কোভ্যাকসিনও এল বাংলায়, তবে প্রয়োগ নিয়ে রয়েছে একাধিক প্রশ্ন

কোভিশিল্ড নিয়ে বিশেষজ্ঞরা আপাতভাবে নিশ্চিত হতে পারলেও কোভ্যাকসিন নিয়ে এখনও কিছু প্রশ্ন রয়ে গিয়েছে। তৃতীয় পর্যায়ের ট্রায়াল রিপোর্ট প্রকাশ্যে আসার আগের জরুরি ভিত্তিতে একে ছাড়পত্র দেওয়া নিয়ে প্রশ্ন উঠতে শুরু করেছে।

কোভ্যাকসিনও এল বাংলায়, তবে প্রয়োগ নিয়ে রয়েছে একাধিক প্রশ্ন
অলংকরণ-অভীক দেবনাথ
ঋদ্ধীশ দত্ত

|

Jan 22, 2021 | 7:28 PM

সৌরভ দত্ত: কোভিশিল্ডের পর এবার কোভ্যাকসিনও (Covaxin) চলে এল রাজ্যে। স্বাস্থ্য দফতর সূত্রে খবর, এ দিন কোভ্যাকসিনের লক্ষাধিক ডোজ় এসে পশ্চিমবঙ্গে (West Bengal) পৌঁছেছে। যদিও কোভিশিল্ডের তুলনায় সংখ্যায় তা অনেকটাই কম। কোভ্যাকসিনের ১ লক্ষ ১২ হাজার ৯৬০টি ডোজ় এসেছে রাজ্যে। সেগুলিকে রাজ্যের ভ্যাকসিন হাব বাগবাজারেই রাখা হয়েছে। সেখানে মোট চারটি ওয়াক ইন কুলার রয়েছে যার মধ্যে দু’টিতে কোভিশিল্ডের ভ্যাকসিন রাখা রয়েছে। বাকি একটিতে রয়েছে কোভ্যাকসিন। তবে কোভ্যাকসিনের ডোজ়গুলি মজুত করে রাখা হলেও তার বণ্টন এখনই শুরু হচ্ছে না।

কোভিশিল্ডের ক্ষেত্রে যদিও এমনটা দেখা যায়নি। গত ১৩ জানুয়ারি রাজ্যে ভ্যাকসিন এসে পৌঁছনোর পরই রাজ্যজুড়ে তা বণ্টন প্রক্রিয়া শুরু করে দেওয়া হয়েছিল। তবে কোভ্যাকসিন নিয়ে এখন ধীরে চলো পন্থাই নেওয়া হয়েছে। রাজ্য স্বাস্থ্য দফতর সূত্রে খবর, শনিবার টিকাকরণ সংক্রান্ত বিশেষজ্ঞ কমিটির বৈঠক হ‌ওয়ার কথা। সেই বৈঠকে কোভ্যাকসিনের পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া সংক্রান্ত বিষয়গুলি খতিয়ে দেখা হবে। সেখানেই মূলত সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে, কাদের এই ভ্যাকসিন দেওয়া হতে পারে। পাশাপাশি কোন বয়সের মধ্যে এই ভ্যাকসিন দেওয়া হবে, কী ধরনের সতর্কতা নেওয়া হবে, কী ধরনের প্রচার এই নিয়ে করা হবে, এই সব নিয়ে আলোচনা হতে পারে।

আরও একাধিক বিষয় নিয়ে আলোচনা হতে পারে বৈঠকে। কেননা, কোভিশিল্ড নিয়ে বিশেষজ্ঞরা আপাতভাবে নিশ্চিত হতে পারলেও কোভ্যাকসিন নিয়ে এখনও কিছু প্রশ্ন রয়ে গিয়েছে। তৃতীয় পর্যায়ের ট্রায়াল রিপোর্ট প্রকাশ্যে আসার আগের জরুরি ভিত্তিতে একে ছাড়পত্র দেওয়া নিয়ে প্রশ্ন উঠতে শুরু করেছে। তবে কাদের এই ভ্যাকসিন দেওয়া যাবে না তা নিয়ে ইতিমধ্যেই একটি গাইডলাইন দিয়েছে আইসিএমআর ও ভারত বায়োটেক (Bharat Biotech)। তার আগে দেখে নিন কোভ্যাকসিনের ক্ষেত্রে কী কী নিয়ম মানতে হবে।

কোভ্যাকসিন নেওয়ার শর্ত কী?

অলংকরণ- অভীক দেবনাথ

১. ভ্যাকসিন প্রাপককে লিখিত সম্মতি দিতে হবে।

২. প্রাপকের বয়স ১৮ বছরের বেশি হওয়া বাধ্যতামূলক

৩. বিগত তিন মাসে অসুস্থ হয়েছিলেন বা এই সময়ের মধ্যে সেরে উঠেছেন এমন কেউ ভ্যাকসিন নিতে পারবেন না।

কারা নিতে পারবেন না ভ্যাকসিন?

অলংকরণ-অভীক দেবনাথ

*অ্যালার্জির ইতিহাস রয়েছে এমন ব্যক্তিরা।

*জ্বর থাকলে নেওয়া যাবে না।

*রক্ত পাতলা থাকলে বা রক্তের কোনও সমস্যা রয়েছে সেই ক্ষেত্রেও নিষেধ রয়েছে।

*অন্তঃসত্ত্বা মহিলারা।

*স্তন্যপান করান এমন কেউ।

*ইতিমধ্যেই কোভিড ভ্যাকসিন নিয়েছেন এমন কেউ।

*অন্য কোনও শারীরিক সমস্যা থাকলে নেওয়া যাবে না।

কোভ্যাকসিন দেওয়ার পদ্ধতি

*পার্শ্ব প্রতিক্রিয়ার উপরে নজরদারির জন্য মিলবে তথ্য নথিভুক্তকরণের আবেদনপত্র।

*প্রথম ডোজ নেওয়ার ৮-২৭ দিনের মধ্যে পার্শ্ব প্রতিক্রিয়া দেখা দিলে টিকাকরণ কেন্দ্রে জানাতে হবে।

*দ্বিতীয় ডোজ প্রাপ্তির পরবর্তী তিনমাস সকল প্রাপক নজরদারির আওতায়।

Follow us on

Related Stories

Most Read Stories

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla