CM Mamata Banerjee: ‘সন্দেশখালির আসল তথ্য ফাঁস হয়েছে’, চাকদহ থেকে ফুঁসে উঠলেন মমতা

CM Mamata Banerjee: অন্যদিকে সন্দেশখালির ভাইরাল ভিডিয়ো নিয়েও আগে ফেসবুকে পোস্টও করেন মমতা। সেখানেও আক্রমণ করেন পদ্ম শিবিরকে। সাফ লেখেন, বিজেপির বাংলার প্রগতিশীল ভাবনা, সংস্কৃতি নিয়ে ঘৃণা রয়েছে। ইতিহাসে লেখা থাকবে বাংলা কীভাবে এই যড়যন্ত্রের প্রতিরোধ করেছিল।

CM Mamata Banerjee: ‘সন্দেশখালির আসল তথ্য ফাঁস হয়েছে’, চাকদহ থেকে ফুঁসে উঠলেন মমতা
মমতা বন্দ্যোপাধ্য়ায় Image Credit source: TV-9 Bangla
Follow Us:
| Edited By: | Updated on: May 04, 2024 | 5:05 PM

চাকদহ: একটা ভিডিয়ো। তাতেই তোলপাড় রাজ্য-রাজনীতি। সন্দেশখালিতে (Sandeshkhali) মহিলাদের উপর নাকি নির্যাতন করাই হয়নি। বলছেন বিজেপি-র মণ্ডল সভাপতি। মহিলাদের শিখিয়ে বুঝিয়ে ধর্ষণের অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে। কী বলতে হবে, কী কী করতে সবটা শেখানো হয়েছে, ট্রেনিং দেওয়া হয়েছে। ধর্ষণের অভিযোগ সাজিয়ে তৃণমূল নেতাদের গ্রেফতার করা হয়। মহিলাদের ট্রেনিং দেওয়া হয়েছে। ঠিক এই কথাগুলোই ওই বিজেপি নেতাকে বলতে শোনা যাচ্ছে ওই ভিডিয়োতে। যদিও এই ভিডিয়োর সত্যতা যাচাই করেনি টিভি-৯ বাংলা। এদিকে এই ভিডিয়ো সামনে আসার পরই বিজেপির বিরুদ্ধে আক্রমণ শানাতে মাঠে নেমে পড়েছেন তৃণমূল নেতারা। চকদহের সভা থেকেও সুর চড়িয়েছেন তৃণমূল সুপ্রিমো মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ও। 

চাকদহ থেকে মমতা বলেন, “সন্দেশখালি নিয়ে ভাল নাটক তৈরি করেছিলেন। আসল তথ্য ফাঁস হয়ে গিয়েছে। আমি অনেকদিন ধরেই আপনাদের বলছিলাম এটা পরিকল্পনা। বিজেপির তৈরি করা নাটক।”  

একইসঙ্গে চাকদহের সভা থেকে সুর চড়িয়েছেন রাজ্যপালের বিরুদ্ধে ওঠা অভিযোগ নিয়েও। চাঁচাছোলা ভাষায় আক্রমণ শানিয়ে বলেন, “রাজ্যপালের কীর্তিকলাপ দেখছেন। রাজভবনের কর্মচারীদের সঙ্গে কী সব করছে। মেয়েদের ডেকে নিয়ে শ্লীলতাহানি করছেন। আর প্রধানমন্ত্রী তাঁর বাড়িতে রাত্রি যাপন করে চলে গেলেন।”

অন্যদিকে সন্দেশখালির ভাইরাল ভিডিয়ো নিয়েও আগে ফেসবুকে পোস্টও করেন মমতা। সেখানেও আক্রমণ করেন পদ্ম শিবিরকে। সাফ লেখেন, বিজেপির বাংলার প্রগতিশীল ভাবনা, সংস্কৃতি নিয়ে ঘৃণা রয়েছে। ইতিহাসে লেখা থাকবে বাংলা কীভাবে এই যড়যন্ত্রের প্রতিরোধ করেছিল। মমতার পাশাপাশি সুর চড়িয়েছেন তৃণমূলের সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ও। সাফ বলেন, সন্দেশখালির ওই ভিডিয়ো দেখে আমি বাকরুদ্ধ। সব নাগরকিকের বিজেপির এই ষড়যন্ত্রের ছবি প্রত্যক্ষ করা উচিত। দেখা উচিত কীভাবে বাংলার ভাবমূর্তি নষ্ট করা হচ্ছে।