Chhat Puja: করোনাকালে কী ভাবে ছটপুজো, বৈঠকে কলকাতা পুরসভা

TV9 Bangla Digital

TV9 Bangla Digital | Edited By: সায়নী জোয়ারদার

Updated on: Nov 01, 2021 | 8:59 PM

KMC: ৪ নভেম্বর কালীপুজো। ১০ তারিখে ছটপুজো। কলকাতায় ছটপুজো উপলক্ষে বিভিন্ন ঘাটগুলিতে হাজার হাজার মানুষের ভিড় হয় প্রতি বছর।

Chhat Puja: করোনাকালে কী ভাবে ছটপুজো, বৈঠকে কলকাতা পুরসভা
ছটপুজো নিয়ে বৈঠক কলকাতা পুরসভায়। ফাইল চিত্র।

কলকাতা: কালীপুজোর প্রস্তুতি পুরোদমে সেরে ফেলেছে কলকাতা পুরসভা। এবার শুরু ছটপুজোর (ChhatPuja) প্রস্তুতি। ৪ নভেম্বর কালীপুজো। ১০ তারিখে ছটপুজো। কলকাতায় ছটপুজো উপলক্ষে বিভিন্ন ঘাটগুলিতে হাজার হাজার মানুষের ভিড় হয় প্রতি বছর। তবে করোনার কারণে গত বছর সে ছবিতে বদল এসেছিল। এবারও সব রকম স্বাস্থ্যবিধি মেনে যাতে ছটপুজো করা যায়, তার জন্য সোমবার কলকাতা পুরসভায় এক উচ্চ পর্যায়ের বৈঠক হয়। সেখানে একাধিক সিদ্ধান্তও নেওয়া হয়।

কলকাতা পুর এলাকায় মোট ১৩৮ টি ঘাটে ছট পুজোর ব্যবস্থা করা হয়েছে। এর মধ্যে ৩৯টি ঘাটের প্রস্তুতির দায়িত্ব কেএমডিএ-এর হাতে দেওয়া হয়েছে। চারটি জলাশয়ে উপাসনার সমস্ত ব্যবস্থাকরবে কলকাতা পুরসভা। কলকাতা পুরসভার মুখ্য প্রশাসক ফিরহাদ হাকিম সোমবার সাংবাদিক বৈঠক করে জানান, সমস্ত ঘাট ব্যারিকেড করবে পূর্ত দফতর।

কলকাতা পোর্ট ট্রাস্টের পক্ষ থেকে নিরাপত্তা ব্যবস্থার দেখভালের ব্যবস্থা করা হবে। কলকাতা পুলিশ ঘাটগুলিতে নিরাপত্তা দেবে। কলকাতা পুরসভার পক্ষ থেকে মাইকিং করা ও আলোর ব্যবস্থা করা হবে। রেলের তরফে জানানো হয়েছে, এই ছটপুজো চলাকালীন চক্ররেল পরিষেবা বন্ধ রাখা হবে। তার জন্য সময়ও নির্ধারিত করা হয়েছে। ১০ নভেম্বর ও ১১ নভেম্বর বিকেলে চক্ররেল বন্ধ রাখা হবে।

প্রত্যেকটি ঘাটে খাওয়ার জলের ব্যবস্থা রাখবে পুরসভা। মহিলাদের পোশাক পরিবর্তনের জন্য আলাদা ব্যবস্থা করা হবে। একই সঙ্গে স্বাস্থ্যবিধি যাতে কোনও ভাবেই উলঙ্ঘন না হয় সেদিকেও খেয়াল রাখা হবে। ফিরহাদ হাকিম এদিন জানান, রাজ্য দূষণ নিয়ন্ত্রণ পর্ষদের সমস্ত নিয়ম মেনে পালিত হবে ছটপুজো।

ইতিমধ্যেই রাত্রিকালীন যে বিধি নিষেধ অর্থাৎ রাত ১১টা থেকে ভোর ৫টা পর্যন্ত জরুরি পরিষেবা ছাড়া যান চলাচল এবং সাধারণ মানুষের বাইরে বেরোনোয় যে নিষেধাজ্ঞা তা শিথিল করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে কালীপুজো, ছটপুজোয়। নবান্নের তরফে এ সংক্রান্ত নির্দেশিকাও জারি করা হয়েছে।

নবান্নের নির্দেশিকায় বলা হয়েছে, কালীপুজো উপলক্ষে ২ থেকে ৫ নভেম্বর পর্যন্ত এবং ছটপুজো উপলক্ষে ১০ ও ১১ নভেম্বর রাত্রিকালীন কোনও কড়াকড়ি থাকবে না। অন্যদিকে সোমবার আবার কালীপুজো, ছট পুজোয় বাজি পোড়ানো নিয়েও নয়া নির্দেশ দিয়েছে সুপ্রিম কোর্ট।

এ দিন সুপ্রিম কোর্টের বেঞ্চের তরফে বলা হয়েছে, পরিবেশবান্ধব বাজি ব্যবহার করা হোক। বাতাসের একিউআই লেভেল বা বাতাসের মান যেখানে খারাপ, সেখানে পরিবেশ বান্ধব বাজি ফাটানো যাবে না। তার জন্য পুলিশকে সদর্থক ভূমিকা নেওয়ার কথাও বলা হয়েছে। কিন্তু বাজি একেবারে নিষিদ্ধ করা যাবে না বলেই নির্দেশ দেশের সর্বোচ্চ আদালতের। ফলে আপাতত পরিবেশবান্ধব বাজি ফাটানোয় কোনও বাধা রইল না। প্রসঙ্গত কালীপুজো, ছটপুজোর এক অংশ হিসাবে এই বাজি পোড়ানোর উন্মাদনা দেখা যায়।

এই সময়টার জন্য বাজি বিক্রেতারাও মুখিয়ে থাকেন। তবে গত সপ্তাহেই কলকাতা হাইকোর্ট বাজি পোড়ানোয় নিষেধাজ্ঞা জারি করে। সেই রায়কে চ্যালেঞ্জ করে সুপ্রিম কোর্টে যায় আতসবাজি উন্নয়ন সমিতি।

আরও পড়ুন: COVID Update: কিছুটা নামল রাজ্যের দৈনিক সংক্রমণ, গত ২৪ ঘণ্টায় নমুনা পরীক্ষাও কম

Latest News Updates

Follow us on

Related Stories

Most Read Stories

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla