Nadia: তৃতীয় ঢেউয়ের আশঙ্কা, চোখ রাঙাচ্ছে দোসর সোয়াইন ফ্লু!

Swine Flu: উল্লেখ্য, গত কয়েকদিনে ধরে জ্বরে আক্রান্ত হয়ে শ্বাসকষ্ট জনিত সমস্যা নিয়ে প্রায় ৭০ জন শিশু ভর্তি হয়েছে রানাঘাট হাসপাতালে।

Nadia: তৃতীয় ঢেউয়ের আশঙ্কা, চোখ রাঙাচ্ছে দোসর সোয়াইন ফ্লু!
সোয়াইন ফ্লু ধরা পড়ল নদিয়ায়, ফাইল ছবি

নদিয়া: বঙ্গ দোরগোড়ায় করোনার তৃতীয় ঢেউ। রাজ্যে আতঙ্ক অজানা জ্বরের। এরই মধ্যে চিন্তা বাড়াচ্ছে দোসর সোয়াইন ফ্লু (Swine Flu)। ইতিমধ্যেই এইচওয়ান এনওয়ান ভাইরাসের কবলে পড়েছেন একই পরিবারের ৭জন। হবিবপুরের নাথপাড়ার ঘটনা। সোয়াইন ফ্লুয়ের এইভাবে ‘অতর্কিত আক্রমণ’-এর খবর পেয়ে নড়েচড়ে বসেছে জেলা স্বাস্থ্য দফতর।

নদিয়া জেলা স্বাস্থ্য দফতর সূত্রে খবর, গত ১৪ সেপ্টেম্বর হবিবপুরের নাথপাড়ায়  একি পরিবারের  ৭ জনের গায়ে ব্যথা, জ্বর-সহ একাধিক উপসর্গ দেখা দেয়। তাঁরা কলকাতার একটি বেসরকারি নার্সিংহোমে ভর্তি হন। পরীক্ষা করার পর জানা যায় সকলেই সোয়াইন ফ্লুতে আক্রান্ত। এরপরেই পদক্ষেপ করে জেলা প্রশাসন। যদিও হাসপাতালের তরফে জানানো হয়, আক্রান্তরা সকলেই সুস্থ রয়েছেন। কিছুদিন পরেই তাঁদের ছেড়ে দেওয়া হবে।

ব্লক স্বাস্থ্য় আধিকারিকের তরফে জানা গিয়েছে, সোয়াইন ফ্লু-তে আক্রান্ত হওয়ার খবর পেয়েই এলাকায় গিয়ে  আক্রান্তদের পরিজন ও প্রতিবেশীদের সঙ্গে কথা বলেন স্বাস্থ্যকর্মীরা। এলাকা জুড়ে চলে মাইকিং ও সচেতনতা প্রচার। উল্লেখ্য, গত কয়েকদিনে ধরে জ্বরে আক্রান্ত হয়ে শ্বাসকষ্ট জনিত সমস্যা নিয়ে প্রায় ৭০ জন শিশু ভর্তি হয়েছে রানাঘাট হাসপাতালে। সূত্রের খবর, গত কয়েকদিনে রানাঘাট ও তার পার্শ্ববর্তী অঞ্চলে ব্যাপক হারে অজানা জ্বরে আক্রান্ত হয়েছে বহু শিশু।

শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত ১৫ দিন থেকে দেড় বছর বয়সের প্রায় ৭০ জন শিশুকে রানাঘাট হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। অভিযোগ, এত শিশু এক সঙ্গে জ্বরে আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হওয়ায় কারণে স্বাভাবিক ভাবেই বেডের সমস্যা তৈরি হয়েছে। আক্রান্ত শিশুদের অভিভাবকদের দাবি, এক একটি বেডে প্রায় ৪ জন শিশুকে রাখা হয়েছে।

প্রতিদিন শিশুদের নিয়ম করে স্বাস্থ্য পরীক্ষা ও ওষুধ দেওয়ার ব্যবস্থা করছেন স্বাস্থ্যকর্মীরা। অসুস্থ শিশুদের ওপর দিনরাত নজর রাখা হচ্ছে। প্রসঙ্গত, কোভিড আবহে রাজ্যের কোন‌ হাসপাতালে কত শিশু শয্যা রয়েছে তা জানিয়ে বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করল রাজ্য স্বাস্থ্য দফতর (Health Department)। কোথায় কত এস‌এনস‌ইউ, পিকু, নিকু শয্যা কার্যকরী অবস্থায় রয়েছে তা বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়েছে। সাধারণ মানুষকে শিশুরোগের শয্যা সম্পর্কে অবহিত করতেই এই পদক্ষেপ। সম্প্রতি শিশুদের মধ্যে অসুস্থতা বৃদ্ধি হ‌ওয়ায় শয্যা সংখ্যা নিয়ে সাধারণ মানুষের মধ্যে যাতে বিভ্রান্তি না হয় তাই জনস্বার্থে বিজ্ঞপ্তি দেওয়া হয়েছে বলে জানিয়েছেন স্বাস্থ্য অধিকর্তা অজয় চক্রবর্তী।

আরও পড়ুন: Jitendra Tiwari: সোশ্যাল মিডিয়া থেকে সরেছে মোদী-পদ্মের ছবি, জিতেন্দ্রর গতিপ্রকৃতিতে জল্পনা!

 

Read Full Article

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla