UP Assembly Election: ভোটের আগে জোট! যোগীকে ধাক্কা দিতে হাতে হাত অখিলেশ-পওয়ারের

UP Assembly Election: নবাব মালিক বলেন, "আমরা সমাদবাদী পার্টির সঙ্গে উত্তর প্রদেশ বিধানসভা নির্বাচনে লড়াই করার সিদ্ধান্ত নিয়েছি। একটি আসন ইতিমধ্যেই ঘোষণা হয়ে গিয়েছে এবং বাকি আসনগুলি নিয়ে আলোচনা চলছে।

UP Assembly Election: ভোটের আগে জোট! যোগীকে ধাক্কা দিতে হাতে হাত অখিলেশ-পওয়ারের
ছবি: ফাইল চিত্র

লখনউ: ফেব্রুয়ারি মাসেই উত্তর প্রদেশ বিধানসভা নির্বাচন। নির্বাচনের আগে নিজেদের মত রণকৌশন তৈরি করতে ব্যস্ত রাজনৈতিক দলগুলি। নির্বাচনের আগে উত্তর প্রদেশে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে শরদ পওয়ারের (Sharad Pawar) ন্যাশানালিস্ট কংগ্রেস পার্টি বা এনসিপি (NCP)। জানা গিয়েছে উত্তর প্রদেশ বিধানসভা নির্বাচনে এবার অখিলেশ যাদবের (Akhilesh Yadav) সমাজবাদী পার্টির (Samajwadi Party) সঙ্গে জোটবদ্ধ হয়েই বিজেপির বিরুদ্ধে লড়াই করবে এনসিপি। জানা গিয়েছে আসন সমঝোতা নিয়ে ইতিমধ্যেই দুই দলের মধ্যে আলোচনা শুরু হয়েছে, বৃহস্পতিবার এমনটাই জানিয়েছেন এনসিপি নেতা তথা মহারাষ্ট্র সরকারের মন্ত্রী নওয়াব মালিক। মালিক জানিয়েছেন ইতিমধ্যেই একটি আসনে প্রার্থীর নাম ঘোষণা হয়ে গিয়েছে এবং এনসিপি সমাজবাদী পার্টি নেতৃত্বাধীন জোটকে নির্বাচনে সমর্থন করেছে।

নবাব মালিক বলেন, “আমরা সমাদবাদী পার্টির সঙ্গে উত্তর প্রদেশ বিধানসভা নির্বাচনে লড়াই করার সিদ্ধান্ত নিয়েছি। একটি আসন ইতিমধ্যেই ঘোষণা হয়ে গিয়েছে এবং বাকি আসনগুলি নিয়ে আলোচনা চলছে। উত্তর প্রদেশে যে বিরোধী জোট তৈরি হয়েছে তাঁর প্রতি আমাদের সমর্থন রয়েছে।” বুধবারই সমাজবাদী পার্টির পক্ষ থেকে প্রথম প্রার্থী হিসেবে এনসিপির কে কে শর্মার নাম ঘোষণা করা হয়েছিল। জোট নিয়ে বৈঠকের পর টুইটারে সমাজবাদী পার্টির পক্ষ থেকে ওই নাম ঘোষণা করা হয়েছিল। ইতিমধ্যে এনসিপি প্রধান শরদ পওয়ার বিজেপি নেতা মন্ত্রীদের দলত্যাগ নিয়ে গেরুয়া শিবিরকে কটাক্ষ করেছেন। তিনি বলেছিলেন, “এমন কোনও দিন যায়না যেদিন বিজেপি নেতারা দল ছাড়েননা। উদাহরণ হিসেবে উত্তর প্রদেশকেই ধরুন। অন্য দলে যোগ দেওয়ার জন্য ইতিমধ্যেই ১৩ বিধায়ক বিজেপি ছেড়ে দিয়েছেন। আমি জানতে পেরেছি আরও চারজন বিজেপি বিধায়ক দলত্যাগ করবেন।”

বিধানসভা নির্বাচনের আগে নেতা মন্ত্রীদের দলত্যাগ নিয়ে চাপে বিজেপি। ভারতীয় রাজনীতিতে কথিত আছে, ‘দিল্লির রাস্তা উত্তর প্রদেশ হয়ে যায়’। তাই ২০২৪ সালের লোকসভা নির্বাচনের কথা মাথায় রেখে উত্তর প্রদেশের ক্ষমতা ধরে রাখা বিজেপির কাছে সবথেকে বড় চ্যালেঞ্জ। যোগী আদিত্যনাথের নেতৃত্বে বিজেপি যদি আবার রাজ্য সরকার তৈরি করতে সক্ষম হয় তবে ২০২৪ লোকসভা নির্বাচনে অন্য দলগুলোর তুলনায় অনেকটাই এগিয়ে যাবে বিজেপি। অন্যদিকে নির্বাচনে যদি আশানুরূপ ফলাফল না হয় তবে লোকসভা নির্বাচনের আগে দলের ভাবমূর্তিতে ধাক্কা লাগতে পারে। স্বয়ং প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী উত্তর প্রদেশ থেকে নির্বাচিত সাংসদ, ভোটে বিজেপির ভরাডুবি হলে সেই দায় নরেন্দ্র মোদীর ওপর গিয়ে পড়বে, যা লোকসভা নির্বাচনের পরিপ্রেক্ষিতে বিজেপির জন্য মোটেই সুখকর হবে না। উত্তর প্রদেশের জনতা কী উত্তর দেয় তা জানতে সকলেই ১০ মার্চের দিকে তাকিয়ে রয়েছেন।

আরও পড়ুন: UP Minister quits BJP: পদত্যাগের হিড়িক, এবার ইস্তফা যোগীর মন্ত্রী ধর্মসিং সাইনির

আরও পড়ুন: UP MLA quits BJP: যোগী-রাজ্যে আরও এক বিজেপি বিধায়কের দলত্যাগ, এই নিয়ে সাতজন!

Related News

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla