Corruption: কোথায় গেল বিধবা ভাতার ৪৬ লক্ষ টাকা! হাতেনাতে ধরলেন বিডিও

Corruption: গড়বেতা ১ নম্বর ব্লক পঞ্চায়েত সমিতির অস্থায়ী এক কর্মী অবিনেশ চন্দ্রকে গ্রেফতার করা হয়েছে। ১২ টি অ্যাকাউন্টে ওই টাকা রেখেছেন ওই ব্যক্তি।

Corruption: কোথায় গেল বিধবা ভাতার ৪৬ লক্ষ টাকা! হাতেনাতে ধরলেন বিডিও
উধাও একশো দিনের কাজের টাকা

গড়বেতা : বিধবা, বার্ধক্য এবং প্রতিবন্ধী ভাতার প্রায় ৪৬ লক্ষ টাকার কোনও খোঁজ পাওয়া যাচ্ছিল না। তদন্তে নেমে এক ব্যক্তিকে হাতেনাতে ধরল পুলিশ। মোট ১২ টি অ্যাকাউন্টে ওই টাকা আত্মসাক্ষ করে রেখে দিয়েছে ওই ব্যক্তি। বুধবার তাঁকে গ্রেফতার করা হয়েছে। পশ্চিম মেদিনীপুরের গড়বেতার ঘটনা।

ন্যাশনাল সোশ্যাল অ্যাসিস্ট্যান্ট প্রোগ্রামের (এন এস এ পি) বিধবা, বার্ধক্য এবং প্রতিবন্ধী ভাতার প্রায় ৪৬ লক্ষ টাকার হিসেব পাওয়া যাচ্ছিল না। এই মর্মে গড়বেতা থানায় চলতি বছরের সেপ্টেম্বর মাসে অভিযোগ জানিয়েছিলেন গড়বেতা ১ নম্বর পঞ্চায়েত সমিতির এক্সিকিউটিভ অফিসার তথা বিডিও সেক ওয়াসিম রেজা। সেই অভিযোগের ভিত্তিতেই গড়বেতা থানার পুলিশ বুধবার সন্ধেয় ওই ব্যক্তিকে গ্রেফতার করে। বৃহস্পতিবার ধৃতকে আদালতে তোলা হয়।

পুলিশ সূত্রে খবর, গড়বেতা এলাকা থেকেই গ্রেফতার করা হয়েছে অবিনাশ চন্দ্রকে। জানা গিয়েছে, গড়বেতা ১ ব্লক পঞ্চায়েত সমিতির ডিলিং অ্যাসিস্ট্যান্ট তথা অস্থায়ী কর্মী ছিলেন অবিনাশ চন্দ্র। তাঁর নামেই অভিযোগ জানিয়েছিলেন বিডিও। অভিযোগ ওই কর্মী নিজের, মায়ের, বাবার, গাড়ির চালকের সহ ১২ টি অ্যাকাউন্টে ওই টাকা আত্মসাৎ করে রেখে দেন। তদন্তে নেমে বিডিও এমনটাই জানতে পারেন।

প্রশাসনিক তদন্ত করার পরে বিষয়টি নিয়ে জেলা প্রশাসনের সঙ্গে কথা বলেন বিডিও। পরেই থানায় ওই কর্মীর নামে অভিযোগ জানিয়েছিলেন গড়বেতা ১ ব্লক বিডিও শেখ ওয়াসিম রেজা। সঙ্গে বিভাগীয় তদন্তের রিপোর্ট জমা দিয়েছেন বলেও জানা গিয়েছে। যে অ্যাকাউন্ট গুলিতে ওই টাকা গিয়েছে তার বিবরণ দিয়ে বিভাগীয় রিপোর্ট জমা দেওয়া হয়।

অবিনাশ চন্দ্রের বিরুদ্ধে ভারতীয় দণ্ডবিধির ৪০৩ এবং ৪০৯ ধারায় মামলা রুজু হয়েছে। জানা গিয়েছে পঞ্চায়েত সমিতির স্থায়ী সমিতির বৈঠকে সিদ্ধান্ত অনুযায়ী অবিনাশ চন্দ্রকে বরখাস্ত করা হয়েছে। পুলিশ ধৃতকে নিজেদের হেফাজতে নেওয়ার আবেদন জানিয়েছে।

পঞ্চায়েত সমিতির সহসভাপতি সেবাব্রত ঘোষ জানান, বিডিও ঘটনার কথা জানতে পেরেই এফআইআর করেন। সেই এফআইআর-এর ভিত্তি করেই গ্রেফতার কার হয়েছে অভিযুক্তকে। তঁর দাবি, গরিব মানুষের টাকা নিয়ে নিয়েছিল। তাই দোষীর শাস্তি হওয়া উচিৎ।

আরও পড়ুন : Exclusive: পিএইচডি ডিগ্রি ছাড়াই ইন্টারভিউয়ে ডাক! যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়ে অধ্যাপক নিয়োগে বড়সড় দুর্নীতি

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla