বিনা চিকিৎসায় মৃত্যু করোনা রোগীর, অ্যাম্বুলেন্সের চড়া দর মেটাতে না পারায় রিক্সাতেই নিয়ে যেতে হল দেহ!

কোনও হাসপাতালে বেড না মেলায় রাস্তাতেই মৃত্যু হয় ওই করোনা রোগীর। মৃতদেহ বাড়ি নিয়ে যেতে চাইলে চড়া দর হাঁকান অ্যাম্বুলেন্স চালকরাও।

  • TV9 Bangla
  • Published On - 7:38 AM, 5 May 2021
বিনা চিকিৎসায় মৃত্যু করোনা রোগীর, অ্যাম্বুলেন্সের চড়া দর মেটাতে না পারায় রিক্সাতেই নিয়ে যেতে হল দেহ!
ই-রিক্সায় চাপিয়েই নিয়ে যাচ্ছেন স্বামীর মৃতদেহ। ছবি:সংগৃহীত

লখনউ: মুখ্যমন্ত্রী রাজ্যে অক্সিজেন বা বেডের সঙ্কট নেই বলে দাবি করলেও দিন-প্রতিদিন ভয়াবহ হয়ে উঠছে উত্তর প্রদেশের করোনা চিত্র। চিকিৎসা তো দূরের কথা, হাসপাতালে বেডও মিলছে না যোগী রাজ্যে। রোগী মৃত্যু হলে শ্মশানে নিয়ে যাওয়ার জন্য আম্বুলেন্সে চড়া দাম হাঁকায়, বাধ্য হয়েই ই-রিক্সায় স্বামীর মৃতদেহ বেঁধে শ্মশানে নিয়ে গেলের এক মহিলা। নির্মম এই চিত্র ধরা পড়েছে উত্তর প্রদেশের ফিরোজাবাদে।

জানা গিয়েছে, ছেলেকে সঙ্গে নিয়েই করোনা আক্রান্ত স্বামীর চিকিৎসা করাতে এসেছিলেন ওই মহিলা। বহু ছোটাছুটির পরও কোথাও মেলেনি কোনও বেড। চিকিৎসা না পেয়ে হাসপাতালের বাইরে মৃত্যু হয় ওই করোনা রোগীর। দেহ প্রথমে বাড়ি ও পরে শ্মশানে নিয়ে যাওয়ার জন্য অ্যাম্বুলেন্সে কথা বলা হলেও তাঁরা আকাশছোঁয়া
দর হাঁকায়। সারাদিনের ছোটাছুটির পর পকেটে পয়সা না থাকায় বাধ্য হয়েই ই-রিক্সা ভাড়া করে স্বামীর মৃতদেহ নিয়ে যান ওই মহিলা।

দেখা যায়, স্বামীর মৃতদেহ আগলে বসে রয়েছেন ওই মহিলা। দেহ যাতে ঝাঁকুনিতে পড়ে না যায়, সেই কারণে পিছনে দড়ি দিয়ে রিক্সার সঙ্গে বাঁধা রয়েছে।

তবে এটিই প্রথম নয়, এর আগেও উত্তর প্রদেশের নয়ডায় এক মহিলা হাসপাতালের পার্কিং লটে শ্বাসকষ্টে মারা যান। আগ্রায় দেখা যায়, অক্সিজেন না পেয়ে স্বামীকে বাঁচাতে সিপিআর দিচ্ছেন তাঁর স্ত্রীই। অ্যাম্বুলেন্স না পাওয়ায় গাড়ির ছাদেই মৃতদেহ বেঁধে নিয়ে যাচ্ছেন পরিজনেরা।

আরও পড়ুন: হাসপাতালে লেশমাত্র নেই অক্সিজেন, কর্নাটকেও দমবন্ধ হয়ে মৃত্যু ৭ করোনা রোগীর