Budget 2022: ‘প্রধানমন্ত্রীজী সাফ বলেছিলেন…’, আয়কর কাঠামো অপরিবর্তিত রাখার কারণ জানালেন অর্থমন্ত্রী

Income Tax: মঙ্গলবারের বাজেটে অর্থমন্ত্রী আয়করের উর্ধ্বসীমায় কোনও পরিবর্তনের ঘোষণা না করলেও, বিশেষভাবে সক্ষমদের ঋণের ক্ষেত্রে অতিরিক্ত সুবিধা, আয়কর রিটার্ন দাখিলের ক্ষেত্রে ভুল সংশোধনের সুযোগ ও সংশোধিত রিটার্ন দাখিলের জন্য দুই বছরের সময়সীমার কথা ঘোষণা করেন।

Budget 2022: 'প্রধানমন্ত্রীজী সাফ বলেছিলেন...', আয়কর কাঠামো অপরিবর্তিত রাখার কারণ জানালেন অর্থমন্ত্রী
করের কাঠামোয় কেন পরিবর্তন এল না, জানালেন অর্থমন্ত্রী। ছবি:PTI
TV9 Bangla Digital

| Edited By: ঈপ্সা চ্যাটার্জী

Feb 02, 2022 | 7:09 AM

নয়া দিল্লি: মঙ্গলে বাজেট (Budget 2022) পেশ করেছেন কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারামন(Nirmala Sitharaman)। তারপর থেকেই মিলছে মিশ্র প্রতিক্রিয়া। বিরোধী রাজনৈতিক দলগুলি যেমন এই বাজেটকে অন্তঃসারশূন্য বলে দাবি করেছেন, তেমনই সরকারের তরফে এই বাজেটকে উন্নয়নের দিশা প্রদর্শনকারী হিসাবেই অ্যাখ্যা দেওয়া হয়েছে। সাধারণ মানুষ ও করদাতারা আয়করে কিছু ছাড় মেলার আশা করলেও, এই প্রত্যাশা থাকলেও শেষ অবধি তা পূরণ হয়নি। তবে মধ্যবিত্তের ঘাড়ে অতিরিক্ত করের বোঝাও চাপায়নি সরকার। বাজেট পেশের পর সেই সিদ্ধান্তের কারণও জানালেন অর্থমন্ত্রী। তিনি বললেন, “প্রধানমন্ত্রীর (Narendra Modi) সাফ নির্দেশ ছিল করোনাকালে যেন কর না বাড়ানো হয়।”

বাজেট পেশের পরই দুপুরে সাংবাদিক বৈঠক করেন কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারামন। সেখানেই তিনি বাজেট নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা করেন, বাজেটে নেওয়া নানা সিদ্ধান্তের কারণ ও আগামিদিনে এর কী ফল মিলবে, সেই বিষয়ে কথা বলেন। আয়কর অপরিবর্তিত রাখার প্রসঙ্গ উঠতেই অর্থমন্ত্রী বলেন, “আমরা এই করোনাকালে কর বাড়াতে চাইনি। প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীজীর সাফ বার্তা ছিল যেন এই করোনা পরিস্থিতিতে করের বোঝা বাড়ানো না হয়। গত বছরও উনি একই নির্দেশ দিয়েছিলেন।”

বাজেট পেশ করার সময়ই অর্থমন্ত্রী বলেছিলেন, “সরকারের লক্ষ্য় হল করোনা অতিমারির জন্য যে ক্রমাগত বাধার সৃষ্টি হচ্ছে অর্থনীতিকে এবং মুদ্রাস্ফীতি বাড়ছে, তা রুখে দেশের অর্থনীতিকে এগিয়ে যাওয়ারজন্য প্রয়োজনীয় শক্তি জোগাতে।”

বর্তমানে দেশ স্বাধীনতার ৭৫ তম বর্ষ উদযাপন করছে। ‘আজাদি কা অমৃত মহোৎসবে’র উদযাপনও করা হচ্ছে কেন্দ্রের তরফে। এই বাজেট আগামী ২৫ বছরের দেশের অর্থনীতির নীল নকশা হতে চলেছে বলেই জানান অর্থমন্ত্রী। প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীও বাজেটের প্রশংসা করে বলেন, “এই বাজেট সকলের উপকার করবে, বিশেষত গরিব ও সমাজের পিছিয়ে পড়া শ্রেণির মানুষদের। নতুন বাজেটে পরিকাঠামো উন্নয়নের অনেক সুযোগ রয়েছে, তেমনই আবার বিনিয়োগ, সমৃদ্ধি ও আরও কর্মসংস্থানেরও সুযোগ রয়েছে। এই বাজেটের অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ দিকই ছিল গরিবদের উন্নয়ন।”

মঙ্গলবারের বাজেটে অর্থমন্ত্রী আয়করের উর্ধ্বসীমায় কোনও পরিবর্তনের ঘোষণা না করলেও, বিশেষভাবে সক্ষমদের ঋণের ক্ষেত্রে অতিরিক্ত সুবিধা, আয়কর রিটার্ন দাখিলের ক্ষেত্রে ভুল সংশোধনের সুযোগ ও সংশোধিত রিটার্ন দাখিলের জন্য দুই বছরের সময়সীমার কথা ঘোষণা করেন।

এছাড়াও কেন্দ্রীয় ও রাজ্য সরকারি কর্মীদের সুবিধা ও সুরক্ষা নিশ্চিত করতে, রাজ্য সরকারি কর্মীদের করের ছাড় ১০ শতাংশ থেকে বৃদ্ধি করে ১৪ শতাংশ করার কথাও জানান তিনি। ন্যাশনাল পেনশন স্কিমের অধীনে এতদিন কেন্দ্রীয় সরকারের কর্মীরা ১৪ শতাংশ ও রাজ্য সরকারি কর্মীরা ১০ শতাংশ হারে করে ছাড় পেতেন। এবার কেন্দ্র-রাজ্য সরকারি কর্মীদের মধ্যে বিভেদ দূর করতেই এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে বলে অর্থমন্ত্রী জানান।

আগামী ২০২২-২৩ অর্থবর্ষ থেকেই রিজার্ভ ব্যাঙ্ক অব ইন্ডিয়া দেশের নিজস্ব ডিজিটাল মুদ্রা আনবে ব্লকচেইনের ব্যবহার করে, একথাও জানান তিনি। একইসঙ্গে ডিজিটাল সম্পত্তির উপর ৩০ শতাংশ করের কথাও ঘোষণা করেন।

Follow us on

Related Stories

Most Read Stories

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla