Weather Update: উত্তরে তীব্র গরমের মধ্যেই ভারী বৃষ্টির ‘সুখবর’, হাঁসফাঁস অবস্থা থেকে মিলবে মুক্তি?

Alipore Weather Office: তবে আগামী তিন থেকে চারদিন কলকাতা সহ দক্ষিণবঙ্গের জেলাগুলিতে ভারী বৃষ্টির কোনও সম্ভাবনা নেই বলেই জানিয়েছে আলিপুর আবহাওয়া অফিস।

Weather Update: উত্তরে তীব্র গরমের মধ্যেই ভারী বৃষ্টির 'সুখবর', হাঁসফাঁস অবস্থা থেকে মিলবে মুক্তি?
ভারী বৃষ্টিতে বাড়তে পারে জল-যন্ত্রণা। ছবি:PTI
TV9 Bangla Digital

| Edited By: Soumya Saha

Jul 15, 2022 | 6:34 PM

কলকাতা : উত্তরবঙ্গের জেলাগুলির জন্য স্বস্তির খবর। তীব্র তাপপ্রবাহে নাজেহাল উত্তরবঙ্গে আবারও ভারী বৃষ্টির সম্ভাবনা তৈরি হয়েছে। আগামী ১৮ জুলাই থেকে উত্তরবঙ্গের জেলাগুলিতে বৃষ্টি বাড়তে চলেছে বলে পূর্বাভাস দিয়েছে আলিপুর আবহাওয়া দফতর। উত্তরবঙ্গের জেলাগুলিতে ১৭ তারিখ পর্যন্ত হালকা থেকে মাঝারি বৃষ্টি হবে বলে হাওয়া অফিস থেকে জানানো হয়েছে। ১৮ তারিখ থেকে উপরের দিকের পাঁচটি জেলাতে ভারী থেকে অতি ভারী বৃষ্টির পূর্বাভাস দেওয়া হয়েছয়ে। বিশেষ করে ১৯ জুলাই এবং ২০ জুলাই আলিপুরদুয়ার, কোচবিহার এবং জলপাইগুড়িতে ভারী থেকে অতি ভারী বৃষ্টি হবে। উত্তরবঙ্গের জেলাগুলিতে প্রচণ্ড গরমে নাজেহাল অবস্থা। তাপমাত্রার পারদ ৪০ ডিগ্রির আশপাশে পৌঁছে গিয়েছে। এই পরিস্থিতিতে ভারী বৃষ্টির পূর্বাভাসে কিছুটা স্বস্তি উত্তরের জেলাগুলিতে।

তবে আগামী তিন থেকে চারদিন কলকাতা সহ দক্ষিণবঙ্গের জেলাগুলিতে ভারী বৃষ্টির কোনও সম্ভাবনা নেই বলেই জানিয়েছে আলিপুর আবহাওয়া অফিস। তবে বিক্ষিপ্তভাবে বিভিন্ন সময়ে কলকাতার সহ দক্ষিণবঙ্গের বেশ কিছু জায়গায় বৃষ্টি হবে। এদিকে শুক্রবার পর্যন্ত সমুদ্রে মাছ ধরতে যেতে নিষেধ করা হয়েছে মৎসজীবীদের। উত্তরের জেলাগুলিতে ভারী বৃষ্টির পূর্বাভাস রয়েছে ঠিকই, তবে তাপমাত্রা খুব একটা পরিবর্তন হবে না দুই বঙ্গে। এদিকে দক্ষিণবঙ্গের জেলাগুলিতে বৃষ্টির ঘাটতি এখনও বজায় আছে।

এই খবরটিও পড়ুন

উল্লেখ্য, উত্তরবঙ্গের বেশ কয়েকটি জেলায় তীব্র তাপপ্রবাহের কারণে প্রাথমিক এবং মাধ্যমিক স্কুলগুলি মর্নিং সেশন খোলা রাখা অথবা বিকল্প কোনও ব্যবস্থা করা যায় কি না, সেই বিষয়ে চিন্তাভাবনা করার জন্য রাজ্যের শিক্ষামন্ত্রী ব্রাত্য বসুর কাছে চিঠি পাঠিয়েছেন বিজেপি বিধায়ক শঙ্কর ঘোষ। ইতিমধ্যেই দিনহাটা কলেজের এক ছাত্রীর বৃহস্পতিবার অসুস্থ হয়ে পড়েছিল। পরে তাঁর মৃত্যু হয়। প্রাথমিকভাবে অনুমান করা হচ্ছে, তাপপ্রবাহের কারণেই ওই ছাত্রীর মৃত্যু হয়েছে। এই পরিস্থিতিতে জলপাইগুড়ি জেলার মুখ্য স্বাস্থ্য আধিকারিক চিকিৎসক অসীম হালদারও জেলাবাসীকে এই প্রচণ্ড গরমের মধ্যে সাবধানে থাকার পরামর্শ দিয়েছেন।

Follow us on

Related Stories

Most Read Stories

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla