Coronavirus: করোনা থেকে সুস্থ হওয়ার পর গলব্লাডারের সমস্যা! করোনার ভেল্কিতে বাড়ছে উদ্বেগ

চিকিৎসকেরা পরামর্শ দিচ্ছেন যে, যদি কোভিড -১৯ আক্রান্ত হয়ে সুস্থ হওয়ার পর রোগীর যদি পেটের ডান দিকের উপরের অংশে ব্যাথা অনুভব করেন,পিত্তথলিতে যন্ত্রণা অনুভব করেন, তাদের শীঘ্রই চিকিত্সা শুরু করা উচিত।

Coronavirus: করোনা থেকে সুস্থ হওয়ার পর গলব্লাডারের সমস্যা! করোনার ভেল্কিতে বাড়ছে উদ্বেগ
ছবিটি প্রতীকী

যত দিন যাচ্ছে করোনাভাইরাসের প্রভাব আরও জটিল হয়ে যাচ্ছে। দেড় বছর পেরিয়ে যাওয়ার পরও এই মারণভাইরাস নিয়ে এখনও নতুন নতুন আবিষ্কার করে চলেছেন চিকিত্‍সকবিজ্ঞানীরা। করোনা আক্রান্তের পর দীর্ঘস্থায়ী অসুস্থতা নিয়ে বেশি চিন্তিত হয়ে পড়েছেন বিজ্ঞানীরা। কারনণ সম্প্রতি নয়া রিপোর্ট বলছে, কোভিডের প্রভাবে নতুন করে অনেকে গলব্লাডার গ্যাংগ্রিনের সমস্যা দেখা দিতে শুরু করেছে।

সাম্প্রতিক খবর অনুযায়ী, নয়া দিল্লির স্যর গঙ্গারাম হাসপাতালের চিকিত্‍সকরা জানিয়েছেন, করোনা সংক্রমণ থেকে সেরে ওঠার পর পাঁচজনের শরীরে গ্যাংগ্রিন তৈরি হয়েছে। যদিও ওই পাঁচজনকেই চিকিত্‍সা করার পর সুস্থ রয়েছেন। রোগীদের এমন পরিস্থিতি ছিল যে ওই পাঁচজনের অবিলম্বে অস্ত্রোপচারের প্রয়োজন ছিল।

গলব্লাডার গ্যাংগ্রিন কী?

কোভিড রোগীদের মধ্যে গ্যাংগ্রিনের প্রবণতা বেশি করে লক্ষ্য করা যাচ্ছে বলে ধারণা। কারণ পিত্তথলিতে অসহ্য যন্ত্রণা অনুভব নিয়ে অনেকেই চিকিত্‍সা করাতে আসছেন। সাধারণত, পিত্তথবিতে পাথর তৈরি হলে এমনটা ঘটে। কিন্তু স্টোনবিহীন পিত্তথলিতে যন্ত্রণা হলে তা সত্যিই চিন্তার নিষয়। এই রোগের কারণে ইমিউনিটি সিস্টেম অত্যন্ত দুর্বল হয়ে যায়। যদি কোনও ব্যক্তি এইচআইভি রোগে আক্রান্ত হন, তাহলে তাঁর এমন সমস্যা দেখা যায়। এছাড়া দীর্ঘমেয়াদী ও দীর্ঘ দিন ধরে উপবাস করলে পুষ্টির অভাবে এমন সমস্যা দেখা দিতে পারে। দীর্ঘদিন ধরে আইসিইউতে ভর্তি থাকলে ও আঘাত পেলে এই সমস্যার সম্মুখীন হতে পারেন মানুষ।

এই রোগের মৃত্যুর হার বেশ বেশি। ৩০ থেকে ৬০ শতাংশ মানুষের স্টেন ছাড়াই পিত্তথলিতে জ্বালাভাব ধরলে মানুষ প্রথমে বুঝে উঠতে পারেন না। কিন্তু কোভিড রোগীদের মধ্যে এটি দেখা যায় না। এই রোগে আক্রানম্তদের এখনও পর্যন্ত মৃত্যুর রিপোর্ট পাওয়া যায়নি।

করোনার দ্বিতীয় ঢেউ আছড়ে পড়ার সঙ্গে সঙ্গে কোভিড থেকে সুস্থ হওয়া রোগীদের মধ্যে গ্যাংগ্রিনের কিছু ঘটনা সামনে এসেছিল। সেই সময় ডাক্তাররা সতর্ক করেছিলেন যে, গ্যামংগ্রিনের প্রবণতায় বাড়ছে উদ্বেগ। সার্স সিওভি-২ ভাইরাসের দ্বারা ছড়ানো সংক্রমণের প্রভাবে এই রোগ দ্রুত বৃদ্ধি পেতে পারে।

প্রসঙ্গত, কোভিডের আক্রমণে মানুষের শরীরে প্রাথমিকভাবে ফুসফুসকে প্রভাবিত করে। ফুসফুসের পর গ্যাস্ট্রোইনটেস্টাইনাল ট্র্যাক্ট (পিত্তনালী, পিত্তথলি এবং সংশ্লিষ্ট কাঠামো) এর রিপোর্ট পাওয়া গিয়েছে। গ্যাংগ্রিন হল শরীরের কোনও অংশে টিস্যুর মৃত্যু। এটি ঘটলে শরীরের অংশে রক্ত ​​সরবরাহ হ্রাস পা। সংক্রমণ, আঘাত বা অন্যান্য কারণে এই সমস্যা তৈরি হতে পারে। আপনি যদি মারাত্মক আঘাত পেয়ে থাকেন, রক্তনালীর সমস্যা, ডায়াবেটিস, প্রতিরোধ ক্ষমতা হ্রাস পাওয়া বা অস্ত্রোপচার করে থাকেন তবে এই অবস্থার বিকাশের ঝুঁকি বেশি।

এই সমস্যার সাধারণ লক্ষণগুলির মধ্যে রয়েছে জ্বর, ব্যথা, নিম্ন রক্তচাপ এবং সাধারণত অসুস্থ বোধ করা। চিকিৎসকেরা পরামর্শ দিচ্ছেন যে, যদি কোভিড -১৯ আক্রান্ত হয়ে সুস্থ হওয়ার পর রোগীর যদি পেটের ডান দিকের উপরের অংশে ব্যাথা অনুভব করেন,পিত্তথলিতে যন্ত্রণা অনুভব করেন, তাদের শীঘ্রই চিকিত্সা শুরু করা উচিত।

আরও পড়ুন: Cancer Pain: ক্যানসারের ব্যাথা রোগের থেকেও ভয়ংকর! চিকিত্‍সার মাধ্যমে কী মুক্তি পাওয়া সম্ভব?

Read Full Article

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla