জমাট বাঁধছে রক্ত? হতে পারে সন্তানধারণে সমস্যা? জেনে নিন ভ্যাকসিন সংক্রান্ত সব জল্পনার উত্তর

কেউ কেউ বলছেন টিকা নেওয়ার পর বন্ধ রাখতে হবে মদ্যপান! সেই সব জল্পনার উত্তর দিয়েছে স্বাস্থ্যমন্ত্রক।

জমাট বাঁধছে রক্ত? হতে পারে সন্তানধারণে সমস্যা? জেনে নিন ভ্যাকসিন সংক্রান্ত সব জল্পনার উত্তর
ফাইল চিত্র
সুমন মহাপাত্র

|

Mar 16, 2021 | 2:05 PM

নয়া দিল্লি: দেশে শুরু হয়েছে দ্বিতীয় দফার করোনা টিকাকরণ। এই দফায় টিকা পাচ্ছেন ৬০ বছরের বেশি বয়সীরা ও ৪৫ বছরের বেশি কো-মর্বিডিটিযুক্তরা। কিন্তু বিভিন্ন দেশ থেকে এমনও খবর আসছে যে করোনা টিকা নেওয়ার পর শরীরে জমাট বাঁধছে রক্ত। মূলত প্রশ্ন উঠছে অ্যাস্ট্রাজেনেকার করোনা টিকার বিরুদ্ধে। যদিও বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা জানিয়েছে, অ্যাস্ট্রাজেনেকার করোনা টিকা নিরাপদ তাই টিকাকরণ বন্ধ রাখার কোনও দরকার নেই। কিন্তু বিভিন্ন মহলে ঘুরে বেড়াচ্ছে একাধিক জল্পনা। সোশ্যাল মিডিয়ায় ছড়িয়ে পড়ছে নানা মত। কেউ কেউ বলছেন, ভ্যাকসিন নিলে সমস্যা দেখা দিতে পারে মাতৃত্বে। কেউ কেউ বলছেন টিকা নেওয়ার পর বন্ধ রাখতে হবে মদ্যপান! সেই সব জল্পনার উত্তর দিয়েছে স্বাস্থ্যমন্ত্রক।

টিকা নেওয়ার পর কি মদ্যপান বন্ধ রাখতে হবে?

স্বাস্থ্যমন্ত্রক এই প্রশ্নের উত্তরে জানিয়েছে, বিশেষজ্ঞদের পরামর্শ অনুযায়ী ‘এমন কোনও প্রমাণ পাওয়া যায়নি যে টিকার কার্যকরিতা উপর প্রভাব ফেলতে পারে মদ্যপান।’

করোনা টিকা কি মাতৃত্বে প্রভাব ফেলতে পারে?

স্বাস্থ্যমন্ত্রক জানিয়েছে এই সংক্রান্ত যা সোশ্যাল মিডিয়ায় ঘুরে বেড়াচ্ছে তা আজগুবি ও ভিত্তিহীন। ‘কোনও ভ্যাকসিনই মাতৃত্বে প্রভাব ফেলে না। প্রত্যেকটি প্রতিষেধক প্রথমে প্রাণী ও পরে মানুষের উপর ট্রায়াল করা হয়েছে। খতিয়ে দেখা হয়েছে পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া।’, এ কথা জানিয়েছে হর্ষ বর্ধনের মন্ত্রক।

ভ্যাকসিন নেওয়ার পর কী কী মেনে চলতে হবে?

স্বাস্থ্যমন্ত্রকের মতে, প্রত্যেকটি প্রতিষেধকই নিরাপদ তবে টিকা নেওয়ার পর কোনও অসুবিধা হলে তৎক্ষণাৎ নিকটবর্তী স্বাস্থ্যকেন্দ্রে যাওয়ার পরামর্শ দিয়েছে তারা। তা না হলে ভ্যাকসিন নেওয়ার পর কো-উইন এসএমসে থাকা স্বাস্থ্যকর্মীর নম্বরে ফোন করার কথাও জানিয়েছে হর্ষ বর্ধনের মন্ত্রক।

ভ্যাকসিন নেওয়ার পর কী কোনও ওষুধ খাওয়া বন্ধ রাখতে হবে?

স্বাস্থ্যমন্ত্রক এ বিষয়ে জানিয়েছে, ভ্যাকসিন নেওযার পর কোনও নির্দিষ্ট ওষুধ বন্ধ রাখতে হবে, এমন কোনও নির্দেশিকা নেই। তবে টিকাদাতাকে যে ওষুধ খাচ্ছেন সে বিষয়ে জানিয়ে রাখতে হবে।

হাইপারটেনশন, ডায়াবেটিস, কিডনির রোগ কিংবা হৃদরোগ থাকলে কি ভ্যাকসিন নেওয়া নিরাপদ?

স্বাস্থ্যমন্ত্রক আগেই জানিয়েছে, কো-মর্বিডিটি যুক্ত প্রাপ্ত বয়স্কদের জন্য এই প্রতিষেধক নিরাপদ। কো-মর্বিডিটির একটি তালিকাও প্রকাশ করেছে কেন্দ্র। এ ছাড়া ৪৫ বছরের বেশি বয়সী কো-মর্বিডিটি যুক্তদের স্রেফ টিকা দেওয়া হচ্ছে। তবে এই সংক্রান্ত যে কোনও বিষয়ে চিন্তা থাকলে চিকিৎসকের সঙ্গে কথা বলে নিতে হবে।

রোগ প্রতিরোধ সংক্রান্ত রোগ থাকলেও কি ভ্যাকসিন নেওয়া যাবে?

কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রক জানিয়েছে রোগ প্রতিরোধ সংক্রান্ত রোগ মূলত দু’ধরনের হয়। এক, ইমিউনোসাপ্রেশন এইডসের ফলে ও ক্যানসার প্রতিরোধকারী ওষুধ রোজনামচায় থাকলে। দুই, শারীরিক সমস্যার জন্য দেহের রোগ প্রতিরোধ তন্ত্রে সমস্যা থাকলে। যেহেতু ভ্যাকসিনে কোনও জীবন্ত ভাইরাস নেই, তাই এই টিকা নিতে তাঁদের কোনও অসুবিধা নেই। তবে স্বাস্থ্যমন্ত্রকের মতে, হয়ত তাঁদের শরীরে এই প্রতিষেধক কার্যকরী হবে না।

করোনা থেকে সুস্থ হয়ে উঠলেও কি ভ্যাকসিন নিতে হবে?

আগেই স্বাস্থ্যমন্ত্রক জানিয়েছিল, করোনা ভ্যাকসিন নেওয়া বা নেওয়া ঐচ্ছিক একটি সিদ্ধান্ত। তবে বিশেষজ্ঞরা পরামর্শ দিয়েছিলেন করোনা টিকা নেওয়ার। এ বারও স্বাস্থ্যমন্ত্রক জানিয়েছে, যেহেতু করোনা টিকা নেওয়ার পর রোগ প্রতিরোধ এবং সেই সংক্রান্ত সময়ের বিষয় এখনও পরিষ্কার নয়, তাই করোনা টিকা নেওয়া উচিত। তবে টিকা নেওয়ার আগে ৪ থেকে ৮ সপ্তাহ করোনা লক্ষণগুলির উপর নজর রাখার কথাও জানিয়েছে স্বাস্থ্যমন্ত্রক।

যদি অ্যালার্জি থাকে তাহলে কি ভ্যাকসিন নেওয়া উচিত?

যাদের কোনও খাবার, ওষুধে গুরুতর অ্যালার্জি আছে তাঁদের আপাতত টিকা না নেওয়ার কথা জানিয়েছে স্বাস্থ্যমন্ত্রক।

আরও পড়ুন: গল্প এগোচ্ছে বলিউড থ্রিলারের মতো, নিজের হাইজিং-এর সিসিটিভি কেন সরালেন অফিসার?

Follow us on

Related Stories

Most Read Stories

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla