সুস্থতা কমে অর্ধেক! সক্রিয় রোগীর সংখ্যা বাড়ল কোন অঙ্কে? রাজ্যের করোনা বুলেটিনে বিভ্রান্তি

রাজ্যের বর্তমান পজিটিভিটির হার ৮ শতাংশ। সুস্থতার হার পৌঁছে গিয়েছে প্রায় ৯৮ শতাংশে। কিন্তু এ দিনের বুলেটিনে কিছু হিসেব না মেলায় ব্যাপক বিভ্রান্তি ছড়াতে শুরু করেছে। 

সুস্থতা কমে অর্ধেক! সক্রিয় রোগীর সংখ্যা বাড়ল কোন অঙ্কে? রাজ্যের করোনা বুলেটিনে বিভ্রান্তি
ছবি-পিটিআই

কলকাতা: রাজ্যের করোনা বুলেটিনে বড় গড়মিলের অভিযোগ উঠেছে বৃহস্পতিবার। আর এই একই দিনে নতুন করে স্বস্তি দিয়েছে সংক্রমণের নিম্নমুখী হার। গত ২৪ ঘণ্টায় রাজ্যে আক্রান্ত হয়েছেন ৫ হাজারের সামান্য বেশি মানুষ। দৈনিক মৃত্যু ধীর গতিতে হলেও কমতে থাকায় তাতে স্বস্তি মিলেছে। রাজ্যের বর্তমান পজিটিভিটির হার ৮ শতাংশ। সুস্থতার হার পৌঁছে গিয়েছে প্রায় ৯৮ শতাংশে। কিন্তু এ দিনের বুলেটিনে কিছু হিসেব না মেলায় ব্যাপক বিভ্রান্তি ছড়াতে শুরু করেছে।

বৃহস্পতিবার রাজ্য স্বাস্থ্য দফতরের পক্ষ থেকে কোভিড বুলেটিনে জানানো হয়েছে, গত ২৪ ঘণ্টায় রাজ্যে করোনা আক্রান্ত হয়েছেন ৫ হাজার ২৭৪। গতকাল আক্রান্তের সংখ্যা ছিল ৫ হাজার ৩৮৪ জন। শেষ একদিনে মৃত্যু হয়েছে ৮৭ জনের। গতকাল এই মৃত্যুর সংখ্যা ছিল ৯৫। গত ২৪ ঘণ্টায় সক্রিয় আক্রান্তের ১৭ জন বেড়েছে। রাজ্যের বর্তমান সক্রিয় রোগীর সংখ্যা কমে হয়েছে ১৪ হাজার ৭১৯। একদিনে সুস্থ হয়েছেন ৫ হাজার ৭১০ জন। শেষ ২৪ ঘণ্টায় মোট ৬৬ হাজার ২৫৭ টি নমুনা পরীক্ষা হয়েছে।

যদিও গতকালকের সঙ্গে তুলনা করলে আজ রাজ্যের করোনা বুলেটিনে বেশ কিছু গড়মিল লক্ষ্য করা যাচ্ছে। যেমন গতকালের বুলেটিনে উল্লেখ করা হয়, একদিনে সুস্থ হয়েছেন ১০ হাজার ৫১২। সক্রিয় রোগীর সংখ্যা কমেছে ৫ হাজারের কিছু। এ দিন গণ্ডগোলের অভিযোগ ওঠার পরই একদিনে সুস্থতার হার কমে অর্ধেক হয়ে যেতে দেখা যাচ্ছে। একই সঙ্গে প্রত্যেকদিন যে সক্রিয় রোগীর সংখ্যা হাজারে হাজারে কমছিল, তা আজ আচমকাই সামান্য হলেও বেড়েছে।

আরও পড়ুন: অ্যাকটিভ কেস কী ভাবে ১৪,৭০০? করোনা নিয়ে তথ্য গরমিলের অভিযোগ উঠল রাজ্যের বিরুদ্ধে

আরও একটি বিষয় নজর কেড়েছে আজকের বুলেটিনে। তা হল- হোম কোয়ারেন্টাই রোগীর সংখ্যা একদিনে ৯৮,৫৯২ থেকে কমে ৬২৬৭ হয়ে গিয়েছে। অর্থাৎ একদিনেই সুস্থ হয়েছেন ৯২৩২৫ জন। অথচ দৈনিক বুলেটিনের সুস্থতার হারের কোনও প্রতিফলন নেই। ফলে কার্যত আসলে কতজন সুস্থ হয়েছেন, সক্রিয় আক্রান্তই বা কতজন, তা নিয়ে ধোঁয়াশা থাকছেই।

আরও পড়ুন: ‘ছোট ভাই’ রাজীবের বিলম্বিত ‘বোধদয়কে’ স্বাগত ফিরহাদের, সাফ হচ্ছে ঘরে ফেরার রাস্তা?