BSNL Revival Package: ৫জি নিয়ে স্বমহিমায় ফিরছে বিএসএনএল, ১.৬৪ লক্ষ কোটি টাকা অনুমোদন করল মোদী মন্ত্রিসভা

Revival package for BSNL: বুধবার (২৭ জুলাই) কেন্দ্রীয় টেলিকম মন্ত্রী অশ্বিনী বৈষ্ণব জানিয়েছেন, বিএসএনএল-কে পুনরুজ্জীবিত করতে কেন্দ্রীয় মন্ত্রিসভা এদিন ১,৬৪,০০০ কোটি টাকার প্যাকেজ অনুমোদন করেছে।

BSNL Revival Package: ৫জি নিয়ে স্বমহিমায় ফিরছে বিএসএনএল, ১.৬৪ লক্ষ কোটি টাকা অনুমোদন করল মোদী মন্ত্রিসভা
ফের স্বমহিমায় ফিরবে রাষ্ট্রায়ত্ব টেলিকম সংস্থা বিএসএনএল?
Amartya Lahiri

|

Jul 27, 2022 | 7:05 PM

নয়া দিল্লি: ফের স্বমহিমায় ফিরছে রাষ্ট্রায়ত্ব টেলিকম সংস্থা বিএসএনএল। বুধবার (২৭ জুলাই) কেন্দ্রীয় টেলিকম মন্ত্রী অশ্বিনী বৈষ্ণব জানিয়েছেন, বিএসএনএল-কে পুনরুজ্জীবিত করতে কেন্দ্রীয় মন্ত্রিসভা এদিন ১,৬৪,০০০ কোটি টাকার প্যাকেজ অনুমোদন করেছে! বর্তমানে বাজারে ৩৩,০০০ কোটি টাকার ঋণ রয়েছে বিএসএনএল-এর। সংস্থার ব্যালেন্স শীটের চাপ কমাতে এই আর্থিক প্যাকেজ ব্যবহার করা হবে। ঋণের খরচ কমাতে বিএসএনএল সার্বভৌম গ্যারান্টি বন্ড প্রকাশ করবে। পাশপাশি বিএসএনএল-এর ফাইবার অপটিক্যাল যোগাযোগ পরিষেবার পরিধি বৃদ্ধি করে, সংস্থার পরিষেবার মান উন্নত করা হবে। এর জন্য বিএসএনএল-এর পরিকাঠামোর উন্নয়ন করা হবে। পাশাপাশি মন্ত্রিসভা ফোরজি এবং ফাইভজি পরিষেবার জন্য স্পেকট্রামের প্রশাসনিক বরাদ্দকরণেরও অনুমোদন দিয়েছে কেন্দ্রীয় মন্ত্রিসভা। সেই সঙ্গে বিএসএনএল এবং ভারত ব্রডব্যান্ড নেটওয়ার্ক লিমিটেডের একীকরণের বিষয়েও অনুমোদন পাওয়া গিয়েছে।

এই আর্থিক প্যাকেজের তিনটি প্রধান লক্ষ্য রয়েছে – বিএসএনএল-এর পরিষেবার মান উন্নত করা, ব্যালেন্স শিটকে চাপমুক্ত করা এবং সংস্থার ফাইবার অপটিক্যাল কেবল নেটওয়ার্কের প্রসার ঘটানো। প্যাকেজটিতে মোট ৪৩,৯৬৪ কোটি টাকার নগদ সহায়তা এবং ১.২০ লক্ষ কোটি টাকার অন্যান্য সহায়তা দেওয়া হবে বলে জানিয়েছেন অশ্বিনী বৈষ্ণব। তিনি এদিন আরও জানিয়েছেন, এক সমীক্ষায় দেখা গিয়েছে, ভারতের ২৪,৬৮০টি গ্রামে এখনও কোনও মোবাইল নেটওয়ার্ক সংযোগ নেই। ভারত জুড়ে মোট ২৫,০০০ প্রত্যন্ত গ্রামে মোবাইল নেটওয়ার্ক সংযোগ পৌঁছে দিতে ২৬,৩১৬ কোটি টাকা বিনিয়োগের অনুমোদন দিয়েছে মন্ত্রিসভা।

বিএসএনএল-কে পুনরুজ্জীবিত করার জন্য চার বছর সময় নেওয়া হয়েছে। তবে বেশিরভাগ পদক্ষেপই প্রথম দুই বছরের মধ্যেই বাস্তবায়িত করা হবে। বর্তমানে বিএসএনএল-র ৬.৮৩ লক্ষ কিলোমিটারের বেশি দীর্ঘ অপটিক্যাল ফাইবার কেবল নেটওয়ার্ক রয়েছে। বিএসএনএল এবং বিবিএনএল-এর একীভূত হলে এই টেলকম সংস্থা বাড়তি ৫.৬৭ লক্ষ কিলোমিটার অপটিক্যাল ফাইবার কেবল নেটওয়ার্কের সুবিধা পাবে। বিএসএনএল-এর সিএমডি পিকে পুরওয়ার বলেছেন, “বিএসএনএল কেন্দ্রীয় সরকারের একটি কার্যকরী সংস্থা হিসেবে কাজ করবে। সংস্থার যাবতীয় সম্পদের মালিকানা সরকারের কাছেই থাকবে। বিবিএনএল-এর কর্মী সংখ্যা এখন ২০০ জনেরও কম। আমরা তাদেরকে বিএসএনএল-এর আওতায় আনার প্রস্তাব দিয়েছিলাম। দুই সংস্থাই রাজস্ব ভাগের চুক্তিকে সম্মান করবে।”

একই সঙ্গে আরেক রাষ্ট্রায়ত্ব টেলিকম সংস্থা এমটিএনএল-এর বেসরকারিকরণের কোনও পরিকল্পনা নেই বলে জানিয়েছেন, কেন্দ্রীয় মন্ত্রী দেবুসিংহ চৌহান। ২০১৯ সালের অক্টোবরে ভারত সঞ্চার নিগম লিমিটেড বা বিএসএনএল এবং এমটিএনএল – দুই সংস্থারই পুনরুজ্জীবনের পরিকল্পনা অনুমোদন করেছিল মোদী সরকার। সেই পরিকল্পনায় দুই রাষ্ট্রীয় মালিকানাধীন টেলিকম কর্পোরেশনকে একীভূত করার বিষয়ে নীতিগত অনুমোদন দেওয়া হয়েছিল। তবে, এমটিএনএল-এর ব্যাপক ঋণের বোঝা এবং বিএসএনএল-এর দুর্বল আর্থিক অবস্থার কারণে, ২০২০ সালের ডিসেম্বরে এই একীভূতকরণের পরিকল্পনা পিছিয়ে দিয়েছিল সরকার। সেই সময় সরকার বলেছিল, এমটিএনএল-এর ঋণের বোঝা না কমা পর্যন্ত ওই পরিকল্পনাকে বাস্তবায়িত করা হবে না।

Follow us on

Related Stories

Most Read Stories

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla