‘একটি মাত্র কারণ মামলা অন্যত্র সরানোর জন্য যথেষ্ট নয়’, শুক্রবারও নারদ মোকদ্দমা শুনবে বৃহত্তর বেঞ্চ

ডিভিশন বেঞ্চে এই মামলা শোনা যায় কিনা, তা নিয়ে প্রশ্ন ওঠে এ দিন। মামলা অন্যত্র সরানোর প্রসঙ্গও উঠে আসে আদালতে।

'একটি মাত্র কারণ মামলা অন্যত্র সরানোর জন্য যথেষ্ট নয়', শুক্রবারও নারদ মোকদ্দমা শুনবে বৃহত্তর বেঞ্চ
অলংকরণ: অভীক দেবনাথ
tannistha bhandari

|

Jun 03, 2021 | 6:19 PM

কলকাতা: নারদ মামলা অন্যত্র সরানো হবে কিনা, সেই জবাব পাওয়া গেল না আজও। হাইকোর্টে মামলা সরানোর পক্ষে সওয়াল করলেন সলিসিটর জেনারেল তুষার মেহতা। বারবারই তাঁর যুক্তি, ধর্ণার কারণে বিচার বিকৃত হয়েছে। কিন্তু এই প্রসঙ্গে বিচারপতি সৌমেন সেন বললেন, ‘কেবলমাত্র একটি কারণই একটি মামলাকে অন্যত্র সরানোর পক্ষে যথেষ্ট নয়।’ আজ, বৃহস্পতিবার নারদ মামলায় সিবিআই-এর পক্ষে সওয়াল শেষ করলেন তুষার মেহতা। আগামিকাল ফের এই মামলার শুনানি রয়েছে।

‘সাধারণ মামলা না ব্যতিক্রমী মামলা’

সলিসিটর জেনারেল তুষার মেহতা বলেন, ‘আজই শেষ করব বক্তব্য। প্রধান বিচারপতি মাস্টার অব রোস্টার। তিনি নিজে শুনতে পারেন বা ডিভিশন বেঞ্চ অথবা বৃহত্তর বেঞ্চ তৈরি করতে পারেন। সাধারণ ফৌজদারি মামলায় দুই বিচারপতির মতবিরোধ হলে সিঙ্গল জাজ শুনে থাকে। তবে বিশেষ ক্ষেত্রে বৃহত্তর বেঞ্চে যাওয়া যেতে পারে। সাত বছরের বেশি সাজা হতে পারে এমন মামলার ক্ষেত্রে যেতে পারে। সুপ্রিম কোর্ট একটি চিঠির ভিত্তিতে উত্তর প্রদেশ থেকে মামলা দিল্লিতে সরিয়ে দিয়েছে। রুটিন নয় কিন্তু ব্যতিক্রমী ক্ষেত্রে এই রকম হয়েই থাকে। বিচারপতি ইন্দ্রপ্রসন্ন মুখোপাধ্যায় বলেন, ‘এটা ব্যতিক্রমী মামলার মতো করে কেন হাইকোর্টে দাখিল করা হল? দু’দিন পর স্বাভাবিক ভাবে কেন মামলা করা হল না? ইমেলের মাধ্যমে মামলা করেছেন আপনারা। কোথাও লেখা হয়নি এটা জনস্বার্থ মামলা, রিট পিটিশন না অন্য কিছু। জবাবে তুষার মেহতার দাবি, এমন পরিস্থিতি তৈরি হয়েছিল যে সিবিআই এটা করতে বাধ্য হয়েছে।

‘ভুল তথ্য দিয়েছে সিবিআই’,  বৃহত্তর বেঞ্চে হলফনামা দিলেন কল্যাণ বন্দোপাধ্যায়

নারদ মামলায় বৃহত্তর বেঞ্চে হলফনামা দিলেন আইনজীবী কল্যাণ বন্দোপাধ্যায়। ১৭ মে ভুল তথ্য দিয়ে হাইকোর্টকে বিভ্রান্ত করেছে সিবিআই। হলফনামায় লেখা, ‘অন্যতম অভিযুক্ত সুব্রত মুখোপাধ্যায়ের হয়ে আইনি লড়াইয়ের জন্য সিবিআই অফিসে যাই, সেখানে দেখি ফিরহাদ হাকিম ও মদন মিত্রকে। সিবিআই আদালতে মক্কেলের হয়ে আইনি সওয়াল করতে যাই। আদালতে বিক্ষোভ বিশৃঙ্খলায় ছিলাম না। এই অভিযোগ ভিত্তিহীন।’

‘বিচারের পরিস্থিত স্বাভাবিক হতে হবে’, সওয়াল সিবিআই-এর

তুষার মেহতা বলেন, ‘রায় বিকৃত ছিল কারণ যে পরিস্থিতি তৈরি হয়েছিল সেটা এই রায়ের জন্যই করা হয়। বিভিন্ন রায়ের উল্লেখ করে বলেন বিচারের পরিস্থিতি স্বাভাবিক হতে হবে। বিচারপতি হরিশ ট্যান্ডন বলেন, ‘যদি ধরে নিই বিচার সঠিকভাবে হয়নি ধর্না বিক্ষোভের জেরে, তাহলেও কি জামিন বাতিল করা যায়?’ বিচারপতি সৌমেন সেন প্রশ্ন করেন, ‘জামিন কি দেওয়া যায় এ ক্ষেত্রে?’ তুষার মেহতা বলেন, ‘জামিন হলেও বিচার প্রক্রিয়া বিকৃত হয়েছিল সেটা বলতে হবে। আমদের শুনানি করার সুযোগ দিতে হবে।

নারদ মামলা:

গত ১৭ মে নারদ মামলা নাটকীয় মোড় নেয়। অভিযুক্ত চার হেভিওয়েট নেতা সুব্রত মুখোপাধ্যায়, ফিরহাদ হাকিম, মদন মিত্র ও শোভন চট্টোপাধ্যায়কে গ্রেফতার করা হয়। ওই দিন নিম্ন আদালত তাঁদের জামিন দেয়। এরপর সেই রায়কে চ্যালেঞ্জ করে হাইকোর্টে যায় সিবিআই। পরে হাইকোর্টেও ওই চার নেতার অন্তবর্তী জামিন মিলেছে। তবে, মামলা অন্যত্র সরানোর আবেদনের শুনানি চলছে হাইকোর্টে। সিবিআইয়ের হয়ে সওয়াল করছেন সলিসিটর জেনারেল তুষার মেহতা। অভিযুক্তদের হয়ে লড়ছেন কংগ্রেস সাংসদ তথা আইনজীবী অভিষেক মনু সিংভি।

Latest News Updates

Follow us on

Related Stories

Most Read Stories

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla