Indian Railway: দিল্লি স্টেশনে চোখ ধাঁধানো বিশ্বামানের এক্সিকিউটিভ লাউঞ্জ, দেখে নিন ছবি

IRCTC Lounge দিল্লিতে রেলের অধীনস্থ সংস্থা আইআরসিটিসি নির্মিত এটি দ্বিতীয় এক্সিকিউটিভ লাউঞ্জ। ২০১৬ সাল থেকে বিভিন্ন রেলওয়ে স্টেশনে এই রকম লাউঞ্জ চালায় আইআরসিটিসি

1/6
নয়া দিল্লি রেলওয়ে  স্টেশনে (New Delhi Railway Station) এখন থেকে মিলবে বিমানবন্দরের মতো পরিষেবা। বিশ্বমানের এক্সিকিউটিভ লাউঞ্জ (Executive Lounge) নির্মাণ করেছে ভারতীয় রেলের (Indian Railway) অধীনস্থ সংস্থা আইআরসিটিসি (IRCTC)। স্টেশনে অপেক্ষারত যাত্রীদের স্বাচ্ছ্যন্দের কথা মাথায় রেখেই  তৈরি করা হয়েছে আধুনিক সুযোগ সুবিধা যুক্ত ঝাঁ চকচকে এই এক্সিকিউটিভ লাউঞ্জ। নয়া দিল্লি রেলওয়ে স্টেশনের ১ নম্বর প্ল্য়াটফর্মের দ্বিতলে রয়েছে অত্যাধুনিক এই লাউঞ্জ। ছবি টুইটার
নয়া দিল্লি রেলওয়ে স্টেশনে (New Delhi Railway Station) এখন থেকে মিলবে বিমানবন্দরের মতো পরিষেবা। বিশ্বমানের এক্সিকিউটিভ লাউঞ্জ (Executive Lounge) নির্মাণ করেছে ভারতীয় রেলের (Indian Railway) অধীনস্থ সংস্থা আইআরসিটিসি (IRCTC)। স্টেশনে অপেক্ষারত যাত্রীদের স্বাচ্ছ্যন্দের কথা মাথায় রেখেই তৈরি করা হয়েছে আধুনিক সুযোগ সুবিধা যুক্ত ঝাঁ চকচকে এই এক্সিকিউটিভ লাউঞ্জ। নয়া দিল্লি রেলওয়ে স্টেশনের ১ নম্বর প্ল্য়াটফর্মের দ্বিতলে রয়েছে অত্যাধুনিক এই লাউঞ্জ। ছবি টুইটার
2/6
নব নির্মিত এই রেলওয়ে স্টেশনে মিলবে ম্যাসাজ চেয়ার, গান শোনার মতো বিভিন্ন পরিষেবা। এই লাউঞ্জে রয়েছে একটি আধুনিক প্রযুক্তি নির্ভর একটি বিজনেস সেন্টার (Business Center)। যদি কোনও যাত্রীর নিজের অফিসের কাজ করার জন্য ইন্টারনেট (Internet) সংযোগযুক্ত কমপিউটারের (Computer) প্রয়োজন হয়, তবে তিনি বিজনেস সেন্টার ব্যবহার করতে পারবেন। টিভি ও ওয়াইফাইয়ের (WiFi) মতো পরিষেবাও মিলবে এখানে। ছবি টুইটার
নব নির্মিত এই রেলওয়ে স্টেশনে মিলবে ম্যাসাজ চেয়ার, গান শোনার মতো বিভিন্ন পরিষেবা। এই লাউঞ্জে রয়েছে একটি আধুনিক প্রযুক্তি নির্ভর একটি বিজনেস সেন্টার (Business Center)। যদি কোনও যাত্রীর নিজের অফিসের কাজ করার জন্য ইন্টারনেট (Internet) সংযোগযুক্ত কমপিউটারের (Computer) প্রয়োজন হয়, তবে তিনি বিজনেস সেন্টার ব্যবহার করতে পারবেন। টিভি ও ওয়াইফাইয়ের (WiFi) মতো পরিষেবাও মিলবে এখানে। ছবি টুইটার
3/6
যাত্রীদের এই এক্সিকিউটিভ লাউঞ্জে প্রবেশের জন্য  কর সহ ১৫০ টাকার প্রবেশমূল্য দিতে হবে। এবং প্রত্যেক অতিরিক্ত ঘণ্টার জন্য ৯৯ টাকা চার্জ নেওয়া হবে। এই লাউঞ্জটি দিনে  সর্বক্ষণের জন্য খোলা থাকবে। প্রবেশমূল্য দেওয়ার মাধ্যমে বসার সুবিধা ছাড়াও মিলবে ওয়াইফাই, বিভিন্ন পত্র পত্রিকা পড়া ও বিনামূল্যে চা বা কফির মতো পরিষেবা। ছবি টুইটার
যাত্রীদের এই এক্সিকিউটিভ লাউঞ্জে প্রবেশের জন্য কর সহ ১৫০ টাকার প্রবেশমূল্য দিতে হবে। এবং প্রত্যেক অতিরিক্ত ঘণ্টার জন্য ৯৯ টাকা চার্জ নেওয়া হবে। এই লাউঞ্জটি দিনে সর্বক্ষণের জন্য খোলা থাকবে। প্রবেশমূল্য দেওয়ার মাধ্যমে বসার সুবিধা ছাড়াও মিলবে ওয়াইফাই, বিভিন্ন পত্র পত্রিকা পড়া ও বিনামূল্যে চা বা কফির মতো পরিষেবা। ছবি টুইটার
4/6
এক্সিকিউটিভ লাউঞ্জটিতে বসার জন্য বিলাসবহুল সোফা, জিনিসপত্র রাখার জন্য পর্যাপ্ত জায়গা, বিশ্রামের জন্য ঘর, জামাকাপড় বদলের জন্য আলাদা ঘরের মতো সুযোগ সুবিধা মিলবে। সব মিলিয়ে গাঁটের কড়ি খরচ করলে বিমান বন্দরের মতো যাবতীয় সুবিদা পাওয়া যাবে। ছবি টুইটার
এক্সিকিউটিভ লাউঞ্জটিতে বসার জন্য বিলাসবহুল সোফা, জিনিসপত্র রাখার জন্য পর্যাপ্ত জায়গা, বিশ্রামের জন্য ঘর, জামাকাপড় বদলের জন্য আলাদা ঘরের মতো সুযোগ সুবিধা মিলবে। সব মিলিয়ে গাঁটের কড়ি খরচ করলে বিমান বন্দরের মতো যাবতীয় সুবিদা পাওয়া যাবে। ছবি টুইটার
5/6
রেলের অধীনস্থ সংস্থা আইআরসিটিসি-র এই লাউঞ্জটি নির্মাণের পিছনে মূল কারণ ছিল স্বল্প খরচে যাত্রীদের পরিষ্কার পরিচ্ছন্ন পরিবেশে প্রয়োজনীয় পরিষেবা প্রদান করা। এই লাউঞ্জে পুরুষ ও মহিলাদের জন্য পৃথক আধুনিক মানের শৌচাগারের  বন্দোবস্ত রয়েছে। এবং সেখানে উন্নতমানের যাবতীয় প্রয়োজনীয় জিনিসপত্র মজুত করা রয়েছে। ছবি টুইটার
রেলের অধীনস্থ সংস্থা আইআরসিটিসি-র এই লাউঞ্জটি নির্মাণের পিছনে মূল কারণ ছিল স্বল্প খরচে যাত্রীদের পরিষ্কার পরিচ্ছন্ন পরিবেশে প্রয়োজনীয় পরিষেবা প্রদান করা। এই লাউঞ্জে পুরুষ ও মহিলাদের জন্য পৃথক আধুনিক মানের শৌচাগারের বন্দোবস্ত রয়েছে। এবং সেখানে উন্নতমানের যাবতীয় প্রয়োজনীয় জিনিসপত্র মজুত করা রয়েছে। ছবি টুইটার
6/6
এই এক্সিকিউটিভ লাউঞ্জটিতে বিভিন্ন আমিষ ও নিরামিষ খাবার পাওয়া যাবে। আমিষ মিলের দাম ৩৮৫ টাকা ও নিরামিষ মিলের দাম ২৫০ টাকা। দিল্লিতে রেলের অধীনস্থ সংস্থা আইআরসিটিসি নির্মিত এটি দ্বিতীয় এক্সিকিউটিভ লাউঞ্জ। ২০১৬ সাল থেকে বিভিন্ন রেলওয়ে স্টেশনে এই রকম লাউঞ্জ চালায় আইআরসিটিসি ছবি টুইটার
এই এক্সিকিউটিভ লাউঞ্জটিতে বিভিন্ন আমিষ ও নিরামিষ খাবার পাওয়া যাবে। আমিষ মিলের দাম ৩৮৫ টাকা ও নিরামিষ মিলের দাম ২৫০ টাকা। দিল্লিতে রেলের অধীনস্থ সংস্থা আইআরসিটিসি নির্মিত এটি দ্বিতীয় এক্সিকিউটিভ লাউঞ্জ। ২০১৬ সাল থেকে বিভিন্ন রেলওয়ে স্টেশনে এই রকম লাউঞ্জ চালায় আইআরসিটিসি ছবি টুইটার

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla