অশান্ত মায়ানমার: ঘুষ নিয়েছিলেন সু কি, মামলা দায়ের করে দাবি জান্তার

জান্তার অভিযোগ পদমর্যাদার ব্যবহার করে সুকি দুর্নীতি করেছেন। এর আগে তাঁর বিরুদ্ধে রাষ্ট্রদ্রোহের মামলাও করেছে জান্তা।

অশান্ত মায়ানমার: ঘুষ নিয়েছিলেন সু কি, মামলা দায়ের করে দাবি জান্তার
ফাইল চিত্র

ইয়াঙ্গন: মায়ানমারে (Myanmar) শান্তি আসছে না। ফেব্রুয়ারির ১ তারিখ থেকে ক্রমশ অশান্ত হয়ে উঠেছে মায়ানমার। সে দিনই নেত্রী আং সাং সু কিকে আটক করে মায়ানমারের সেনা পুলিশ। দেশ পরিচালনার দায়িত্ব নেয় সেনা। এ বার সু কির বিরুদ্ধে দুর্নীতির মামলা দায়ের করল সেনা। জান্তার দাবি, সু কি অবৈধ সোনা ও নগদ ৬০ হাজার মিলিয়ন ডলার নিয়েছেন। যদি এই দাবি নস্যাৎ করেছেন নোবেলজয়ী সু কির আইনজীবী।

ফেব্রুয়ারির ১ তারিখ সু কি আটক হওয়ার পর থেকে লাগাতার আগুন জ্বলেছে মায়ানমারে। সু কি-র মুক্তি ও গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠার দাবিতে রাস্তায় নেমেছে লাখো লাখো মায়ানমারবাসী। গুলি চালিয়েছে জান্তা। এ পর্যন্ত জান্তা-গণতন্ত্রপন্থীদের সংঘাতে প্রাণ হারিয়েছেন ৮৫০ জন সাধারণ মানুষ। তবু হিংসা থামেনি। সু কির বিরুদ্ধে আগেই একাধিক মামলা দায়ের করেছিল জান্তা সেনা। এ বার ১১ কিলোগ্রাম সোনা ও অবৈধ নগদ ৬০ হাজার মিলিয়ন ডলার নেওয়ার অভিযোগ সু কির নামে।

জান্তার অভিযোগ পদমর্যাদার ব্যবহার করে সুকি দুর্নীতি করেছেন। এর আগে তাঁর বিরুদ্ধে রাষ্ট্রদ্রোহের মামলাও করেছে জান্তা। যদিও জান্তার এই অভিযোগ উড়িয়ে দিয়েছেন সু কির আইনজীবী খিন মং জ। তাঁর দাবি বেশিদিন জেলে বন্দি রাখতে ইচ্ছে করে সু কির বিরুদ্ধে এহেন অভিযোগ আনা হচ্ছে। ১৯৯০ সালের নির্বাচনে বিপুল ভোটে জয় পেয়েছিল সু কি-র দল। ১৯৯১ সালে নোবেল শান্তি পুরষ্কারও পান তিনি। তবে সু কি জিতলেও ক্ষমতা হস্তান্তরে নারাজ ছিলসেনাবাহিনী। এর গৃহবন্দি অবস্থাতেই কেটেছিল সু কির জীবন।

২০১০ সালে গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠা হল মায়ানমারে। মুক্তি পান গৃহবন্দি সু কি। এ বারও নির্বাচনে যাতে সু কি-র দল এনএলডি লড়তে না পারে তার জন্যই সু কিকে গ্রেফতার করে রাখা হচ্ছে বলে দাবি তাঁর আইনজীবী খিন মং জ-র।

আরও পড়ুন: ভারতকে ৮ কোটি টিকা দেবে কোভ্যাক্স, ঘোষণা মার্কিন প্রেসিডেন্টের