Calcutta High Court: কৃষকদের শস্য পিছু ন্যায্য মূল্য দেওয়া হচ্ছে কি? রিপোর্ট তলব হাইকোর্টের

Fair Price of Crops: কেন্দ্রকে শস্যের ন্যায্য মূল্য সংক্রান্ত রিপোর্ট পেশ করার নির্দেশ দিয়েছে কলকাতা হাইকোর্টের প্রধান বিচারপতির ডিভিশন বেঞ্চ।

Calcutta High Court: কৃষকদের শস্য পিছু ন্যায্য মূল্য দেওয়া হচ্ছে কি? রিপোর্ট তলব হাইকোর্টের
কলকাতা হাইকোর্টে গুরুত্বপূর্ণ পর্যবেক্ষণ (ফাইল ছবি)।

কলকাতা : এই বছর কৃষকদের শস্য পিছু ন্যায্য মূল্য দেওয়া হচ্ছে কি? রিপোর্ট তলব করল কলকাতা হাইকোর্ট (Calcutta High Court)। ফসলের ন্যায্য মূল্য না পেয়ে ২০১২ সালে ৪৮ জন কৃষক আত্মঘাতী হয়েছিলেন। তাদের এখনও পর্যন্ত ক্ষতিপূরণ দেওয়া হয়নি। সেই বিষয়ে আগামী ২ ফেব্রুয়ারি শুনানি হবে আদালতে। এর মধ্যে কেন্দ্রকে শস্যের ন্যায্য মূল্য সংক্রান্ত রিপোর্ট পেশ করার নির্দেশ দিয়েছে কলকাতা হাইকোর্টের প্রধান বিচারপতির ডিভিশন বেঞ্চ।

উল্লেখ্য, শুধুমাত্র ২০১২ সালেই ফসলের ন্যায্য মূল্য না পেয়ে ৪৮ জন কৃষক আত্মহত্যা করেছিলেন। সেই ক্ষতিপূরণের অর্থ এখনও দেওয়া হয়নি। শস্য পিছু ফসলের ন্যায্য মূল্য সংক্রান্ত বিষয়ে কলকাতা হাইকোর্ট মামলা রুজু করেছিলেন রবিশঙ্কর চট্টোপাধ্যায় নামে এক জনৈক ব্যক্তি। সে মামলার শুনানির সময় আজ প্রধান বিচারপতি প্রশ্ন করেন, এই বছর কেন্দ্র ফসলের ন্যায্য মূল্য হিসেবে কত টাকা দিয়েছে। সেই সংক্রান্ত এই রিপোর্টও পেশ করতে বলা হয়েছে।

একইসঙ্গে কৃষকদের অ্যাকাউন্টে সরাসরি টাকা দেওয়ার যে কথা কেন্দ্র বলে আসছে, সেই টাকা এখনও অনেকের কাছে পৌঁছায়নি বলে দাবি করছে রাজ্য। রাজ্যের বক্তব্য, একাধিকবার চিঠি দেওয়ার পরেও তা নিয়ে কোনও ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে না।

কৃষকদের ন্যূনতম সহায়ক মূল্যের দাবিতে বার বার কেন্দ্রের বিরুদ্ধে সরব হয়েছে বিরোধীরা। কৃষকদের যে একাংশ এখনও বিক্ষোভ চালিয়ে যাচ্ছে, তাদেরও বক্তব্য, কৃষকদের ফসলের ন্যূনতম সহায়ক মূল্য নিশ্চিত করতে একটি আইন তৈরি করতে হবে।

উল্লেখ্য, কিছুদিন আগেই প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী বলেছিলেন, “দেশের অধিকাংশ মানুষের কাছেই হয়তো এই কথাটি অজানা যে, আমাদের দেশের ১০০ জন কৃষকের মধ্যে ৮০ জনই ছোট কৃষক। তাদের কাছে দুই হেক্টরেরও কম জমি রয়েছে। এই ছোট কৃষকদের সংখ্যা ১০ কোটিরও বেশি। আমরা কৃষকদের উন্নয়ন ও মঙ্গল কামনাতেই সয়েল হেলথ কার্ড,  ইউরিয়া, উন্নত মানের বীজ প্রদান করে কৃষিকাজে যথাসাধ্য় সাহায্য করেছি। ফসল বীমা যোজনার অধীনে আরও কৃষকদের আনা হয়েছে। এরফলে বিগত চার বছরে ১ লক্ষ কোটি টাকার ক্ষতিপূরণ পেয়েছে কৃষকরা।”

তিনি আরও বলেছিলেন, “আমরা প্রধানমন্ত্রী কিষান সম্মান নিধির মাধ্যমে কৃষকদের ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্টে সরাসরি টাকা পাঠানোর ব্যবস্থা করেছি। এখনও পর্যন্ত ১ কোটি ৬২ লাখ টাকা কৃষকদের ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্টে পাঠানো হয়েছে।”

আরও পড়ুন : Rajyasabha: ‘বরখাস্ত হওয়ার পরও সাংসদদের কোনও অনুতাপ নেই’, সাজা প্রত্যাহারে ‘না’ নাইডুর

আরও পড়ুন: Chidambaram slam center: বিতর্ক ছাড়াই কৃষি আইন প্রত্যাহার নিয়ে প্রধানমন্ত্রীকে কটাক্ষ কংগ্রেস নেতা চিদম্বরমের

আরও পড়ুন: ভাইরাল অডিয়ো: কুণাল ঘোষের হাত থেকে উত্তরীয় পরা ‘দাদার অনুগামী’-কে দলে নিতে নিমরাজি তৃণমূল!

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla