CID Search in Delhi : ওয়ারেন্ট থাকলেও হয়নি তল্লাশি, এখনও দিল্লিতেই কলকাতার সিআইডি টিম

CID Search in Delhi : দিল্লিতে তল্লাশি অভিযানে গিয়েছে রাজ্যের সিআইডি-র একটি টিম। কিন্তু সেখানে গিয়ে দিল্লি পুলিশের বাধার মুখে পড়ে সেই টিম। এদিকে আজও তাঁরা তল্লাশি চালাতে পারেনি।

CID Search in Delhi : ওয়ারেন্ট থাকলেও হয়নি তল্লাশি, এখনও দিল্লিতেই কলকাতার সিআইডি টিম
হাওড়া থেকে টাকা উদ্ধারের ঘটনায় চলছে তল্লাশি
TV9 Bangla Digital

| Edited By: অঙ্কিতা পাল

Aug 04, 2022 | 5:07 PM

নয়া দিল্লি : হাওড়ায় ঝাড়খণ্ডের কংগ্রেস বিধায়কদের গাড়ি থেকে টাকা উদ্ধারের ঘটনায় গতকাল তদন্তের জন্য দিল্লি গিয়েছিল পশ্চিমবঙ্গের সিআইডি-র একটি দল। কিন্তু এই তদন্তে দিল্লি পুলিশের বিরুদ্ধে অসহযোগিতার অভিযোগ তোলেন পশ্চিমবঙ্গের সিআইডি কর্তারা। তাঁদের অভিযোগ, তল্লাশি চালানোর আগেই বাধা দেয় দিল্লি পুলিশ। ওয়ারেন্ট থাকা সত্ত্বেও তাঁদের থানায় বসিয়ে রাখা হয়েছিল। এই ঘটনায় আদালত অবমাননার অভিযোগ তুলেছে সিআইডি। এদিকে বৃহস্পতিবার এখনও পর্যন্ত তল্লাশি অভিযান শুরু করতে পারেননি পশ্চিমবঙ্গের সিআইডি কর্তারা। অন্যদিকে, অসমের গুয়াহাটিতেও পশ্চিমবঙ্গের সিআইডি কর্তাদের কাজে বাধা দেওয়ারও অভিযোগ উঠেছিল গতকাল। এদিন তাঁরা পুনরায় বিমানবন্দরের ফুটেজ সংগ্রহ করার আবেদন করবেন বলে জানা গিয়েছে।

গত সপ্তাহে শনিবার হাওড়ার পাঁচলায় ঝাড়খণ্ডের তিন কংগ্রেস বিধায়কের গাড়ি থেকে লক্ষাধিক টাকা পাওয়া গিয়েছিল। কংগ্রেসের তরফে অভিযোগ করা হয়, ঝাড়খণ্ডের কংগ্রেস-জেএমএম সরকার ফেলে দিতেই বিজেপির ষড়যন্ত্র এটা। এদিকে এই ঘটনার তদন্ত শুরু করে রাজ্যের সিআইডি-র একটি দল। এই তদন্তের জন্যই দিল্লিতে সিদ্ধার্থ মজুমদারের বাড়িতে তল্লাশি চালাতে যায় সিআইডি। তবে সেই তল্লাশির আগেই দিল্লি পুলিশের বাধার মুখেই পড়ে সিআইডি-র সেই দল। সিআইডি-র দাবি তাঁদের কাছে ওয়ারেন্ট থাকা সত্ত্বেও তাঁদের তল্লাশি চালাতে বাধা দেওয়া হয়। এদিকে এই ঘটনার রেশ পৌঁছেছে সংসদেও। দিল্লি পুলিশের তল্লাশি অভিযানে বাধা দেওয়া নিয়ে সংসদে সুর চড়িয়েছেন তৃণমূল কংগ্রেস সাংসদ সৌগত রায় ও দোলা সেন।

এই ঘটনার তদন্তে নেমে সিআইডি-র কাছে সিদ্ধার্থ মজুমদারের নাম উঠে আসে। সিআইডি-র দাবি, এই সিদ্ধার্থ মজুমদার আগে কংগ্রেসের নেতা ছিলেন। তবে বর্তমানে তাঁর সঙ্গে অসমের মুখ্যমন্ত্রী হিমন্ত বিশ্বশর্মার ঘনিষ্ঠতা রয়েছে। সিআইডি আরও দাবি করে যে, কংগ্রেসের বিধায়কদের দল ভাঙিয়ে নিয়ে যাওয়ার জন্য তিনিই টাকার টোপ দিয়েছিলেন। এই সূত্র ধরে রাজ্যের একটি সিআইডি টিম অসমেও যায়। তাঁরা সেখানে গুয়াহাটি বিমানবন্দরের সিসিটিভি ফুটেজ সংগ্রহ করতে গিয়েছিলেন। কিন্তু সেখানেও বাধার মুখে পড়েন তাঁরা। এদিন তাঁরা পুনরায় সিসিটিভি ফুটেজ সংগ্রহের আবেদন করবেন বলে সূত্র মারফত জানা গিয়েছে।

Follow us on

Related Stories

Most Read Stories

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla