তৃণমূল উপপ্রধানের গাড়ি ভাঙচুরের অভিযোগ বিজেপির বিরুদ্ধে, উত্তপ্ত জলপাইগুড়ি

তৃণমূলের এই অভিযোগকে রীতিমতো ধূলিসাৎ করে দিয়ে পাল্টা ‘গোষ্ঠীদ্বন্দ্বের’ তোপ দেগেছে স্থানীয় বিজেপি নেতৃত্ব। সংখ্যালঘু মোর্চার রাজ্য কমিটির সদস্য মণিরুল ইসলাম জানান, গত লোকসভা নির্বাচনে গোটা উত্তরবঙ্গের মানুষ তৃণমূলকে ধুয়ে মুছে সাফ করে বিজেপিকে স্বাগত জানিয়েছে।

তৃণমূল উপপ্রধানের গাড়ি ভাঙচুরের অভিযোগ বিজেপির বিরুদ্ধে, উত্তপ্ত জলপাইগুড়ি
উপপ্রধানের ভাঙচুর হওয়া গাড়ি, নিজস্ব চিত্র
tista roychowdhury

|

Jan 22, 2021 | 8:32 PM

জলপাইগুড়ি : এগিয়ে আসছে বিধানসভা নির্বাচন। পাল্লা দিয়ে বাড়ছে রাজ্য রাজনীতির পারদও। রাজগঞ্জে তৃণমূল (TMC) উপপ্রধানের গাড়িতে ব্যাপক ভাঙচুর চালানোর অভিযোগ উঠল একদল বিজেপি (BJP) আশ্রিত দুষ্কৃতীদের বিরুদ্ধে। ঘটনায় চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে এলাকায়।

সূত্রের খবর, রাজগঞ্জের সন্ন্যাসীকাটা গ্রাম পঞ্চায়েতের উপপ্রধান আতিয়ার রহমান ও চার তৃণমূল(TMC) নেতা বেলাকোবা থেকে নিজস্ব গাড়িতে করে বাড়ি ফিরছিলেন। রাজগঞ্জ থানা থেকে ৫ কিলোমিটার দূরে সাউ ব্রিজ সংলগ্ন এলাকায় দাঁড়ালে আচমকা হামলা হয় বলে অভিযোগ। লাঠি ও ধারালো অস্ত্র নিয়ে তেড়ে আসে ওই দুষ্কৃতীরা। আচমকা এই ঘটনায় ভয় পেয়ে আর্তনাদ করতে শুরু করেন তাঁরা। চিৎকার শুনে ছুটে আসেন আশেপাশের মানুষ। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পৌঁছয় রাজগঞ্জ থানার বিশাল পুলিস বাহিনী। জখম চার নেতাকে স্থানীয় হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

আরও পড়ুন :  ভাটপাড়ায় গুলিবিদ্ধ বিজেপি কর্মীর মৃত্যু, থমথমে পরিবেশে কড়া পুলিসি নজরদারি

আক্রান্ত তৃণমুল উপপ্রধান আতিয়ার রহমান বলেন, “আমি আত্মীয়ের বাড়ি থেকে ফিরছিলাম। রাস্তায় প্রকৃতির ডাকে সাড়া দিতে গাড়ি থেকে নামলে আমাদের ঘিরে ধরে লাঠি, রড, বল্লম দিয়ে হামলা চালায়। তবে কারা এসেছিল চিনতে পারিনি। থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছি।”

রাজগঞ্জের তৃণমূল বিধায়ক খগেশ্বর রায় এই হামলা নিয়ে বিজেপির(BJP) বিরুদ্ধে অভিযোগের আঙুল তুলেছেন। তাঁর দাবি, রাজ্যের বিভিন্ন যায়গায় তৃণমূল কর্মীদের ভয় দেখাতে হামলা চালাচ্ছে বিজেপি। রাজগঞ্জ তার ব্যতিক্রম নয়। দোষীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি করে আগামীকাল গাডরায় পথসভার ডাক দিয়েছেন স্থানীয় তৃণমূল নেতৃত্ব।

আরও পড়ুন : নিশীথ প্রামাণিকের বাড়ির পাশেই ভস্মীভূত বিজেপি কার্যালয়, তুলকালাম দিনহাটায়

তৃণমূলের এই অভিযোগকে রীতিমতো ধূলিসাৎ করে দিয়ে পাল্টা ‘গোষ্ঠীদ্বন্দ্বের’ তোপ দেগেছে স্থানীয় বিজেপি নেতৃত্ব। সংখ্যালঘু মোর্চার রাজ্য কমিটির সদস্য মণিরুল ইসলাম জানান, গত লোকসভা নির্বাচনে গোটা উত্তরবঙ্গের মানুষ তৃণমূলকে ধুয়ে মুছে সাফ করে বিজেপিকে স্বাগত জানিয়েছে। রাজগঞ্জের বিধায়ক নিজেই তাঁর বুথে পিছিয়ে আছেন। সেই ক্ষোভ থেকেই বিজেপির দিকে নিশানা করেছে তৃণমূল।

জলপাইগুড়ি অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সন্দীপ মণ্ডল জানান, ঘটনাকে কেন্দ্র করে ধোঁয়াশার সৃষ্টি হয়েছে। কারা এই ঘটনা ঘটিয়েছে তা স্পষ্ট নয়। গোটা ঘটনাই তদন্ত করে দেখছে প্রশাসন।

Follow us on

Related Stories

Most Read Stories

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla