Rachana Banerjee: ভোটের ঠিক মুখেই চুঁচুড়ায় অডিশন! রচনার রিয়েলিটি শো ঘিরে তুমুল বিতর্ক হুগলিতে

Rachana vs Locket: চুঁচুড়ার রবীন্দ্রনগরে দেবীদাসতলার একটি স্টুডিওতে সকাল থেকে ভিড়। লাইন দিয়ে নাম নথিভুক্ত করছেন মহিলা। অভিযোগ, রচনা বন্দ্যোপাধ্যায়ের ছবি দিয়ে 'অডিশন চলছে' বলে হোর্ডিং লাগানো হয়েছে। উল্লেখ্য, হুগলি লোকসভা কেন্দ্রের মধ্যেই পড়ে চুঁচুড়া। আর হুগলি থেকে এবার তৃণমূলের টিকিটে ভোটে লড়ছেন রচনা বন্দ্যোপাধ্যায়। আর এই নিয়েই বিতর্ক দানা বেঁধেছে।

Rachana Banerjee: ভোটের ঠিক মুখেই চুঁচুড়ায় অডিশন! রচনার রিয়েলিটি শো ঘিরে তুমুল বিতর্ক হুগলিতে
লকেট বনাম রচনাImage Credit source: Twitter and Facebook
Follow Us:
| Edited By: | Updated on: May 15, 2024 | 6:59 PM

চুঁচুড়া: সামনেই হুগলির ভোট। ২০ মে ভোটগ্রহণ। আর ঠিক তার আগেই বুধবার চুঁচুড়ায় এক বেসরকারি টেলিভিশন চ্যানেলের জনপ্রিয় রিয়েলিটি শো’য়ের অডিশন ঘিরে বিতর্ক। আজ চুঁচুড়ার রবীন্দ্রনগরে দেবীদাসতলার একটি স্টুডিওতে সকাল থেকে ভিড়। লাইন দিয়ে নাম নথিভুক্ত করছেন মহিলা। অভিযোগ, রচনা বন্দ্যোপাধ্যায়ের ছবি দিয়ে ‘অডিশন চলছে’ বলে হোর্ডিং লাগানো হয়েছে। উল্লেখ্য, হুগলি লোকসভা কেন্দ্রের মধ্যেই পড়ে চুঁচুড়া। আর হুগলি থেকে এবার তৃণমূলের টিকিটে ভোটে লড়ছেন রচনা বন্দ্যোপাধ্যায়। আর এই নিয়েই বিতর্ক দানা বেঁধেছে। ভোটারদের প্রভাবিত করার চেষ্টার অভিযোগ তুলেছেন বিজেপি প্রার্থী লকেট চট্টোপাধ্যায়।

লকেট চট্টোপাধ্যায় বলেন, “রবীন্দ্রনগর পেট্রোল পাম্পের কাছে দিদি নম্বর ওয়ানের অডিশন চলছে। আমার কাছে কিছু ভিডিয়ো এসেছে। ভোটারদের কাছে তৃণমূলের জন্য ভোট চেয়ে দিদি নম্বর ওয়ানে সুযোগ করে দেওয়ার ব্যবস্থার কথা বলা হচ্ছে। ভেবে দেখুন, তৃণমূল কতটা ফেক। এই অডিশন অবিলম্বে বন্ধ করা হোক।” এই নিয়ে এক্স হ্যান্ডেলেও সরব হয়েছেন হুগলির বিদায়ী সাংসদ তথা বিজেপি প্রার্থী। সঙ্গে একটি ভিডিয়োও শেয়ার করেছেন লকেট।

যদিও ভোটারদের প্রভাবিত করার যে অভিযোগ লকেট তুলছেন, তা পুরোপুরি উড়িয়ে দিয়েছেন তৃণমূল প্রার্থী। রচনা বন্দ্যোপাধ্যায়ের বক্তব্য, “সব মিথ্যা কথা। মিথ্যা প্রোপাগান্ডা করছে। এসব কিচ্ছু নয়। যেহেতু দিদি নম্বর ওয়ান ৩৬৫ দিনের শো… আমি সারাদিন প্রচার করছি, তারপর রাত্রে গিয়ে শ্যুটিং করছি। আমার পক্ষে কলকাতায় যাতায়াত করা সম্ভব নয়, তাই আমাকে রাত্রে কাজ করতে হচ্ছে। এর সঙ্গে তৃণমূলের কোনও সম্পর্ক নেই, ভোটের কোনও ব্যাপার নেই। নর্মালভাবেই আমাদের কাজ হচ্ছে।” লকেটকে পাল্টা দিয়ে রচনা বলেন, ‘এসব বাজে কথা বলতে বারণ করুন। ভোট এসে গিয়েছে। এসব ফালতু কথা বলে ইমেজ তৈরির কোনও মানে নেই।’