‘ভূতেরা কখনও মরে না’, বামেদের কটাক্ষ বিপ্লব দেবের

সামনেই ভোট। তার আগে এভাবেই শাসক-বিরোধী একে অপরের বিরুদ্ধে আক্রমণ শানাচ্ছেন।

'ভূতেরা কখনও মরে না', বামেদের কটাক্ষ বিপ্লব দেবের
ছবি- পিটিআই

আগরতলা: সামনেই ত্রিপুরার আদিবাসী কাউন্সিলের ভোট। আর সেই ভোট যতই এগিয়ে আসছে, ততই শাসক-বিরোধীর মধ্যে বাড়ছে চাপান-উতোর। রাজ্যে বহু বছর ধরে ক্ষমতায় থাকা বামেদের শাসনের অবসান ঘটিয়ে ক্ষমতায় আসে বিজেপি। মুখ্যমন্ত্রী হন বিপ্লব দেব। তিনি আগে দাবি করেছেন যে, রাজ্যে সিপিএমের কোনও চিহ্ন নেই। এবার সেই বিপ্লব দেব দাবি করলেন, ‘ভূতেরা কখনও মরে না’। বামেদের অস্তিত্বের কথা ভুললে চলবে না, কর্মীদের মনে করিয়ে দিলেন এ কথা।

রবিবার ত্রিপুরার ঢালাই জেলায় ভোট প্রচারে বেরিয়ে ছিলেন বিপ্লব দেব। সেখানে বিজেপি কর্মীদের বার্তা দিয়ে তিনি বলেন, তাঁরা যেন না ভাবেন যে রাজ্যে বামেদের কোনও অস্তিত্ব নেই। তিনি বলেন, ‘যদি মনে করেন যে সিপিএম রাজ্যে তার অস্তিত্ব হারিয়েছে, তাহলে মনে রাখবেন ভূতেরা কখনও মরে না।’

তাঁর এই কথায় কড়া প্রতিক্রিয়া দিয়েছে বামেরা। সিপিএমের রাজ্য কমিটির সদস্য পবিত্র কর বলেন, ঠিক তিন মাস আগে আম্বাসার একটি জনসভা থেকে বিপ্লব দেব দাবি করেছিলেন ত্রিপুরায় বামেদের কোনও অস্তিত্ব নেই। এবার তিনি অস্তিত্বের কথাই কার্যত মেনে নিলেন। তাঁর দাবি ত্রিপুরার গ্রামে গ্রামে এখনও বামেদের প্রতি সমান সমর্থন রয়েছে।

২০ বছর ধরে ত্রিপুরায় ক্ষমতায় ছিল বামেরা। মুখ্যমন্ত্রীর আসনে ছিলেন মানিক সরকার। ২০১৮-তে ত্রিপুরায় ক্ষমতায় আসে বিজেপি। আর তিন বছর ধরে মুখ্যমন্ত্রী বিপ্লব দেবের নেতৃত্বাধীন সরকার চলছে সে রাজ্যে। কয়েক দিন আগেই বিজেপি সরকারের বিরুদ্ধে সরব হন বাম নেতা মানিক সরকারও। বিজেপি আমলে গণতন্ত্র রক্ষা হচ্ছে না বলে মন্তব্য করেন তিনি।

ত্রিপুরা বিধানসভার বিরোধী নেতা মানিক সরকার এক জনসভা থেকে বলেন, রাজ্যে বিরোধীদের উপর অত্যাচারের ঘটন বেড়েই চলেছে। বার বার রাজ্যপাল ও মুখ্যমন্ত্রীর কাছে সাহায্য চেয়েও কোনও লাভ হয়নি। তাঁর অভিযোগ, রাজ্যে সিপিএম নেতা, রাজ্যসভার সাংসদ ও বর্ষীয়ান নেতাদের নিজেদের এলাকায় প্রবেশ করতে দেওয়া হচ্ছে না। কার্যত সংবিধানের দম বন্ধ করে দেওয়া হচ্ছে বলে অভিযোগ তোলেন তিনি।

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla