরণ করতে, একটি স্বাস্থ্যকর ব্রেকফাস্ট গ্রহণ করা উচিত। এছাড়াও পটাশিয়াম আপনার হৃৎপিণ্ড, পেশী, কিডনি এবং স্নায়ুর জন্য প্রয়োজনীয়। এর ঘাটতি পূরণ করতে আপনি পালং শাক, দুধ, কলা ইত্যাদি খেতে পারেন।

6 / 6

Follow us on

Most Read Stories

Click on your DTH Provider to Add TV9 BANGLA