Madhyamik 2022: যদি ফের বাতিল হয় মাধ্যমিক পরীক্ষা! কোন পথে হবে মূল্যায়ন, কী ভাবছে পর্ষদ

Covid-19: ৭ মার্চ থেকে ২০২২ সালের মাধ্যমিক পরীক্ষা শুরু হওয়ার কথা। পরীক্ষা চলবে ১৬ মার্চ পর্যন্ত।

Madhyamik 2022: যদি ফের বাতিল হয় মাধ্যমিক পরীক্ষা! কোন পথে হবে মূল্যায়ন, কী ভাবছে পর্ষদ
নির্ধারিত সূচি মেনেই মাধ্যমিক - উচ্চমাধ্যমিক। ফাইল চিত্র।
TV9 Bangla Digital

| Edited By: সৈকত দাস

Nov 30, 2021 | 5:14 PM

কলকাতা: সামনেই মাধ্যমিক পরীক্ষা। এদিকে ফের উদ্বেগ বাড়াচ্ছে করোনার নতুন ভ্যারিয়েন্ট ওমিক্রন। ফলে নতুন করে তৈরি হয়েছে দোলাচলতা। কোভিড পরিস্থিতির কারণে চলতি বছরে পরীক্ষা নেওয়া সম্ভব হয়নি। এবারও যদি তেমনটা হয় সেক্ষেত্রে মূল্যায়নের ভিত্তি কী হবে তা নিয়েও প্রশ্ন উঠছে।

ফের মাথাচাড়া দিচ্ছে করোনা। যে ভাবে নতুন ভ্যারিয়েন্ট ওমিক্রনের বাড়বাড়ন্ত শুরু হয়েছে তাতে আগামী কয়েক মাসে কী পরিস্থিতি হবে কেউই জানে না। কিন্তু যদি কোনও কারণে মাধ্যমিক পরীক্ষা নেওয়া সম্ভব না হয়, সেক্ষেত্রে বিকল্প ভাবনা কী হতে পারে, তা নিয়ে একটা প্রশ্ন উঠতে শুরু করেছে।

স্কুল শিক্ষা দফতর সূত্রে খবর,  প্রাথমিক ভাবে বিকল্প ভাবনা হিসাবে টেস্টের ফলাফল একটা ভূমিকা নিতে পারে। পর্ষদ পরীক্ষা নেওয়ার পক্ষে। যদি একান্ত পরীক্ষা নেওয়া সম্ভব না হয়, সেক্ষেত্রে বিকল্প মূল্যায়ন হতে পারে।

চলতি মাসেই আগামী বছরের মাধ্যমিক ও উচ্চমাধ্যমিকের নির্ঘণ্ট প্রকাশ করে মধ্যশিক্ষা পর্ষদ ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা সংসদ। ৭ মার্চ থেকে ২০২২ সালের মাধ্যমিক পরীক্ষা শুরু হওয়ার কথা। পরীক্ষা চলবে ১৬ মার্চ পর্যন্ত। পরীক্ষার দিনক্ষণ ঘোষণার দিনই পর্ষদ সভাপতি কল্যাণময় গঙ্গোপাধ্যায় জানিয়েছিলেন, “মাধ্যমিক শুরু হবে সকাল ১১টা ৪৫ থেকে। চলবে বেলা ৩টে পর্যন্ত। প্রথম ১৫ মিনিট প্রশ্নপত্র পড়ুয়ারা পড়বে। পরের তিন ঘণ্টা থাকবে লেখার জন্য। এবার মাধ্যমিক পরীক্ষা দিচ্ছেন ৯ হাজার ৯৯১ টি স্কুলের পড়ুয়ারা। আমাদের হোম সেন্টার হবে না। কোভিড বিধি মেনে যতখানি পারব পরীক্ষাকেন্দ্র বাড়াব। সেই হিসাবে পরীক্ষা হবে। এখনও অবধি সিদ্ধান্ত টেস্ট আমরা নেব। তবে সবটাই নির্ভর করবে কোভিড পরিস্থিতির উপরে।”

অর্থাৎ কোভিডের কী চিত্র হয়, তার উপরই চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে বলে জানান পর্ষদ সভাপতি। একই সঙ্গে তিনি বলেছিলেন, ডিসেম্বরের শেষের দিকে স্কুলগুলিতে টেস্ট পরীক্ষার ব্যবস্থা করা হতে পারে। এদিকে আচমকাই গত কয়েকদিন ধরে কোভিডের নয়া চেহারা ভয়ের কারণ হয়ে উঠেছে।

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা শুক্রবার জানিয়েছে, তাদের প্রযুক্তিগত উপদেষ্টা মণ্ডলী নতুন ভ্যারিয়েন্টটি পর্যালোচনা করতে বৈঠকে বসেছিল। সেখানে এটিকে উদ্বেগের কারণ হিসাবেই চিহ্নিত করা হয়েছে। বিশেষজ্ঞরা মনে করছেন, ডেল্টার মতো ওমিক্রনের ক্ষেত্রেও কিছু ব্যক্তি উপসর্গহীন থাকতে পারেন। ফলে চোরাগোপ্তা হানা দিতে পারে এই নতুন বিপদ।

ইতিমধ্যেই ভারতে এ নিয়ে উদ্বেগের পরিস্থিতি তৈরি হয়েছে। কিছুদিন আগেই দক্ষিণ আফ্রিকা থেকে আসা দুই ব্যক্তির শরীরে করোনার সংক্রমণের হদিশ পাওয়া গিয়েছিল। প্রাথমিকভাবে জানা গিয়েছিল তাঁদের শরীরে ডেল্টার সংক্রমণ হয়েছে। কিন্তু এখন কর্নাটকের স্বাস্থ্যমন্ত্রী চিকিৎসক কে সুধাকর বলছেন, “এক জন ৬৩ বছর বয়সী ব্যক্তি। তাঁর নাম আমার প্রকাশ করা উচিত নয়। তার রিপোর্ট একটু আলাদা। এটি ডেল্টা ভ্যারিয়েন্টের থেকে আলাদা দেখতে। আমরা আইসিএমআর আধিকারিকদের সঙ্গে আলোচনা করছি।”

আরও পড়ুন: বুথে গিয়েই ভোট দিতে পারবেন করোনা আক্রান্তরাও, বিশেষ পরিকল্পনা নির্বাচন কমিশনের

Follow us on

Related Stories

Most Read Stories

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla