প্রশাসনিক বৈঠকে ডাক পেলেন বিজেপি বিধায়কও, অনুব্রতের গড়ে সৌজন্যের অন্য ছবি

Birbhum: এ জেলায় বিরোধীরা বারবার অভিযোগ তোলে, কোনও প্রশাসনিক বিষয়ে তাদের ঢুকতেই দেওয়া হয় না।

  • Publish Date - 9:27 am, Sat, 17 July 21 Edited By: সায়নী জোয়ারদার
প্রশাসনিক বৈঠকে ডাক পেলেন বিজেপি বিধায়কও, অনুব্রতের গড়ে সৌজন্যের অন্য ছবি
নিজস্ব চিত্র।

বীরভূম: জেলায় প্রশাসনিক বৈঠক। সেখানে ডাক পেলেন বিরোধী বিধায়কও। এ এক অন্য সৌজন্যের ছবি দেখা গেল অনুব্রত মণ্ডলের গড় বীরভূমে। শুধু ডাক পেয়েছেন তেমনটাই নয়, নিজের বক্তব্যও অবাধে পেশ করতে পেরেছেন দুবরাজপুরের বিজেপি বিধায়ক অনুপ সাহা।

এলাকার উন্নয়ন সম্পর্কিত একাধিক বিষয়ে শুক্রবার সিউড়ির জেলাশাসকের দফতরে প্রশাসনিক উন্নয়ন মূলক বৈঠক হয়। সেখানেই প্রশাসনের তরফে আমন্ত্রণ জানানো হয়েছিল অনুপ সাহাকেও। সেখানে হাজির থেকে বিজেপি বিধায়ক এলাকার একাধিক সুবিধা অসুবিধার কথা তুলে ধরেন।

বীরভূম জেলা প্রশাসন তা গুরুত্ব দিয়ে শুনেছেন বলেই দাবি করেন অনুপ সাহা। তিনি বলেন, “মূলত বিভিন্ন দফতর ধরে এই বৈঠকে আলোচনা হয়েছে। সেখানে অনেক অসঙ্গতিও দেখা গিয়েছে। ১০০ দিনের কাজ, শৌচালয় তৈরির মতো প্রকল্পগুলি এখনও মানুষের কাছে পৌঁছয়নি। আমি বলেছি প্রশাসন চেষ্টা করলে তার সুবিধা মানুষ পেতে পারেন। সকলে যেন কাজ পায় সেদিকটাও দেখতে বলেছি। কাগজে কলমে ১০০ শতাংশ কাজ দেখালেও ময়দানে গিয়ে তার প্রমাণ পাওয়া যাচ্ছে না। সেগুলি বলেছি। আমার কথা বলতে পেরেছি এবং ওরা তা শুনেওছে।” বীরভূম লোকসভা কেন্দ্রের সাংসদ শতাব্দী রায় এ প্রসঙ্গে বলেন, “সবথেকে বেশি ওনাকেই কথা বলার সুযোগ দেওয়া হয়েছে। তিনি বিভিন্ন রকম উন্নয়নমূলক কাজের জন্য প্রস্তাব দিয়েছেন।”

এ জেলায় বিরোধীরা বারবার অভিযোগ তোলে, কোনও প্রশাসনিক বিষয়ে তাদের ঢুকতেই দেওয়া হয় না। বীরভূমের তৃণমূল জেলা সভাপতি অনুব্রত মণ্ডলের দিকে এ নিয়ে তোপ দাগে তারা। এ জেলায় অনুব্রতর একচ্ছত্র দাপট চলে বলেও অভিযোগ তোলে বিরোধী শিবির। এ সবের মধ্যেই এদিন এই প্রশাসনিক বৈঠক সৌজন্যের এক মাত্রা যোগ করল বলেই দাবি রাজনৈতিক মহলের। আরও পড়ুন: এবার পার্ক হোটেলের জেনারেল ম্যানেজার-সহ ১০ জনকে তলব লালবাজারে

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla