‘ভোট পরবর্তী হিংসা নিয়েই কথা’, ধনখড়ের সাক্ষাত শেষে দাবি সাংসদ জন বার্লার

বিজেপি সাংসদ জন বার্লার সঙ্গে সাক্ষাতের বিষয়টি টুইট করেন রাজ্যপাল (Jagdeep Dhankhar)।

'ভোট পরবর্তী হিংসা নিয়েই কথা', ধনখড়ের সাক্ষাত শেষে দাবি সাংসদ জন বার্লার
নিজস্ব চিত্র।

দার্জিলিং: ঘরছাড়া বিজেপি (BJP) কর্মীদের নিয়ে দার্জিলিংয়ে রাজভবনে গেলেন আলিপুরদুয়ারের সাংসদ জন বার্লা। সঙ্গে ছিলেন কুমারগ্রামের বিধায়ক মনোজ ওরাওঁ। এখন উত্তরবঙ্গ সফরে রয়েছেন রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড়। বৃহস্পতিবার তাঁরই দ্বারস্থ হন বিজেপি সাংসদ।

রাজভবন থেকে বেরিয়ে জন বার্লা জানান, সংবিধান অনুযায়ী রাজ্যের প্রধান রাজ্যপাল। তাই তাঁকে বিজেপি কর্মীদের দুরবস্থার বিষয়টি জানানো হয়েছে। কোথায় কী ভাবে বিজেপি কর্মীরা আক্রান্ত হচ্ছে সে কথাই জানানো হয়েছে বলে দাবি করেন বার্লা। বিজেপি সাংসদের দাবি, ২ মে ভোটের ফল প্রকাশের পর থেকে এখনও বিজেপির বহু কর্মী ঘরছাড়া। অনেকের কোনও খবরই নেই।

এদিন রাজভবনে প্রায় ঘণ্টা দেড়েক ছিলেন সাংসদ ও তাঁর সঙ্গীরা। সেখান থেকে বেরিয়ে জন বার্লার বক্তব্য, “ঘরছাড়াদের ফেরাতে রাজ্য প্রশাসন যাতে দ্রুত ব্যবস্থা নেয় সে বিষয়েই মহামান্য রাজ্যপালকে আবেদন জানিয়েছি। আমরা চাই এ ক্ষেত্রে রাজ্যপাল হস্তক্ষেপ করুন। এ ভাবে চলতে থাকলে বিজেপিকে বড় আন্দোলনের পথ বেছে নিতে হবে।” জন বার্লার দাবি, চূড়ান্ত অসহায়তার মধ্যে দিন কাটছে বিজেপি কর্মীদের। পুলিশ প্রশাসন কোনও রকম সহযোগিতা করছে না।

আরও পড়ুন: ‘টাকা যা লাগবে দিব, নম্বর বাড়াতেই হবে’, নবমের রেজাল্ট নিয়ে প্রধান শিক্ষককে চাপ পড়ুয়া-অভিভাবকদের

এদিন বার্লার সঙ্গে সাক্ষাতের কথা টুইটে জানান রাজ্যপাল। জগদীপ ধনখড় লেখেন, ‘আলিপুরদুয়ারের সাংসদ, কুমারগ্রামের বিধানসভা কেন্দ্রের ৯ জন পঞ্চায়েত সদস্য ও একজন জেলা পরিষদ সদস্য হেনস্থার বিরুদ্ধে জানাতে এসেছিলেন। পুলিশ প্রশাসনের হস্তক্ষেপের দাবি জানিয়েছেন তাঁরা।’

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla