BJP: ‘তৃণমূলের সাহায্য নিতে লজ্জা করে না?’, বিজেপি কর্মীর পরিবারকে ‘সামাজিক বয়কটের ডাক’ তৃণমূলের

Sabang: পশ্চিম মেদিনীপুর জেলার সবং ব্লকের বলপাই ৯ নম্বর অঞ্চলের পানিথর গ্রামের বাসিন্দা তথা বিজেপির বুথ সভাপতি দীপক সামন্ত। তাঁর অভিযোগ, ভোট-পরবর্তী ফলাফলের পর তাঁদের বাড়িতে এসে হামলা চালায় তৃণমূল কর্মীরা।

BJP: 'তৃণমূলের সাহায্য নিতে লজ্জা করে না?', বিজেপি কর্মীর পরিবারকে 'সামাজিক বয়কটের ডাক' তৃণমূলের
এই পরিবারকেই এক ঘরে করে রাখা হয়েছে। (নিজস্ব ছবি)
TV9 Bangla Digital

| Edited By: অবন্তিকা প্রামাণিক

Jun 09, 2022 | 1:01 PM

পশ্চিম মেদিনীপুর: কী অবস্থা! বিজেপি করায় সামাজিক বয়কটের শিকার সবংয়ের পানিথর এলাকার এক বিজেপি কর্মীর পরিবার।

পশ্চিম মেদিনীপুর জেলার সবং ব্লকের বলপাই ৯ নম্বর অঞ্চলের পানিথর গ্রামের বাসিন্দা তথা বিজেপির বুথ সভাপতি দীপক সামন্ত। তাঁর অভিযোগ, ভোট-পরবর্তী ফলাফলের পর তাঁদের বাড়িতে এসে হামলা চালায় তৃণমূল কর্মীরা। এমনকী, বাড়ির মহিলাদেরও অশ্রাব্য ভাষায় গালিগালাজ করা হয়। সমস্ত রকম সরকারি সুযোগ-সুবিধা থেকেও তাঁদের বয়কট করা হয়েছে। বিজেপির ওই বুথ সভাপতির আরও অভিযোগ, এই বিষয়ে বারংবার থানায় জানানো হলেও কার্যত নীরব থেকেছে পুলিশ প্রশাসন।

এখানেই শেষ নয়, বিজেপি কর্মীর পরিবারের আরও অভিযোগ, জমিতে চাষ করতে দেওয়া হচ্ছে না। চাষের জমিতে যাঁরা জল সরবরাহ করেন, ট্রাক্টরের লাঙল দিয়ে যাঁরা হাল চাষ করেন তাঁদেরও রীতিমত হুমকি দেওয়া হচ্ছে যাতে জমিতে কোনওরূপ চাষ-আবাদ না করা যায়। কোনও সামাজিক অনুষ্ঠানেও প্রতিবেশীদের সঙ্গে সখ্যতা বিনিময় বারণ। আর কেউ যদি সেই বিষয় উপেক্ষা করে তাহলে তাঁদেরও হুমকি দিচ্ছেন স্থানীয় তৃণমূল নেতৃত্বরা। ফলে রীতিমতো গ্রামে বসবাস করেও একঘরে হয়ে রয়েছেন তাঁরা ।

এখানেই শেষ নয়, বিজেপি পরিবারের আরও বিস্ফোরক অভিযোগ, গত কয়েকদিন আগে আয়োজিত দুয়ারে সরকার কর্মসূচিতে বিজেপি পরিবারের এক মহিলা সেখানে উপস্থিত হলে স্থানীয় তৃণমূল প্রধান ও তাঁর স্বামী অশ্রাব্য ভাষায় ওই মহিলাকে গালিগালাজ করেন। সঙ্গে তাঁকে বলা হয়, ‘বিজেপি করিস লজ্জা লাগে না তোদের তৃণমূলের কাছে এসে সাহায্য নিতে ?’ এরপর মহিলাকে তীব্র ভর্ৎসনা করে তাড়িয়ে দেওয়া হয়।

সংশ্লিষ্ট বিজেপি পরিবারের এক সদস্য বৈশালি সামন্ত বলেন, ‘স্থানীয় তৃণমূল নেতা কিরণ পাল, গোপাল মাইতি, বিকাশ মাইতি, ভোলানাথ সাউরা বাড়িতে এসে হুমকি দিয়ে যাচ্ছেন ক্রমাগত। আমাদের অপরাধ আমরা বিজেপি কর্মী। দীর্ঘ দিন আমাদের চাষ বন্ধ করে দিয়েছে তৃণমূলের নেতারা। প্রতিবেশীদের সঙ্গে কথা বলা থেকে কারও অনুষ্ঠানে যাওয়াও নিষেধ আমাদের! না হলে জরিমানা করা হবে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। এমতাবস্থায় আমরা চরম আতঙ্কের মধ্যে দিন কাটাচ্ছি।’

এই খবরটিও পড়ুন

যদিও, এ ঘটনা প্রসঙ্গে ঘাটাল সাংগঠনিক জেলা তৃণমূলের চেয়ারম্যান অমল কুমার পান্ডা জানান, আমার কাছে আপাতত এরকম কোনও খবর এখনও আসেনি। তবে গোটা বিষয়টি খতিয়ে দেখা হবে বলে জানিয়েছেন তিনি।

Latest News Updates

Follow us on

Related Stories

Most Read Stories

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla