সোশ্যাল মিডিয়ায় ‘অভিযুক্ত’ সৌরভকে ঘিরে বক্তব্য, পাল্টা বক্তব্য

সৌরভের পরিবারের সঙ্গে ঘনিষ্ঠ যোগাযোগ রয়েছে এমন এক সৃত্র মারফত এ দিন জানা যায়, সৌরভের বোন গতকালের ঘটনার পর তিনি মানসিকভাবে বিপর্যস্ত।

সোশ্যাল মিডিয়ায় ‘অভিযুক্ত’ সৌরভকে ঘিরে বক্তব্য, পাল্টা বক্তব্য
সৌরভ দাস।
শুভঙ্কর চক্রবর্তী

|

Jan 23, 2021 | 10:52 PM

যে দিন তৃণমূলে যোগদান করলেন অভিনেতা সৌরভ দাস, সেদিনই একটি ভিডিও ভাইরাল হওয়াকে কেন্দ্র করে সোশ্যাল মিডিয়া অভিযুক্তও হলেন। সেই ভিডিয়োতে দেখা গিয়েছে, বাঁ পাশে দাঁড়িয়ে থাকা এক তরুণীকে জড়িয়ে ধরেছেন তিনি। ভাইরাল হওয়া সেই ভিডিয়োর একটি নির্দিষ্ট স্থান গোল করে মার্ক করা সবুজ রঙে। এই গোল মার্ক করা ভিডিয়োকে কেন্দ্র করেই শুক্রবার থেকে উত্তাল সোশ্যাল মিডিয়া।

 

আরও পড়ুন  ‘মমতার আগুনে অনুপ্রাণিত’, তৃণমূলে যোগ সৌরভের

 

একের পর এক পোস্ট সৌরভের বিরুদ্ধে—সৌরভ নিগ্রহ করেছেন এক তরুণীকে। শুধু তারকারাই নন সে-ই সব পোস্টের কমেন্ট সেকশনে নিগ্রহর অভিযোগে সৌরভকে অভিযুক্ত করেছেন সাধারণ মানুষও। যদিও বাইরাল হওয়া ভিডিয়োয় যে তরুণীকে দেখা গিয়েছে সৌরভের বাঁ পাশে, তাঁর পরিচয় সম্পর্কে দীর্ঘক্ষণ পর্যন্ত কোনও তথ্য পাওয়া যায়নি। আজ, শনিবার এই তথ্য স্পষ্ট হয়ে গিয়েছে যে শুক্রবার ভাইরাল হওয়া ভিডিয়োয় সৌরভের বাঁ পাশে থাকা তরুণী সৌরভের নিজের বোন। প্রসঙ্গত, গতকালই সোশ্যাল মিডিয়ায় ‘বিতর্ক’ দানা বাঁধার পর সৌরভ নিজে একটি ভিডিয়ো পোস্ট করেন যা দেখে প্রমাণ হয় ‘ভাইরাল’ হওয়া ভিডিয়োটি আরেকটি দীর্ঘ ভিডিয়োর অংশ বিশেষ। সে-ই ভিডিয়োয় দেখা যায় সৌরভের বাবাকেও। সেই দীর্ঘ ভিডিয়োয় সৌরভের জন্মদিনের সেলিব্রেশনের কিছু মুহূর্ত ক্যামেরাবন্দি হয়েছে। ‘ভাইরাল’ হওয়া ভিডিয়ো পরবর্তী পূর্ণাঙ্গ ভিডিওটি দেখার পর কে কী বলছেন?

Tv9 বাংলার পক্ষ থেকে একে একে যোগাযোগ করা হয়েছিল রূপাঞ্জনা মৈত্র, কাঞ্চনা মৈত্র, অঙ্কিতা চক্রবর্তী, সুদীপ্তা চক্রবর্তী ও বর্ষালী চট্টোপাধ্যায়ের সঙ্গে। কে কী উত্তর দিলেন?

 

 

 

রূপাঞ্জনা মৈত্র (অভিনেত্রী)

প্রথম ভিডিওটা দেখার পর একজন মহিলা হিসেবে আমি কেঁপে উঠছিলাম। একাংশ হোক, গোটা অংশ ভিডিওটা তো এক। আমি গোটা ভিডিয়ো দেখেছি, ওর গালিগালাজও দেখেছি। আরেকটা কথা গোল দাগ না থাকলেও যাঁদের চোখ যাওয়ার, তাঁদের চোখ ওই নির্দিষ্ট জায়গায় তা যাবেই। একজন মহিলার গায়ে ওভাবে হাত দিচ্ছে…তা নিজের বোন-ই হোক না কেন। অনেকের সঙ্গে ব্যক্তিগতভাবে কথা বলেছি, তাঁদেরও কিন্তু মত বদলায়নি। প্রথম ভিডিওটাকে জাস্টিফাই করার জন্য দ্বিতীয় ভিডিও পোস্ট করা হয়েছে। মানুষ যা দেখার দেখে নিয়েছে। এ তো শাক দিয়ে মাছ ঢাকার চেষ্টা।

 

 

 

কাঞ্চনা মৈত্র (অভিনেত্রী)

এ সব মানুষ সম্পর্কে কোনও মন্তব্য করা আমার রুচিবিরুদ্ধ।

 

 

 

 

অঙ্কিতা চক্রবর্তী (অভিনেত্রী)

দুটো ভিডিও দেখার পরে আমার প্রতিক্রিয়া বদলায়নি। এবং তারপরে আমি পোস্ট করেছিলাম। কারওর কোনও ব্যক্তিগত বিষয় নিয়ে মন্তব্য আমি করি না। সে অধিকার আমার নেই। কিন্তু যা আমি দেখছি আমারই বয়সই এক অভিনেতা এমন এক কাজ করছে। এরকম কাজ ইন্ডাস্ট্রিতে লুপে চলছে। অনেকে মনে করে এটা অধিকার। এবং অনেকে সেটা নিয়ে ফেসবুকে বড়াই করে।

 

 

 

সুদীপ্তা চক্রবর্তী (অভিনেত্রী)

বিভিন্ন লোকজন আমাকে বিভিন্ন অ্যাঙ্গেল থেকে ভিডিও পাঠাচ্ছেন। আগের ভিডিওটায় দেখে মনে হয়েছে, যেটা দেখলাম সেটা যদি সত্যি ঘটে থাকে, তা হলে খুবই দুঃখজনক। আমি সোশ্যাল মিডিয়াতে লিখেওছি, যে খুবই শকিং। আর এটা যদি হয়ে থাকে, যে খুবই এক্সাইটেড ছিল এবং অজান্তে ব্যাপারটা ঘটে গিয়েছে। সেটাকে গ্র্যাফিক্যালি বাড়িয়ে দেখানো হয়েছে। যেহেতু ও একজন পলিটিক্যাল পার্টি জয়েন করেছে। ওপনেন্ট পার্টি সেটা গ্র্যাফিক্যালি মর্ফ করে বাজারে ছাড়ছে। সেটা আরও দুঃখজনক।

 

 

 

 

বর্ষালী চট্টোপাধ্যায় (‘জেনেনা’ ছবির পরিচালক)

পরের ভিডিওটা দেখলাম। অনেকগুলো ক্যামেরা ছিল। হাতটা যখনই শরীরের বিশেষ একটি অঙ্গে কাছে গিয়েছে, ক্যামেরা তখনই উপরে উঠে গিয়েছে। যে ভাইরাল ভিডিওটা, সেটা তো এডিটেড নয়। ওটা একটা অরিজিনাল ভিডিও।

 

এ দিন, সৌরভের সঙ্গে বহুবার ফোনে যোগাযোগের চেষ্টা করা হলেও তাঁকে ধরা যায়নি। তবে, সৌরভের বান্ধবী অনিন্দিতা বসুর সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, “এ ব্যাপারে কোনও মন্তব্য করতে চাই না।” সৌরভের পরিবারের সঙ্গে ঘনিষ্ঠ যোগাযোগ রয়েছে এমন এক সৃত্র মারফত এ দিন জানা যায়, সৌরভের বোন গতকালের ঘটনার পর তিনি মানসিকভাবে বিপর্যস্ত। শুধু সৌরভের বোনই নন, গোটা পরিবার এই ঘটনায় অত্যন্ত মর্মাহত। প্রসঙ্গত, এদিনই সমর দাস নামে এক ব্যক্তি একটি ইউটিউব ভিডিওর কমেন্ট সেকশনে এক মন্তব্য করেন, অন্যদিকে সৌরভের বাবার নামও সমর দাস। নিচে রইল সেই কমেন্টের স্ক্রিনশট।

 

‘সমর দাস’ নামক সেই ব্যক্তির কমেন্ট।

Follow us on

Most Read Stories

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla