নওশাদ সিদ্দিকী

নওশাদ সিদ্দিকী

২০২১ সালের ২১ জানুয়ারি। পীরজাদা আব্বাস সিদ্দিকী বাংলায় বসেই ঘোষণা করলেন নতুন এক রাজনৈতিক দলের। নাম ইন্ডিয়ান সেকুলার ফ্রন্ট বা আইএসএফ (ISF)। আব্বাস জানালেন, এবার ভোটে লড়ছেন তাঁরা। হইহই পড়ে গিয়েছিল তখন। এরপর ভোট ঘোষণা, প্রার্থী তালিকা প্রকাশ। সেবার বাম-কংগ্রেস-আইএসএফ ব্রিগেডের মঞ্চ থেকে ঘোষণা করে সংযুক্ত মোর্চার। একুশের ভোটে আসন সমঝোতার মধ্যে দিয়ে এই তিন দল একসঙ্গে লড়াই করেছিল। মার্চ মাসের মাঝামাঝি আইএসএফ তাদের দ্বিতীয় দফায় প্রার্থী তালিকা প্রকাশ করে। সেখানে দক্ষিণ ২৪ পরগনার ভাঙড়ের প্রার্থী হিসাবে নাম উঠে আসে আব্বাসের ভাই মহম্মদ নওশাদ সিদ্দিকীর। রাজনীতিতে একেবারে নতুন মুখ। বয়স মাত্র ২৮ বছর। ২০১৫ সালে আলিয়া বিশ্ববিদ্যালয় থেকে এমএ পাশ করেন তিনি।

ভাঙড়ের মতো আসনে এমন একজনকে মুখ করায় বেশ চর্চাও হয়। এরপর নির্বাচন, ২০২১ সালের ২ মে ফলপ্রকাশ। সংযুক্ত মোর্চার একজন মাত্র প্রার্থীই জেতেন, নাম নওশাদ সিদ্দিকী। বিধানসভায় সেবার বাম-কংগ্রেস শূন্য। সংযুক্ত মোর্চার মুখ বাঁচিয়েছিলেন একমাত্র এই আনকোরা ছেলেটি। আর তাঁর হাত ধরেই বঙ্গ বিধানসভার অলিন্দে আইএসএফের পথ চলা শুরু। এরপর ধীরে ধীরে বাংলার রাজনীতিতে নওশাদ সিদ্দিকী অত্যন্ত তাৎপর্যপূর্ণ নাম হয়ে ওঠে। বিভিন্ন ইস্যুকে সামনে রেখে বিভিন্ন সময় পথে নামতে দেখা যায় তাঁকে। ২০২৩ সালের ২১ জানুয়ারি ধর্মতলায় আইএসএফের এক কর্মসূচি ঘিরে অশান্তির অভিযোগ ওঠে। নওশাদকে গ্রেফতার করেছিল কলকাতা পুলিশ। সেই ঘটনায় ৪০ দিন জেলে ছিলেন নওশাদ। কলকাতা হাইকোর্টের নির্দেশে ৪০ দিন পর জামিনে ছাড়া পান তিনি।

Read More

TMC vs ISF: ফের জ্বলল ভাঙড়, তৃণমূলের পার্টি অফিসে আগুন লাগিয়ে দেওয়ার অভিযোগ ISF এর বিরুদ্ধে

TMC vs ISF: পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে খবর গভীর রাতে ভাঙড়ের চালতাবেড়িয়া অঞ্চলের দক্ষিণ বামুনিয়েতে তৃণমূল কংগ্রেসের পার্টি অফিস ও এক তৃণমূল সামর্থকের মুদিখানার দোকানে আগুন লাগার ঘটনা ঘটে। তৃণমূল কংগ্রেসের দাবি, নেপথ্যে হাত রয়েছে আইএসএফের।

Nawsad Siddique: নন্দীগ্রামে রাস্তা আটকে বিক্ষোভ আইএসএফের, নওশাদের অনুরোধেই উঠল অবরোধ

Nandigram: নন্দীগ্রাম বাইপাসের ধারে একটি সভামঞ্চ তৈরি করা হয়েছিল। কিন্তু সেই মঞ্চ ও মাইক ভেঙে দেওয়ার অভিযোগে প্রতিবাদে সরব আইএসএফ শিবির। আইএসএফ শিবিরের অভিযোগ তৃণমূলের দিকে। ভাঙচুরের প্রতিবাদে পথ অবরোধ করে বিক্ষোভ দেখাতে শুরু করেন আইএসএফ কর্মী-সমর্থকরা।

ISF-TMC: ভাঙড়ে খেলাটা শেষ পর্যন্ত ঘুরিয়েই দিলেন শওকত?

ISF-TMC: চলতি বছরের শুরুতেই আইএসএফে ভাঙন দেখা গিয়েছিল ভাঙড়ে। শওকত মোল্লার হাত ধরে একশো জন আইএসএফ কর্মী যোগ দেন তৃণমূলে। পরবর্তীতে আবার মাস খানেক আগে পোলেরহাট ২ গ্রাম পঞ্চায়েত এলাকা থেকে কয়েকশো জমি কমিটির সদস্য ও আইএসএফ সমর্থকেরা যোগ দেন তৃণমূল কংগ্রেসে।

Election in Bhangar: দায়িত্ব পাওয়ার পর প্রথম ভোট, ‘অশান্ত’ ভাঙড়কে কতটা শান্ত করতে পারছে কলকাতা পুলিশ?

Election in Bhangar: যাদবপুর লোকসভার অন্তর্গত ভাঙড়। এই বছর কলকাতা পুলিশ সেই ভাঙড় নিজের হাতে পেয়ে কড়া নজরদারি শুরু করে দিয়েছে। পুলিশ সূত্রে খবর এখনও পর্যন্ত দশ দিনে ৮৬ বোমা সহ গ্রেফতার হয়েছেন ২৭ জন।

Nawsad siddique on Police: ‘দিস ইস নট ডান! সরকারি আধিকারিককে দালাল বলতে পারেন না’ পাল্টা SDPO-কে আঙুল উঁচিয়ে নওশাদ বললেন, ‘দালালকে দালালই বলব…’

Nawsad siddique: পুলিশ কর্মীদের উদ্দেশ্যে ভাঙড়ের বিধায়ককে বলতে শোনা যায়, "আপনি পুলিশ, পুলিশের মতোই কাজ করুন। তৃণমূলের হয়ে কাজ করবেন না। আপনি দালাল।" এরপর চিৎকার করে নওশাদ বলেন, "হাইকোর্ট এখনও বন্ধ হয়নি...।"

Srijan Bhattacharya: প্রচারে সৃজন, দেখা পেয়েই বাম-ISF জোট ভেস্তে যাওয়ায় বিমানকে কাঠগড়ায় তুললেন বৃদ্ধ

Srijan Bhattacharya: পঞ্চায়েত নির্বাচনের পরে ভাঙ্গড়ের রাজনীতিতে অনেক পট পরিবর্তন হয়েছে। গ্রেফতার হয়েছেন ভাঙড় দুই ব্লকের দাপুটে তৃণমূল নেতা আরাবুল ইসলাম। রাজ্য পুলিশের হাতে গ্রেফতার হওয়ার পর একের পর এক মামলার পাহাড় তাঁর বিরুদ্ধে।

Nawsad Siddique: ভাঙড়েই ‘সুপার ফ্লপ’? নওশাদের সভায় চেয়ারই ভরাতে পারল না আইএসএফ

Nawsad Siddique: মঙ্গলবার ভাঙড়ের সভায় নওশাদ ছাড়াও উপস্থিত ছিলেন যাদবপুর লোকসভা কেন্দ্রের আইএসএফ প্রার্থীও। ছিলেন জেলার অন্যান্য নেতারাও। তবু কেমন যেন ফাঁকা ফাঁকাই থেকে গেল সভাস্থল। আর এই নিয়ে ইতিমধ্য়েই খোঁচা দিতে শুরু করেছে তৃণমূল শিবির।

Naushad Siddiqui: ‘ভয় পেয়েই আইএসএফের সঙ্গে জোট করল না’, কার কথা বললেন নওশাদ?

Naushad Siddiqui: নওশাদ বলেন, "সংযুক্ত মোর্চার তরফে একমাত্র আইএসএফের বিধায়ক গিয়ে বিধানসভায় পারফর্ম করছে, একইভাবে লোকসভায় পারফর্ম করলে অন্যান্য রাজনৈতিক দল হয়ত ভেঙে পড়বে। তাদের কর্মী সমর্থকরা আইএসএফের দিকে চলে আসবে। সেই ভয়ে জোট করেনি কেউ।"

Naushad-Adhir: বহরমপুরে আইএসএফ প্রার্থী দিচ্ছে? নওশাদই কি ঘুরিয়ে দেবেন খেলা…

Baharampur: এ রাজ্যের ৪২টি লোকসভা কেন্দ্রের মধ্যে অন্যতম উল্লেখযোগ্য কেন্দ্র বহরমপুর। ১৯৯৯ সাল থেকে এই কেন্দ্রের সাংসদ অধীর চৌধুরী। বাম কিংবা তৃণমূলের উত্থানপর্বেও বহরমপুর লোকসভা কেন্দ্রে হাত লাগাতে পারেনি কেউ। সেই কেন্দ্রে এবার কাঁটে কা টক্কর।

ISF in Election: তৃণমূলের বিধায়কের দাদা আইএসএফ প্রার্থী?

ISF in Election: চলতি সপ্তাহ থেকেই মালদহ মুর্শিদাবাদ প্রচার শুরু করবেন নওশাদ সিদ্দিকী-সহ আই এস এফ নেতৃত্ব। রমজান ও ঈদ থাকায় কিছুটা প্রচার শ্লথ ছিল। এবার তেড়েফুঁড়ে প্রচার শুরু করতে চলেছে নওশাদ শিবির।