‘সাংসদ গিয়ে হামের টিকা নিয়ে আসছে, কে বিশ্বাস করবে সরকারকে!’, কটাক্ষ দিলীপের

এদিন, উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে দিলীপ বলেন, "ভ্যাকসিন দুর্নীতি নিয়ে সত্য়িই কিছু বলার নেই। এই সরকারকে কে বিশ্বাস করবে। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে পাগল ছাড়া কেউ বিশ্বাস করে না। একজন সাংসদ তিনি গিয়ে করোনা ভ্য়াকসিনের বদলে হামের টিকা নিয়ে চলে আসছেন।"

'সাংসদ গিয়ে হামের টিকা নিয়ে আসছে, কে বিশ্বাস করবে সরকারকে!', কটাক্ষ দিলীপের
ফাইল চিত্র

পূর্ব মেদিনীপুর: করোনা টিকাকরণ নিয়ে রাজ্য দুর্নীতির অভিযোগ তো ছিলই, এ বার, কসবায় ভুয়ো টিকাপ্রদানকে কেন্দ্র করে তুঙ্গে রাজ্য-রাজ্যনীতি। খোদ, যাদবপুরের অভিনেত্রী সাংসদ মিমি চট্টোপাধ্যায় ভুয়ো টিকাকরণের সম্মুখীন হয়েছেন। কোভিশিল্ডের বদলে পেয়েছেন অ্যামিক্যাসিন। ভুয়ো স্বাস্থ্যকর্মী, ভুয়ো টিকাকরণ কেন্দ্র, ভুয়ো আইএএস দেবাঞ্জন দেব; সব মিলিয়ে আতঙ্কিত আমজনতা। এই পরিস্থিতিতে কার্যত রাজ্য সরকারকেই কাঠগড়ায় দাঁড় করিয়েছে বিরোধী শিবির। বৃহস্পতিবার, এগরায় ঢালাই রাস্তার উদ্বোধনে এসে সরাসরি সরকারকে নিশানা করলেন বিজেপি রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ।

এদিন, উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে দিলীপ বলেন, “ভ্যাকসিন দুর্নীতি নিয়ে সত্য়িই কিছু বলার নেই। এই সরকারকে কে বিশ্বাস করবে। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে পাগল ছাড়া কেউ বিশ্বাস করে না। একজন সাংসদ তিনি গিয়ে করোনা ভ্য়াকসিনের বদলে হামের টিকা নিয়ে চলে আসছেন। জয়লাভের পর এখানে লুঠ শুরু করেছে রাজ্য সরকার। রাজ্যে এতদিন টিকা নেই, টিকা নেই বলে চিৎকার করতেন মুখ্যমন্ত্রী। এখন রাজ্যে কত টিকা এসেছে, কতজন কত টিকা পেয়েছে তার হিসেব খতিয়ে দেখা হোক। ক্ষমতা থাকলে সরকার শ্বেতপত্র প্রকাশ করুক।” পাশাপাশি, যাঁরা বিদেশে যেতে পারছেন না, তাঁদের জন্য কোভিশিল্ড ও কোভ্যাক্সিন দুটোই যাতে চালু করা যায় সে বিষয়ে খতিয়ে দেখা হবে জানিয়েছেন বিজেপি নেতা।

সম্প্রতি, পাবলিক সার্ভিস কমিশন বা পিএসসি-র চেয়ারম্যান পদে অধুনা তৃণমূল নেতা মুকুল রায় মনোনয়ন জমা দিয়েছেন। সংবিধান মেনে ওই পদের অধিকারী হতে পারে বিরোধী শিবির। ফলে, পিএসসির চেয়ারম্যান পদ নিয়েও শাসক-বিরোধী তরজা শুরু হয়েছে। এ প্রসঙ্গে দিলীপবাবু বলেন, “পিএসসি পদ নিয়ে চালাকি করছেন মুখ্য়মন্ত্রী। সোজাসুজি বলতে পারেন এই পদ বিরোধীদের দেওয়া হবে না। মুকুল রায় তো নিজে ওঁর পার্টিতে যোগ দিয়েছেন। বিভ্রান্তিকর কথা বলছেন মমতা।”

আসন্ন পৌরসভা ও পঞ্চায়েত নির্বাচনের প্রসঙ্গে বর্ষীয়ান বিজেপি নেতা বলেন, “তৃণমূল অনেক প্রতিশ্রুতি দেয়। প্রতিশ্রুতি দিয়ে ভোট নেয়। আমাদের কর্মীরা এখনও ঘর ছাড়া। আদালতের নির্দেশও মানছে না সরকার। সময়ে মানুষ এর জবাব দেবে।” এদিনের অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন, বিজেপি সভাপতি অনুপ চক্রবর্তী-সহ অন্যান্য বিজেপি নেতৃত্বরা। এগরা ঝাটুলাল হাইস্কুলে এদিন একটি কর্মীসভাতেও অংশ নেন দিলীপ।

আরও পড়ুন: ‘কথা দিয়ে কথা রাখেনি’, রায়গঞ্জে ভাঙন পদ্মে, ঘর ভরল ঘাসফুলের

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla