Budget 2022: পাখির চোখ পাঁচ রাজ্যের নির্বাচন,আসন্ন বাজেটে কৃষি সারের উপর ভর্তুকি বাড়াতে পারে কেন্দ্র

Budget 2022: পাখির চোখ পাঁচ রাজ্যের নির্বাচন,আসন্ন বাজেটে কৃষি সারের উপর ভর্তুকি বাড়াতে পারে কেন্দ্র
ফাইল চিত্র

সূত্রের বক্তব্য, বর্তমান অর্থিক বছরের জন্য মোট ভর্তুকি বিল প্রায় ৫.৩৫ থেকে ৫.৪৫ লাখ কোটি টাকা হওয়ার আশা রয়েছে, যা সরকার আগামী অর্থ বছরে কম করতে চায়। এবারের সাধারণ বাজেটের পরেই পাঁচ রাজ্যের বিধানসভা নির্বাচন হবে। এই অবস্থায় এই বাজেট জনপ্রিয় হওয়ার সম্পূর্ণ সম্ভাবনা প্রকাশ করা হচ্ছে। বর্তমান অর্থ বছরের জন্য খাদ্য ভর্তুকি বিলের সংশোধিত অনুমান প্রায় ৩.৯০ লাখ কোটি টাকা হওয়ার আশা রয়েছে, যা বাজেটে করা ২.৪৩ লাখ কোটি টাকার চেয়ে বেশি।

TV9 Bangla Digital

| Edited By: Shubhendu Debnath

Jan 19, 2022 | 7:09 PM

নয়া দিল্লি:আগামী মাসের এক তারিখেই পেশ হতে চলেছে কেন্দ্রীয় বাজেট। আর তারপরই রয়েছে পাঁচ রাজ্যের বিধানসভা নির্বাচন। মনে করা হচ্ছে এই নির্বাচনকে মাথায় রেখেই আগামী বাজেটে কৃষির উপর জোর দেওয়া হতে পারে। সরকারি সূত্রে পাওয়া খবর অনুযায়ী, মনে করা হচ্ছে যে আগামী বাজেটে কৃষি সার বিক্রয় কোম্পানিগুলির জন্য বাজেটে ১.৪ লক্ষ কোটি টাকার ভর্তুকি বরাদ্দ হতে পারে। কৃষকরা যাতে আরও সস্তায় কৃষি সার Fertilizer Subside) কিনতে পারেন সেই কথা মাথায় রেখেই বাজেটে এই পদক্ষেপ নিতে পারেন কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারমন।

সূত্রের তরফে পাওয়া তথ্য অনুযায়ী, এই ভর্তুকিকে ২.৬০ লাখ কোটি টাকা আর ৯০,০০০ কোটি টাকায় প্রস্তুতি চলছে। যা ২০২২ অর্থ বছরের জন্য সংশোধিত অনুমানের তুলনায় কম হবে। প্রসঙ্গত, দামি সার সস্তায় চাষীদের কাছে পৌঁছয় সরকার। ভারত সরকার দ্বারা পুরো দেশে সস্তা দামে মানুষতে প্রয়োজনীয় পণ্য প্রদান করার ছাড়কে বলা হয় ভর্তুকি। ভর্তুকি সেই অর্থ, যা সরকার সেই শিল্প ক্ষেত্রগুলিকে দেয় যারা মানুষকে ভর্তুকিযুক্ত পণ্য বিক্রি করে। সরকার চাষীদের সার, কেরসিন তেল, রান্নার গ্যাসের সিলিন্ডার, খাবার-দাবারের জিনিসের উপর, আর কিছুক্ষেত্রে ঋণের উপর ভর্তুকি দিয়ে থাকে। তবে ভর্তুকির পরিসংখ্যান সরকারের ব্যালেন্স শিটের উপর যথেষ্ট প্রভাব ফেলে। এর ভিত্তিতেই অনুমান করা হয় যে সরকার নিজেদের আর্থিক লোকসান পূরণ করতে পারবে কি না। বাজেট দেখার সময় এর উপর অবশ্যই মনোযোগ দেওয়া উচিৎ যে ভর্তুকি কোথায় আর কত দেওয়া হচ্ছে।

বাজেটে কী হবে?

সূত্রের বক্তব্য, বর্তমান অর্থিক বছরের জন্য মোট ভর্তুকি বিল প্রায় ৫.৩৫ থেকে ৫.৪৫ লাখ কোটি টাকা হওয়ার আশা রয়েছে, যা সরকার আগামী অর্থ বছরে কম করতে চায়। এবারের সাধারণ বাজেটের পরেই পাঁচ রাজ্যের বিধানসভা নির্বাচন হবে। এই অবস্থায় এই বাজেট জনপ্রিয় হওয়ার সম্পূর্ণ সম্ভাবনা প্রকাশ করা হচ্ছে। বর্তমান অর্থ বছরের জন্য খাদ্য ভর্তুকি বিলের সংশোধিত অনুমান প্রায় ৩.৯০ লক্ষ কোটি টাকা হওয়ার আশা রয়েছে, যা গত বাজেটে করা ২.৪৩ লক্ষ কোটি টাকার চেয়ে বেশি। কিন্তু ২০২১ এর অর্থ বছরের ৪২ লক্ষ কোটি টাকার কম। এছাড়াও রিপোর্ট অনুযায়ী অর্থ বছর ২০২২ এর জন্য প্রধানমন্ত্রী গরীব কল্যাণ অন্ন যোজনা (PMGKAY) এর মোট খরচ ১.৪৭ লাখ কোটি টাকা হওয়ার অনুমান রয়েছে।

জেনে নেওয়া যাক সাবসিডির ব্যাপারে

ভর্তুকি সাধারণভাবে ক্যাশ পেমেন্ট অথবা ট্যাক্স ছাড় হিসেবে দেওয়া হয়। অর্থিক সাহায্য সকলেই চান। এই কারণে সরকার বাজেটে ভর্তুকি দেয়। সরকার কত কম অথবা বেশি ভর্তুকি দিচ্ছে, এর উপর ভিত্তি করেই বাজেটের মূল্যায়ণ করা হয়। সরকার নিজের সম্পদ থেকে এই ভর্তুকির ঘোষণা করে। প্রধানত ভর্তুকি প্রত্যক্ষ এবং পরোক্ষ দুইভাবেই দেওয়া হয়। যখন এই ভর্তুকি টাকায় দেওয়া হয় তখন এটিকে ডাইরেক্ট অর্থাৎ প্রত্যক্ষ ভর্তুকি বলা হয়, আর ট্যাক্সে ছাড়, ঋণের সুদে ছাড়, কাদের দামে ছাড় ইত্যাদিকে পরোক্ষ ভর্তুকি বলা হয়। যখন কোনও ভর্তুকি ক্যাশ পেমেন্ট হিসেবে দেওয়া হয়, তো তাকে বিশেষভাবে প্রত্যক্ষ ভর্তুকি মনে করা হয়। অন্যদিকে, যে কোনও নগদহীন লাভের সহায়তাকে পরোক্ষ ভর্তুকি মনে করা হয়, যেমন করে ছাড়, লোনে কম সুদ দেওয়া ইত্যাদি।

আরও পড়ুন: Budget 2022: ক্ষুদ্র ঋণ সংস্থাগুলির দাবি ঋণ গ্যারান্টি যোজনার সীমা বাড়াক সরকার

Follow us on

Related Stories

Most Read Stories

Click on your DTH Provider to Add TV9 BANGLA