Before Joining Gym Tips: মেদ ঝরাতে দিনরাত জিম করছেন, হার্টের চেকআপ করিয়েছেন কি?

TV9 Bangla Digital

TV9 Bangla Digital | Edited By: megha

Updated on: Jan 24, 2023 | 9:30 AM

Heart Scan: শরীরচর্চা করার সময় শরীরে ক্যালশিয়ামজাত 'প্লাক' জমতে থাকে। যা হৃদরোগের আশঙ্কা বাড়িয়ে দেয়।

Before Joining Gym Tips: মেদ ঝরাতে দিনরাত জিম করছেন, হার্টের চেকআপ করিয়েছেন কি?
হার্টের স্ক্যান না করিয়েই জিম করছেন? হতে পারে বড় বিপদ

বর্তমানে বাড়তি মেদ ঝরানোর তাগিদে অনেকেই জিমে (Gym) ছোটেন। কম সময়ে ওজন ঝরানোর (Weight Reduction) জন্য সাত পাঁচ না ভেবেই আজকাল এই পথটি বেঁছে নেন বেশীরভাগ লোকজন। তবে বিশেষজ্ঞরা বলছেন শারীরিক পরীক্ষা না করেই জিম করলে বাড়তে পারে বিপদ। জিম করার সময় কার্ডিয়াক অ্যারেস্টের (Cardiac Arrest) ঘটনা বিরল নয়। বিগত বেশ কিছু বছরে জিম করার সময় অসুস্থ হয়ে মৃত্যুর ঘটনা বেড়েছে কয়েক গুণে। পর্যাপ্ত সতর্কতা অবলম্বন না করার জন্যই এই ঘটনা ঘটছে বলে মনে করছেন বিশেষজ্ঞরা। জিম করার আগে একবার শারীরিক পরীক্ষা-নিরীক্ষা করিয়ে নেওয়ার পরামর্শ দিচ্ছেন তাঁরা।

কোমরবিড সমস্যা না থাকলে হাঁটা, সাঁতার কাটার মতো সাধারণ শরীরচর্চার জন্য বিশেষজ্ঞর পরামর্শ না নিলেও চলবে। তবে যেকোনও ধরণের কঠিন ব্যায়াম করার আগে অবশ্যই একবার চিকিৎসকের পরামর্শ নিন। কারণ এই ধরণের শরীরচর্চার ফলে হার্ট অ্যাটাকের ঝুঁকি বাড়ে। শরীরচর্চা করার সময় শরীরে ক্যালশিয়ামজাত ‘প্লাক’ জমতে থাকে। যা হৃদরোগের আশঙ্কা বাড়িয়ে দেয়। জমা ‘প্লাক’ গুলি হৃদযন্ত্রে রক্ত সরবরাহকারী ধমনীর পথে বাধা হয়ে দাঁড়ায়। কারণ ধমনীর মুখ ক্রমশ সরু হতে থাকে ফলে রক্ত সঞ্চালন বাধাপ্রাপ্ত হয়। এই সময় শরীরচর্চা করলে হৃদরোগে আক্রান্ত হওয়ার সম্ভাবনা বৃদ্ধি পায়। শুধু জিম নয়, যেকোনও ধরণের শরীরচর্চা করার আগেই চিকিৎসকের পরামর্শ নেওয়া দরকার।

আর যদি আপনার পরিবারে হৃদরোগে আক্রান্ত হওয়ার ইতিহাস থাকে তবে জিমে ভর্তি হওয়ার আগে অবশ্যই চিকিৎসকের পরামর্শ নিন এবং হার্ট স্ক্যান করান। সতর্কতা অবলম্বন করুন নইলে নিজের বিপদ নিজেই ডেকে আনবেন। বিশেষজ্ঞরা পরামর্শ দিচ্ছেন, যেকোনও ধরণের কঠিন শরীরচর্চা করার আগে স্ক্যান, টিএমটি (ট্রেডমিল টেস্ট), ইসিজির (ইলেক্টোকার্ডিয়োগ্রাম)  মতো শারীরিক পরীক্ষা গুলি করিয়ে নিতে। জিমে ভর্তি হওয়ার আগে পারলে ‘করোনারি ক্যালশিয়াম স্ক্যান’ করিয়ে নিন এতে ধমনীর মধ্যে থাকা ‘প্লাকের’ অবস্থা বোঝা যায়।  চাইলে একবার রক্তে কোলেস্টেরলের মাত্রা ও শর্করার মাত্রাও মেপে নিন। বাড়তি ওজন কমাতে গিয়ে বাড়তি বিপদ ডেকে আনার আগে সবরকম সতর্কতা অবলম্বন করুন। চিকিৎসকের পরামর্শ মতো জিম করুন ও মেদ ঝরান।

এই খবরটিও পড়ুন

Disclaimer: এই প্রতিবেদনটি শুধুমাত্র তথ্যের জন্য, কোনও ওষুধ বা চিকিৎসা সংক্রান্ত নয়। বিস্তারিত তথ্যের জন্য আপনার চিকিৎসকের সঙ্গে পরামর্শ করুন।

Latest News Updates

Follow us on

Related Stories

Most Read Stories

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla