World Brain Tumour Day 2021: ব্রেন টিউমারের উপসর্গ কী? প্রতিরোধ করার কিছু উপায় জেনে রাখা ভাল

ব্রেন টিউমারের মতো একটি মারাত্মক রোগ সম্পর্কে সচেতনতা বৃদ্ধির লক্ষ্যে ২০০০ সালের ৮ জুন বিশ্ব ব্রেন টিউমার দিবস হিসেবে পালিত হয়ে আসছে। ব্রেন টিউমার প্রতিরোধ করার নানান উপায় ও কারণ সম্পর্কে বিশদে জানুন...

  • Updated On - 1:38 pm, Tue, 8 June 21
World Brain Tumour Day 2021: ব্রেন টিউমারের উপসর্গ কী? প্রতিরোধ করার কিছু উপায় জেনে রাখা ভাল
ছবিটি প্রতীকী

মস্তিষ্কের স্বাভাবিক কোষের চেয়ে দ্রুত বৃদ্ধি হলে তা প্রথমে ক্যান্সার কোষ হিসেবে চিহ্ণিত করা হয়। মস্তিষ্কে এই অস্বাভাবিক কোষবৃদ্ধির ফলে দেহের সর্বত্র এই মারণরোগের তাবা দ্রুত ছড়িয়ে পড়ে। বিভিন্ন অঙ্গের কোষ থেকে মেটাস্ট্যাটিক ব্রেন ক্যানসারের উত্পত্তি হয়। মস্তিষ্কে টিউমারের মূল লক্ষণগুলি হল- মাথা ব্যাথা, ব্যক্তিত্বের পরিবর্তন, শরীরের যে কোনও অংশে দুর্বলতা বা অসাড় হয়ে যাওয়া, কথা বলার ক্ষেত্রে অসুবিধা হওয়া, ভারসাম্য হ্রাস ও অসুস্থ বোধ হওয়া। তবে অনেকসময় এই লক্ষণগুলি দেখা নাও দিতে পারে। মস্তিষ্কে টিউমার সাধারণত দুধরনের। বিনাইন টিউমার, এটি শরীরে ক্রমশ বৃদ্ধি হলেও তেমন কোনও সমস্যা দেখা দেয় না। স্বাভাবিক কোষ যেভাবে বিভাজিত হয়, এই টিউমারের ক্ষেত্রে তাই-ই হয়। ধীর গতিতে বৃদ্ধি হলেও শরীরে দ্রুত ছড়িয়ে পড়ে না। অন্যটি হল, ম্যালিগন্যান্ট টিউমার, যা ক্যান্সার নামে বেশি পরিচিত। যে কোনও বয়েসেই পুরুষ-মহিলার ব্রেন টিউমারে আক্রান্ত হতে পারে। সাধারণত, ৪৫ বছরের বেশি বয়সি ব্যক্তিদের এই ধরণের টিউমারে উপসর্গ দেখা দেয়। শিশুদের ক্ষেত্রে ৬ থেকে ৯ বছর বয়সিদের মধ্যে এই টিউমারের কারণে মৃত্যুর আশঙ্কা থাকে।

অতিরিক্ত ধূমপান, রাসায়নিক ও কীটনাশকের সংস্পর্শে থাকলে মস্তিষ্কে টিউমার হওয়ার ঝুঁকি বেশি থাকে। কী কী কারণে মস্তিষ্কে অস্বাভাবিক কোষের বৃদ্ধি ঘটে, তা একঝলকে দেখে নিন…

-চিকিত্সার কারণে রেডিয়েশন থেরাপি নিয়েছেন এমন রোগী বা ব্ক্তির মধ্যে ব্রেইন টিউমার হওয়ার ঝুঁকি বেশি থাকে

– উচ্চমানের পাওয়ার ট্রান্সমিশন লাইনে কম ফ্রিকোয়েন্সি তড়িত্চুম্বকীয় ক্ষেত্রে মস্তিষ্কে টিউমারের ঝুঁকি বাড়িয়ে দেয়

– বৈদ্যুতিক, রাবার, পেট্রোলিয়াম শিল্পের সঙ্গে যুক্ত কর্মীদের মধ্যে এই রোগের প্রবণতা দেখা যায়। রাসায়নিক ও কীটনাশকের সংস্পর্শে আসা পোশাক, গ্লাভস বা গগলস ব্যবহার করার সময় শরীরের ভিতর বিষাক্ত রাসায়নিক প্রবেশ করে।

আরও পড়ুন: একটু একটু করে অসুস্থ করে তুলছে জলবায়ুর পরিবর্তন! কীভাবে?

– মাথায় আঘাতের কারণে মেনিনজিওমাসের ঝুঁকি বেড়ে যায়। মোটরসাইকেল, স্কুটার চালাবার সময় হেলমেট পরা আবশ্যিক

– যাঁদের ব্রাঙ্কাইল, একজিমার মতো রোগ রয়েছে, অথবা যাঁদের অ্যালার্জির ধাত রয়েছে, তাঁদের মস্তিষ্কে টিউমার হওয়ার সম্ভাবনা রম থাকে।

– অ্যান্টি-অক্সিডেন্ট সমৃদ্ধ ফল-সবজি খাওয়ার ফলে মস্তিষ্কের টিউমার হওয়ার সম্ভাবনা কম থাকে। ভিটামিন সি-র মতো নাইট্রোসেশন প্রক্রিয়াটি নির্দিষ্ট কিছু প্রতিবন্ধকতার কারণে প্রবীণ ও শিশুদের মস্তিষ্কে টিউমারের সম্ভাবনা অনেকটা কম করে ।

– গরমকালে এয়ার কণ্ডিশনারের স্যুইত অন করার কয়েক মিনিটের জন্য গাড়ির উইন্ডোগুলি খুলে রাখার পরামর্শ দেওয়া হয়। যাতে বিষাক্ত গ্যাস বা বাতাস গাড়ির ভিতর আটকে না থাকে।

– মস্তিষ্কের টিউমারগুলির একটি সামান্য অনুপাত জেনেটিক সিনড্রোম হিসেবে আলোচিত হয়। জিনগত কারণে মস্তিষ্কেপ টিউমারগুলির বিকাশের একটি কারণ থাকেই।